ক্যাটেগরিঃ স্বাধিকার চেতনা

‘কসাই কাদেরের ফাঁসি হোক’ ‘কসাই কাদেরের ফাঁসি চাই’ – হাজার মানুষের তীব্র স্বরে শুধু শহর নয় – সারা দেশই কেঁপে উঠছে, নানা শ্রেণির মানুষের মুখের রেখায় ভেসে উঠছে তীব্রক্ষোভ ও ঘৃণা, এর ফলে নিজের শুকনো দেহখানাতেও তেজদীপ্ত অগ্নিময় সহস্র তীর বিঁধে যাচ্ছে, স্ফূলিঙ্গ জ্বেলে দিচ্ছে যেন ওই সহস্র মানুষের শক্ত চোয়াল – ভেতরে ভেতরে জিকিরের মত করে ‘জেগে উঠছে শতমানুষের স্বরে – ফাঁসি চাই, ফাঁসি চাই।

শাসকের মুখোশও কি খুলে যাচ্ছে? তারপরও এই রক্তচক্ষু-শাসক ছাড়া আর এই দেশে কারা বা কাদের, এইসব কসাইদের বিচার করবে বা বিচার করার মানসিকতা আছ? রাজনীতির গোলকধাঁধাঁর ভেতরও যে এই নরপশুদের বিচারের কাজ শুরু হয়েছে সেজন্য এই মুখোশপরা শাসকগোষ্ঠীকে প্রথমে অভিনন্দন জানাচ্ছি। কারণ নরপিশাচদের ( তা গুটিকয়েক হলেও) খোঁয়াড়ে ঢুকিয়েছে এবং বিচার করারও বন্দোবস্ত করছে।

গতকালকে শাহবাগের শতশত মোমের আলোয় নিজেকে মনে হচ্ছিল – আমিও ওইসব স্বদেশ প্রেমিকদের ভগ্নাংশের কোন না কোন অংশে আছি, ভেতরে ভেতরে দারুণ এক আশার প্রদীপ শতমোমের আলোর মত জ্বলে উঠছিল, তখন মনে হচ্ছিল – দেশ আসলে গোল্লায় যাচ্ছে না, এইসব শতমানুষের শুভ্রময় মুখের রেখার তলে এই দেশ জেগে আছে।

প্রতিবাদের ভাষা হৌক মোমালোর শিখা। পাকিস্তানি হায়েনাদের বিরুদ্ধে যুদ্ধ করে দেশকে যেসব সাহসী মানুষেরা করেছেন স্বাধীন তাদের প্রতি লাল সালাম জানিয়ে শত কণ্ঠের সাথে তাল মিলিয়ে বলতে চাই একাত্তরের ‘কসাই কাদেরের’ ফাঁসি চাই।