ক্যাটেগরিঃ মুক্তমঞ্চ

 

পাগল—দে আমাকে একটা টাকা দে ভাত খামু! আসলে কি একট টাকা দিয়ে ভাত খাওয়া যায় ?

নিজের কোন খবর নাই, দেশের কোন খবর নাই, জনগণের কোন আশা নেই, ভবিষ্যতের  কোন পরিকল্পনা নাই। শুধুই বগ বগ আর বগ, প্রেস বিফিং, কর্মশালা,  টকশো–মনে হয় সবকিছুই বুঝে আসলে বুঝে না কিছুই। আহাম্মকের দল। যাদের নাই কোন নীতি রীতি তারাই—বর্তমানকার রাজনীতি করে। অবৈধ টাকা আয় করার জন্যই, নিত্য নতুন দল গঠন, নিত্য নতুন ব্যানার, আরো কত কি? নার্ভাস কি ? মোদী কি এখানে শাসন করবে না কি? না কি ফ্যাক্টরী বানাবে?

ছাগল যেমন সব পাতা খায়- ঠিক তেমনি বর্তমান ফায়দাবাদ কারীরা সব কথাই গায়।

ডাক্তারের ধর্মঘট- এর পিছনে অর্থ ও ইন্ধণ–বুদ্ধিজীবি হত্যার কারীরা। অত্যান্ত কৌশলী এই কাজটি করছে। যা আইন শৃঙ্খলা বাহিনী বা অনুসন্ধানের বাহিরে।

র্র্যাব বিলুপ্তির জন্য গোলাপী নীলাভ কণ্ঠস্বর মানেই – পিছনে আছে সুচতুর চাল। আর পাশ্ব ঘেষা মিডিয়া নামক হলুদ বাহিনী ঐ মিথ্যের জিকির শুরু করে যখন পাওয়া যায়- কথার শব্দ। জঙ্গির আস্তানা গড়ে আছে শহরের চারপাশ্বে তার মাঝেই এই কথাই প্রমাণ করে, জঘণ্য, হিংস্রা, প্রতিশোধ পরায়নের নেশায় বিভোর এই নব্য মুক্তিযোদ্ধার দল, বা প্রথম প্রেসিডেন্ট দাবী করা, অবৈধ কবে চিৎকার করে ঘোষনা দেওয়া স্বদেশ প্রেম/মুৃখ শাসনকারী, অর্থ লুটপাটকারী প্রধান মন্ত্রী।

আরে বলি- ৫ বৎসর যে লন্ডন থাকতেছে। হেই টাকা পায় কনে? দেয় কেডা? তার কি ফ্যাক্টরী আছে নাকি? উনে কি ২০০০০ বিশ হাজার টাকা খরচ হয়? নাকি ২০ লক্ষ টাকা? সাহস থাকে তো দেশে আসে না কেন? সময় মত আইবে, অর সময় কবে হইবো? বর বর করেই বলে যাচ্ছে কথা গুলি।

ঠিক তেমন আমাদের কুলসিত রাজনৈতিক নাম নেতৃবৃনন্দ। আর কি বললে লজ্জা নামক অধ্যায় হবে?

আর- নিত্য নতুন অভিনব পন্থায় ছিনতাই নামক রোগ ব্যাধিতে ধাবিত হচ্ছে আইন শৃঙ্খলা বাহিনী। কেন না সাথে যে থাকে সোর্স জারজ সন্তানরা। কিন্তু এটা কি তারা করতে পারে???????? যারা সরকারে চাকুরী করে তাদের আবার কিসের সংগঠন? কিসের দল? কিসের দলবাজি? তাহলে সরকারী চাকুরি কেন ? ছেড়ে দিন নেমে আসুন রাস্তায়, লাঠি আর অস্ত্র নিয়ে।

আবারো বলছি, আবারো মিনতি করছি, আপনার অনেক করেছেন, অনেক ধরেছেন, সত্যকে মিথ্যে করেছেন, অবৈধ ভাবে মানুষের কষ্টাজিত উপার্জনে আঘাত করেছেন। এবার থামুন,,,নয়তো এর পরিনতি ভয়ানক থেখে ভয়ানক হতে পারে।

এখনও সময় আছে,,,সত্যকে মেনে নিয়ে সময়ের সাথে সাথে পরিবর্তন হউন।