ক্যাটেগরিঃ আইন-শৃংখলা

গতকাল ৭১’র মানবতা বিরোধী অপরাধের অভিযুক্তদের দল নেতা নরপিচাশ,হন্তাক,অগ্নি সংযোগকারী এবং স্বদেশ প্রেমে উদ্ভুদ্ধ বাংলার সোনর ছেলেরা যারা মুক্তি বাহিনতে যোগ দিয়েছিল এবং সেই সব পরিবার যারা প্রত্যক্ষ ও পরোক্ষ ভাবে মুক্তি যুদ্ধ/মুক্তি যোদ্ধাদের সহয়তা করছিল তাদের বাড়ি ঘর চিনিয়ে নানা ভাবে অত্যাচার জুলুম,ধর্ষন,অগ্নি সংযোগ সহ নানা মনবতা বিরোধী অপরাধের জনক জমাতের সাবেক আমির গোলাম আজমকে গ্রেফতার করা হয়েছ। তাকে যুদ্ধাপরাধ ট্রাইব্যুনালে দাড় করানো হবে মানবতার বিরুদ্ধে করা তার সব অপকর্মের বিচারের জন্য। বাংলাদেশ নামক দেশটিকে সত্যিকার অর্থে মনে প্রানে ভালবাসেন এমন প্রতিটি বাঙ্গালীর জন্য এটি এক পরম প্রশান্তি এবং আনন্দের ব্যাপার এ ব্যপারে কোন সন্দেহ নেই।

গতকাল থেকে ইন্টারনেট এবং ইলেক্ট্রনিক্স মিডিয়ায় অনেক সনাম ধন্য ব্যাক্তিরা তাদের আলোচনায় বলেন-এই বিচার প্রক্রিয়াটি সম্পন্ন না করতে পারলে বাংলাদেশ একটি সভ্য জাতি হিসাবে বর্তমান বিশ্বের কোথাও মাথা উচু করে কথা বলতে পারবে না। আর সেই সভ্যতার মিছিলে বাংলাদেশকে যোগ দিতে হলে এই বিচার সম্পন্ন করা ছারা আর কোন বিকল্প নেই। তারই সাথে সাথে এই বিচারকে সম্ভব্য দ্রুততার সহিত অন্তত কিছু ব্যাক্তির বিচারের মাধ্যমে আনুষ্ঠানিক প্রতিফলিত করার ব্যাপারেও জোর দেওয়া হয়।

কিন্তু আমি ভাবছি অন্য কথা,আর এই অন্য কথা ভাবতে আমাকে বাধ্য করছে পিছনের কিছু কথা মনে করে। ২০০১’র জাতীয় সংসদ নির্বাচনে বিএনপি-জমাত জোট বিজয়ী হয়ে ক্ষমতায় এসেই ঐ ঘৃন্য রাজাকারের সাঙ্গ পাঙ্গরা ৭১’র পরাজয়ের শোধ নিতে বিএনপির ঘারে সওয়ার হয়ে যে তান্ডব ঘটিয়েছে তা মনে হলে আজও গা-শিউরে ওঠে। আসুন একটু ২০০১ ইং সনের নির্বাচন উত্তোর সহিংসতার কিছু ঘটনা যা দেশের প্রথম শ্রেনীর পত্রিকা গুলিতে ছাপা হয়েছিল সেই সবের কিছু শিরোনাম-

