ক্যাটেগরিঃ ক্যাম্পাস

নিঃসন্দেহে, বাংলাদেশ প্রতিটি খাতে এগিয়ে যাচ্ছে, যদিও এখনও আছে অনেক সমস্যাIঅনেক সমস্যার একটি-বদলী বা পদায়ন বিষয়ক অসন্তোষ প্রায় সকল মন্ত্রণালয় ও বিভাগের জন্য একটি সাধারণ সমস্যা I অধিকাংশ কর্মকর্তাই মনে ধারণা পোষণ করেন যে, তাঁর চেয়ে কম যোগ্যতা সম্পন্ন ব্যক্তি ভাল জায়গায় বদলী বা পদায়িত হয়েছেন I যার ফলে শিক্ষামন্ত্রণালয় ও মাধ্যমিক ও উচ্চ শিক্ষা অধিদপ্তরে বদলী বা পদায়ন বিষয়ক আবেদনপত্র সহ শিক্ষক-কর্মকর্তারা প্রতিনিয়ত অপ্রত্যাশিত ভীড় করে থাকেন, একই সাথে স্ব-স্ব বিভাগের কর্মকর্তারা অযাচিত ভীরে নিজ কাজের ব্যঘাতের অভিযোগ ও করে থাকেন I শুধু তাই নয়, এখানে আমরা আমাদের কাজের সময় থেকে কত ঘন্টা হারিয়ে ফেলি তা কি ভেবে দেখেছি? এরই পরিক্রমে আমরা শুনতেপাই দুর্নীতিগ্রস্ত শিক্ষক সমাজের কথা I আমি উপলব্ধি করি দুর্নীতিগ্রস্ত শিক্ষাবিদ দ্বারা পরিচালিত শ্রেণীকক্ষ ও দুর্নীতিগ্রস্তI তার চক্র প্রতিটি প্রজন্মের মধ্যে নতুনভাবে দুর্নীতির বীজ বপন  শুরু করেI

আমি যেহেতু শিক্ষা বিভাগের একজন কর্মকর্তা তাই ধারণা করি যে, যদি এ বিভাগে বদলী বা পদায়ন বিষয়ক স্বচ্ছ, সহজ, স্ব-মূল্যায়নযোগ্য ও বাস্তবায়নযোগ্য বিধি নির্দিষ্ট করা যায় তবে কর্মকর্তাদের মনে পোষণকৃত অপ্রত্যাশিত ধারণা পরিষ্কার করা সহজ হবে I এই বিশ্বাস থেকে, আমি একটি সহজ ও বাস্তবায়নযোগ্য বিধি প্রস্তাব করছি I যেহেতু এই প্রস্তাবনা শিক্ষামন্ত্রণালয়ের শিক্ষক-কর্মকর্তাদের বদলী বা পদায়ন বিষয়ক তাই সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তার শিক্ষা ও গবেষণাগত যোগ্যতাই অগ্রাধিকার পাওয়া উচিত বলে আমি মনে করি I এ ধারণাকে যথাযথ বিবেচনায় নিয়ে নীচের প্রস্তাবিত ১০০ নম্বরের মূল্যায়নের ভিত্তিতে যে কেউ নিজেকে মূল্যায়ন সহ তাঁর পোস্টিং পেতে পারেনI

  মূল্যায়নের ভিত্তি নম্বর মন্তব্য
১. পিএইচ. ডি. ৩০
২. এম.ফিল. ২০
৩. মাস্টার্স/সমমান ডিগ্রী ২০ কোনো কর্মকর্তা ১০০% নাম্বার পেলে তিঁনি ২০ পাবেনকোনো কর্মকর্তা ৮০% নাম্বার পেলে তিঁনি ১৬ পাবেনকোনো কর্মকর্তা ৫০% নাম্বার পেলে তিঁনি ১০ পাবেন….
৪. স্নাতক/ সমমান ডিগ্রী ২০
৫. প্রবীনত্ব ০৫ *ব্যাচ এবং মেধার সিরিয়াল ভিত্তি করে সবচেয়ে প্রবীন কর্মকর্তা ৫ পাবেনI একই ব্যাচ কিন্তু মেধার সিরিয়াল ভিত্তি করে জুনিয়র অফিসার ১ নম্বর কম পাবেন I
৬. গবেষণা প্রকাশনা / উচ্চতর প্রশিক্ষণ / জাতীয় বা আন্তর্জাতিক পুরস্কার ০৫ আন্তর্জাতিক জার্নালে(ইমপ্যাক্ট ফ্যাক্টর: নূন্যতম 0.৫) প্রকাশনার জন্য ৪ পেতে পারেন Iজাতীয়/আন্তর্জাতিক জার্নালে(ইমপ্যাক্টফ্যাক্টরবিহীন) প্রকাশনার জন্য ২ পেতে পারেন Iকোনো প্রখ্যাত সংবাদপত্রে শিক্ষা বিষয়ক নিবন্ধ প্রকাশনার জন্য ১ পেতে পারেন Iজাতীয় বা আন্তর্জাতিক পুরস্কার এর জন্য ৩ পেতে পারেন Iএ শিরোনামে কেউই সর্বমোট ৫ এর অধিক পাবেন না I
সর্বমোট ১০০

