ক্যাটেগরিঃ আইন-শৃংখলা

ধন্যবাদ.. আমাদের পুলিশ কমিশনানাকে। ফরমালিনের বিরুদ্ধে অভিযান -এটা কি তার নিজের উদ্যেগ ? নিতান্তই একটি ভালো । ভালো কাজের মহৎ উদ্যেগ। মনে হয় অনেক বেশী দেরী করে ফেলেছি। যেমনটা দেরী করে ফেলেছি মাদকের বিরুদ্ধে অভিযান করতে। তারপরও ভালো। কিন্তু -এটা কি কারো মাধ্যম হয়ে ?  কারণ আমরা সবকিছুতেই কিন্তু খুজি। আহা–যদি অন্য লোক বা সংগঠন এগিয়ে আসতে তাহলে কতকিছুই লাগতো। পুলিশ পারমিশন/স্বরাষ্ট্র মন্ত্রনালয় – আরো কতকি? কিন্তু যেখানে পুলিশ, কিসের পারমিশন/স্বরাষ্ট মন্ত্রনালয়?

এই ফরমালিন নিয়ে সংসদে কথা হয়। কিন্তু- পুলিশের ভিতর যে ফরমালিন ভরা তার কি হবে? শ্রদ্ধেয় কমিশনার সাহেব। তা কি আপনি মুক্ত করতে পারবেন ? পারবেন কি- ফরমালিন ছাড়া সুন্দর একটি নির্ভেজাল পুলিশ বাহিনী দিতে? কারণ দীর্ঘ দিন আপনি পুলিশের বড় কর্তা, আপনার আছে বেশুমার ক্ষমতা- আপনি একটি বারের জন্য বলুন তো দেখি—-পুলিশ ফরমালিন মুক্ত। যেমনটা বলেছেন- পুলিশ কন্ট্রাক্ট কিলিং করে না ? আসলে্ কি তাই ? বাস্তবতার সাথে কি এই কথার মিল আছে? যদি থাকে ভালো কিন্তু যদি না থাকে–তাহলে? যেমনটা  এখন করে থানার তথাকথিত সোর্স নামক নরপশুরা– নিরীহ মানুষকে আটকে বিভিন্ন মামলার ভয় দেখিয়ে টাকা আদায় করে? আপনি তার প্রমান চান? হাজারো প্রমান মিলবে থানায়, থানায়। একটি বারের জন্য এ বিষয়ে ভাববেন কি?

ভালো তো–একক প্রচেষ্টায় ফরমালিন মুক্ত হবে। হাজারো মানুষের জীবন বাচঁবে। কিন্তু প্রতিদিন প্রতিটি থানা – হাজারো নির্যাতন কারী পুলিশের কি হবে? তারা কি এভাবেই মানুষকে নির্যাতন করে যাবে? না এর প্রতিকার হবে?