@ ফরিদপুরে ও কিশোরগণ্জ্ঞে দুর্গা প্রতিমা ভাঙচুর : ৬ জন গ্রেপ্তার (প্রথম আলো ২১.১০.০১)
@ আমার মতো কেউ যেন অত্যাচারের শিকার না হয় : পূর্ণিমা … (সংবাদ ২১.১০.০১)
@ রামশীলের দুঃখী মানুষের কথা : স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী না যাওয়ার নেপথ্যে (সংবাদ ২১.১০.০১) …
@ কচুয়ায় মানুষ আতঙ্কে কাঁপছে : সন্ত্রাসীদের নির্যাতন সেখানে সব বর্বরতাকে হার মানিয়েছে (জনকণ্ঠ ২২.১০.০১)
@ কুমিল্লায় আওয়ামি লিগ ও সংখ্যালঘুদের ওপর নির্যাতন । প্রশাসন নীরব (সংবাদ ২১.১০.০১)
@ রাউজান ও রাঙ্গুনিয়ায় সংখ্যালঘুদের ওপর হামলা । অনেকেই পালিয়েছেন । (প্রথম আলো ২২.১০.০১)
@ নির্বাচন বিজয়ের বেদিমূলে সংখ্যালঘু বলি (জনকণ্ঠ ২২.১০.০১)
@ সিলেটে সংখ্যালঘু লোকজন আতঙ্কে আছেন (জনকণ্ঠ ২৩.১০.০১)
@ মোড়লগণ্জ্ঞে সংখ্যালঘু ও আওয়ামি লিগ সমর্থকদের বাড়িতে হামলা, লুটপাট চাঁদাবাজি । অভিযোগে ফল হচ্ছে না । (জনকণ্ঠ ২৩.১০.০১)
@ হিজলায় সংখ্যালঘুর বাড়ি নিশ্চিহু : গৃহবধূ নির্যাতিত (ইত্তেফাক ২৩.১০.০১) @ ক্ষুদিরামের ‘স্বাভাবিক মৃত্যু’ ও প্রিয়বালার ক্ষেত্রে ‘অপরাধজনিত নরহত্যা’ (প্রথম আলো ২৩.১০.০১)
@ নৌকার ভোটার আর সংখ্যালঘুদের জন্য কালিয়াকৈর জিম্মি জনপদ (জনকণ্ঠ ২৩.১০.০১)
@ ভোলার নির্যাতিত সংখ্যালঘুদের আজাহারি : প্রধানমন্ত্রীকে বলবেন, আমরা ভোট দিইনি আগামীতেও দেবো না, শুধু এদেশে থাকতে চাই (সংবাদ ২৩.১০.০১)
@ কাপাসিয়ায় সংখ্যালঘুদের ওপর নির্যাতনের অভিযোগ (সংবাদ ২৩.১০.০১) @ ভেগুরবাড়িতে এক বিভীষিকার রাত, ধর্ষণের মামলা একটি (প্রথম আলো ২৪.১০.০১)
@ ঘটনাস্থল মিরসরাই, বাউফল, না’গণ্জ্ঞ, কালিয়াকৈর ও সৈয়দপুরের সোনাখুলি : সবখানে সংখ্যালঘু ও আওয়ামি লিগের নেতা কর্মীদের ওপর চলছে চরম নির্যাতন । চাঁদাদাবি না হলে দেশ ছাড়ার হুমকি (সংবাদ ০১.১১.০১)
@ মাকে সন্তুষ্ট করতে নয়, বিএনপিকে সন্তুষ্ট করতেই এই পূজা (সংবাদ ০৩.১১.০১)
@ সংখ্যালঘুরা আতঙ্কে, আওয়ামি লিগ নেতা কর্মীরা ঘরে ফিরতে পারছে না (সংবাদ ০৪.১১.০১)
@ মাধবপুরে আতঙ্কজনক পরিবেশে দুর্গোৎসব পালন । প্রতিমা ভাঙচুর ও
@ পূজামণ্ডপে পাটকেল ছোড়া হয়েছে (সংবাদ ০৪.১১.০১)
@ বিভিন্ন জায়গায় সংখ্যালঘু ও আওয়ামি লিগ কর্মী-সমর্থকদের ওপর হামলা অব্যাহত (সংবাদ ০৪.১১.০১)
@ নরসিংদীতে সংখ্যালঘুদের ওপর সরকারদলীয় সন্ত্রাসীদের নির্যাতন (জনকণ্ঠ ০৫.১১.০১)
@ নাটোরে সংখ্যালঘু নির্যাতন কমলেও ভয়ভীতি প্রদর্শন বন্ধ হয়নি (সংবাদ ০৬.১১.০১)
@ সামাজিক আন্দোলনের নেতারা কালিয়াকৈরে নির্যাতনে হাত-পা ভাঙা হিন্দুরা এসে বিবরণ দিলেন (প্রথম আলো ০৬.১১.০১)
@ মানিকগণ্জ্ঞে পরেশ হালদারকে হুমকি চাঁদা ২০ হাজার, নইলে মাথা (জনকণ্ঠ ০৬.১১.০১)
@ ঘটনাস্থ নীলফমারীর ডোমরা : হিন্দু বিধবার কোটি টাকার সম্পদ লুটে নেয়ার পাঁয়তারা (সংবাদ ০৬.১১.০১)
@ বাগেরহাটে রামকৃষ্ণ আশ্রমে সন্ত্রাসী হামলা । গ্রেফ্তার ২ জন (ভোরের কাগজ ০৬.১১.০১)
@ গলাচিপার হরিপদ শীলকে দিগম্বর করে বাজার ঘোরানো হয় বঙ্গবন্ধু হত্যা মামলার আসামির ছোট ভাইয়ের নির্দেশে (জনকণ্ঠ ০৭.১১.০১)
@ মিরসরাইয়ের দাসপাড়ায় মধ্যরাতে বিএনপি সন্ত্রাসীদের হামলা সেবাইত খুন, আহত ৩০ (জনকণ্ঠ ০৭.১১.০১)
@ সন্ত্রাসীদের ভয়ে নরসিংদীর রাজনগরে সংখ্যালঘুরা অন্যত্র আশ্রয় নিয়েছে (যুগান্তর ০৮.১১.০১)
@ গলাচিপাড় হরিদেবপুর : মহিউদ্দিন বাহিনীর হাত থেকে মেয়েদের সম্ভ্রম বাঁচাতে দুই হিন্দু পরিবারের এলাকাছাড়া (জনকণ্ঠ ০৮.১১.০১)
@ সরেজমিন রাউজানের সরকারপাড়া : সন্ত্রাসীরা ঘোষবাড়িটি পুড়িয়ে দিলেও সাহায্য নিয়ে কেউ এগিয়ে আসেনি (সংবাদ ০৮.১১.০১)
@ কলাপাড়ায় এক সংখ্যালঘুর বাড়িতে আগুন, ছেলেকে অপহরণ । দেশ ছেড়ে চলে যাওয়ার হুমকি, পেছন থেকে কলকাঠি নাড়ছেন একজন বিএনপি নেতা (সংবাদ ০৯.১১.০১)
@ নির্বাচনের পরে ভোলা – ১ : অন্নদাপ্রসাদ গ্রামে এক বিভীষিকার রাত (প্রথম আলো ০৯.১১.০১)
@ নির্বাচনের পরে ভোলা – ২ : ক্ষেতমজুর প্রাণকৃষ্ণও স্ত্রী কন্যা নিয়ে ভারতে চলে যাবেন (প্রথম আলো ১০.১১.০১)
@ নির্বাচনের পরে ভোলা – ৩ : পঙ্গু শেফালীর ‘নাকফুল কেড়ে নেয়ার’ কাহিনী (প্রথম আলো ১১.১১.০১)
@ নির্বাচনের পরে ভোলা : জয়ন্তীর সংগ্রামের কাহিনী (প্রথম আলো ১২.১১.০১) @ রাউজানে সা.কা. বাহিনীর নির্যাতন : ৭ ইউনিয়নের ৫ হাজার সংখ্যালঘু নাগরিক ঘরবাড়ি ছাড়া (সংবাদ ১৩.১১.০১)
@ ধর্ষিত সংখ্যালঘুর সংখ্যা হাজার ছাড়াতে পারে (জনকণ্ঠ ১৫.১১.০১)
@ কিশোরগণ্জ্ঞে সংখ্যালঘুর বাড়িতে হামলা, লুটপাট, আহত ৭ (যুগান্তর ১৫.১১.০১)