*যাচাই-বাছাই কর্মকর্তা এখানে নম্বর দিবেন

এবার আসি এর বাস্তবায়ন কৌশল নিয়েI কোন কলেজে কোন পদ শূন্য হলে, সে কলেজের অধ্যক্ষ মহোদয় অবিলম্বে কলেজে/মাধ্যমিক ও উচ্চ শিক্ষা অধিদপ্তরের ওয়েবসাইটের মাধ্যমে আগ্রহী শিক্ষক-কর্মকর্তার জন্য আবেদন আহবান করবেন I উল্লেখ করা হবে যে, আগ্রহী শিক্ষক-কর্মকর্তাকে তিন কার্যদিবসের মধ্যে ই-মেইলের মাধ্যমে মহাপরিচালক ও সচিব মহোদয়কে অনুলিপি সহ আবেদন করতে হবে I পরবর্তী তিন কার্য দিবসের মধ্যে বিভাগীয় প্রধান ও অধ্যক্ষ মহোদয় গ্রহণকৃত আবেদনপত্রগুলো যাচাই-বাছাই ও মূল্যায়নসহ, মহাপরিচালক ও সচিবমহোদয়কে ০১ (এক) টি পদের বিপরীতে ০৩ (তিন)এবং ০২ (দুই) টি পদের বিপরীতে ০৫ (পাঁচ) জনের নামের ক্রম বিষয়ক ই-মেইল প্রেরণ করবেনI যার (ই-মেইলের) অনুলিপি আবেদনকৃত শিক্ষক-কর্মকর্তাগণ ও পাবেনI  পরবর্তীতে মহাপরিচালক ও সচিবমহোদয় প্রেরণকৃত নামেরক্রম ও চাকুরিজনিত শৃঙ্খলা বিবেচনাপূর্বক শিক্ষক-কর্মকর্তাকে বদলী বা পদায়ন করবেন I আমার বিশ্বাস প্রস্তাবটি বাস্তবায়িত হলে শিক্ষামন্ত্রণালয়ের শিক্ষক-কর্মকর্তাদের বদলী বা পদায়ন বিষয়ক প্রক্রিয়াটি স্বচ্ছ হবে,দূর হবে দুর্নীতি, স্বজন প্রীতি,অপ্রত্যাশিত ধারণা দূরীভূত হবে, আমরা নিশ্চিত করতে পারব শিক্ষার উপযুক্ত পরিবেশ এবং বাংলাদেশে সরকারি কলেজগুলোর মধ্যে গুণগত শিক্ষার ranking ও করতে পারব I  আর ও উল্লেখ করা যায় যে, একই ধরনের বিধি শুধুমাত্র মূল্যায়নের ভিত্তিগুলো পরিবর্তন করে সকল মন্ত্রণালয় ও বিভাগের জন্যই কর্মকর্তা বদলী বা পদায়নে স্বচ্ছতা নিশ্চিত করা সম্ভব হবে I

লেখকঃ . মোঃনাজমুল কবির চৌধুরী

প্রভাষক (ওএসডি)

পোস্টডক্টোরাল গবেষণা ফেলো, ইউনিভার্সিটি টেকনোলজি মালয়েশিয়া

Email: chowdhurynajmul76@yahoo.com

মুঠোফোনঃ০০৬০১৬৯৪০৪১৩৭

 

source: http://www.transparency.bg/media/cms_page_media/91/Global_Corruption_Report_EDUCATION_2013_1.pdf