ক্যাটেগরিঃ পাঠাগার

 

‘তাল লয় দিয়ে কবিতার মাধ্যমে কবিরা মানুষকে মুগ্ধ করেন। কবিতাকে সমাজ পরিবর্তনের হাতিয়ার বলা হয়। কবিতা মানুষকে ভালোবাসতে শেখায়। যারা কবিতা নিয়ে চর্চা করেন তাদের আমি সাধুবাদ জানাচ্ছি।” প্রধান অতিথির বক্তব্যে গৃহায়ন ও গণপূর্তমন্ত্রী ইঞ্জিনিয়ার মোশারফ হোসেন সেদিন কবি আর কবিতা সম্পর্কে এই কথাগুলো বলেন।

কবি হেলাল হাফিজ বলেন, নারীরা শত ব্যস্ততার মাঝেও কবিতাকে সময় দেন। তাই নারীদের আমার সালাম। যারা নতুন কবিতা লিখছেন, তাদের নান্দনিকতায় আমি সত্যি মুগ্ধ। কবিতার ছন্দে আরো নজর দিতে হবে। কারণ, কবিতার ছন্দ মেলাতে আমাদের মাসের পর মাস সময় লেগেছে।

 

ctg pic

 

কবি নির্মলেন্দু গুণ বলেন, নবীন লেখকদের উৎসাহিত করতে এ ধরনের একটি উদ্যোগকে স্বাগত জানাচ্ছি।

রাজধানীর ছায়ানট মিলনায়তনে গেল ১৬ ফেব্রুয়ারি বিকাল পাঁচটায় ২য় সমধারা কবিতা উৎসবে কবি সম্মাননা প্রদান অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়। অনুষ্ঠানে বাংলাদেশ ও কলকাতার ১৫৩ জন কবির হাতে সম্মাননার সনদ ও উত্তরীয় পরিয়ে দেয়া হয়।

সমধারা সম্পাদক সালেক নাসির উদ্দিন বলেন, শিল্প সাহিত্যে আগ্রহীদের নিয়ে আমরা কাজ করতে চাই। কবি বা লেখকরা কখনোই কাজের বিনিময় চান না। তারপরও আমরা নবীন লেখকদের উৎসাহ দিতে চেষ্টা করি। আর আজ তাই এ সম্মাননা দেওয়া হচ্ছে।
অনুষ্ঠানে কবি নির্মলেন্দু গুণ সমধারা সাহিত্য পুরস্কার তুলে দেন কবি হেলাল হাফিজের হাতে।

অনুষ্ঠানে আরো উপস্থিত ছিলেন রাজউকের চেয়ারম্যান জয়নাল আবেদিন, কবি কাজী নজরুল বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য মহিতুল আলম।
অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন সমধারার সম্পাদকমণ্ডলীর সভাপতি কাইয়ুম নিজামী।