ক্যাটেগরিঃ ক্যাম্পাস, ফিচার পোস্ট আর্কাইভ

 

বগুড়ায় ৬ষ্ঠ বারের মত নবান্ন উৎসব পালন করছে কলেজ ভিত্তিক শিকড় সন্ধানী নাট্য সংগঠন কলেজ থিয়েটার বগুড়া। নবান্ন এলেই উৎসবের জন্য সরকারি আজিজুল হক কলেজে তোড়জোড় শুরু হয় কলেজ থিয়েটারের নাট্যকর্মীদের। কলেজ থিয়েটারের এই আয়োজনে এবার যুক্ত হয়েছে কলেজ থিয়েটারের আরো দুটি শাখা সংগঠন।

আজ মঙ্গলবার ২১ নভেম্বর, দুপুর ১২ টায় বগুড়ার অন্যতম নাট্য সংগঠন ‘কলেজ থিয়েটার, সরকারি মুজিবুর রহমান মহিলা কলেজ শাখা’র আয়োজনে কলেজ মুক্তমঞ্চে অনুষ্ঠিত হলো ১ম নবান্ন উৎসব ১৪২৪।

23843629_161690791105488_983000657709148181_n

আলোকচিত্রী: নাভিদ ইবনে সাজিদ নির্জন

বর্ণাঢ্য আয়োজনে ছিল আনন্দ পদযাত্রা, উদ্বোধনী অনুষ্ঠান, নবান্ন কথন, সংবর্ধনা, নৃত্য, গান, কবিতা, নাটক এবং ফিউশন পালা। প্রথমে আনন্দ পদযাত্রা কলেজ ক্যাম্পাস প্রদক্ষিণ করে। এরপর উরানগাইনে ধান ছাঁটার মাধ্যমে অনুষ্ঠানের উদ্বোধক ও প্রধান অতিথি প্রফেসর মোঃ হোসেন সহিদ মাহবুবুর রহমান উৎসবর উদ্বোধন করেন।

গামছা পড়িয়ে প্রধান অতিথির হাতে নবান্ন উৎসব স্মারক তুলে দেয় কলেজ থিয়েটার বগুড়ার ভারপ্রাপ্ত সভাপতি সিজুল ইসলাম এবং সাধারণ সম্পাদক ওসমান গণি।

মহাত্মা গান্ধী পিস এ্যাওয়ার্ড- ২০১৭ ভূষিত হওয়ায় কলেজ থিয়েটারের সাবেক সাধারণ সম্পাদক ও উন্নয়ন ধারা’র নির্বাহী চেয়ারম্যান সোহেল আহমেদ খান কে সংবর্ধিত করে কলেজ থিয়েটার বগুড়া।

এরপর শুরু হয় নবান্ন কথন। নবান্ন কথনে সভাপতিত্ব করেন নবান্ন উৎসব ১৪২৪ এর আহবায়ক সহকারি অধ্যাপক আই আর এম সাজ্জাদ হোসেন। অতিথি হিসেবে আরো বক্তব্য রাখেন উপাধ্যক্ষ প্রফেসর এম হাসান জাহিদ, বাংলাদেশ গ্রাম থিয়েটারের সাধারণ সম্পাদক তৌফিক হাসান ময়না, বগুড়া থিয়েটারের সভাপতি মন্ডলীর সদস্য প্রদীপ ভট্টাচার্য শংকর, বগুড়া ইয়ুথ কয়্যারের সভাপতি আতিকুর রহমান মিঠু, কলেজ থিয়েটার বগুড়ার ভারপ্রাপ্ত সভাপতি সিজুল ইসলাম।

শুভেচ্ছা বক্তব্য রাখেন কলেজ থিয়েটার সরকারি মুজিবুর রহমান মহিলা কলেজ শাখার আহবায়ক লায়লা খাতুন। অনুষ্ঠান সঞ্চালনা করেন আমজাদ শোভন এবং নিশু ইসলাম।

এসময় আরো উপস্থিত ছিলেন কলেজের শিক্ষক পরিষদের সম্পাদক ড. আউয়াল হোসেন তালুকদার, বগুড়া বাউল গোষ্ঠীর সভাপতি আবু সাইদ সিদ্দিকী, বগুড়া থিয়েটারের এডভোকেট পলাশ খন্দকার, দ্বীন মোহাম্মদ দীনু, ফারুক হোসেন, ওমেগা ও প্রাইমেট কোচিং এর পরিচালক ফেরদৌস ওয়াহিদ সুমন, কলেজ ছাত্রলীগের সাবেক সভাপতি আনজুম আক্তার আয়না, সাধারণ সম্পাদক রতনা সরকার।

নবান্ন কথন শেষে কলেজ থিয়েটার বগুড়ার নাট্যকর্মীরা দলীয় গান পরিবেশন করে। এরপর কলেজ থিয়েটার সরকারি মুজিবুর রহমান মহিলা কলেজ শাখার নাট্যকর্মীরা নৃত্য পরিবেশন করে। তারপর তারা মঞ্চায়ন করে নাটক ‘নারী কথন’। রচনা তৌফিক হাসান ময়না নির্দেশনা শোভন চন্দ্র সরকার।

নাটকে অভিনয় করেছেন লায়লা খাতুন, জান্নাতুল ফেরদৌস মিশু, ফারিহা রহমান রাইজা, মৌসুমী আক্তার, কুমারী বৃষ্টি বালা, ইশরাত জাহান ইলা, সাদিয়া আফরিন ইতি, আনিকা আফরিন সিথী, জেরিন খান, সুজার্না মেহজাবিন। আবহ সঙ্গীতে ছিলেন বেলাল হোসেন, সুব্রত কুমার সজল, নির্মল মাহাতো, সুবাস চন্দ্র দাস মিঠু, রাশিয়ান চন্দ্র, অখিল দাস।

এরপর কলেজের রোভার স্কাউটের নৃত্যশিল্পীরা নৃত্য পরিবেশন করে। কবিতা আবৃত্তি করে জান্নাতুল ফেরদৌস মিশু এবং আমজাদ শোভন। এরপর কলেজ থিয়েটার বগুড়ার নাট্যকর্মীরা পরিবেশন করে ফিউশন পালা ‘সংসার’

পালা ভাবনা সাইফুল ইসলাম বুলবুল, নির্দেশনা নির্মল মাহাতো। পালাশিল্পী সিজুল ইসলাম, সাইফুল ইসলাম বুলবুল, নির্মল মাহাতো, কে এম আশিক, রাসেল মিয়া জাদু, স্বাধীন, শুভ, মুগ্ধ। আবহ সঙ্গীতে বেলাল হোসেন, সুব্রত কুমার সজল, নির্মল মাহাতো, সুবাস চন্দ্র দাস মিঠু, রাশিয়ান চন্দ্র, অখিল দাস।

আগামী ২৩ নভেম্বর বৃহস্পতিবার সকাল সাড়ে ৯ টায় কলেজ থিয়েটার বগুড়ার অন্যতম নাট্য সংগঠন, সৈয়দ আহমেদ কলেজ শাখাও প্রথমবারের মত নিজ ক্যাম্পাসে নবান্ন উৎসব পালন করবে। এরমধ্য দিয়ে কলেজ থিয়েটার বগুড়ার তিন কলেজে নবান্ন উৎসব শেষ হবে।