এখন বর্তমান বিচার প্রক্রিয়াটিকে সামনের দিকে এগিয়ে নিতে হলে সরকারকে নানামুখি পরিকণ্পনার পাশাপাশি তাদের সাংঘঠনিক শক্তি বৃদ্ধির কোন বিকল্প নেই। যুদ্ধাপরাধের বিচারের কারনে সেই পরাজিত শক্তির হাতে ক্ষমতা যাওয়ার কুফলতার বিষয়ে তথকথিত রাজনৈতিক বলয়ের বাইরে অবস্থান করা সাধারন জনগনের কাছে উপাস্থপন করে সামনের দিনে দেশে যেন আর কোন সংখ্যা লগু পরিবার তথা যে কোন পরিবারকে রাজনৈতিক প্রতিহিংসার শিকার হয়ে প্রান বিসর্জন সহ সব রকম ক্ষতিগ্রস্থতার হাত হতে রক্ষা করার সচেতনতা বাড়াতে হবে। দলের আভ্যন্তরীন কোন্দল,ছাত্রলীগের অপকর্মের লাগাম টানা সহ সরকারী সকল কাজে স্বচ্ছতার নিশ্চয়তার মেসেজ পৌছে দিতে সোচ্চার হতে হবে দলটিকে।

আর এর ব্যত্যয় ঘটলে,আর পরাজিত শক্তি সহ বিএনপি জামাত জোট আবারও ক্ষমতায় ফিরে আসলে কি আরজকতা ঘটতে পারে তার নমুনা আমার মনে হয় ২০০১ পরবর্তিতে পেয়েছি আর এবার আসলে কি ভয়াবহতা ফিরে আসতে পারে আমি ভাবছি সেই কথা।

কিছু তথ্য ও ছবি-ইন্টারনেট থেকে।