ক্যাটেগরিঃ দিনলিপি

 

দেখতে দেখতে ঈদ চলে আসল। কথা ছিল আমরা সবাই কিছু টাকা জমিয়ে অসহায় পথ শিশুদের কে সাহায্য করব। অনেকেই টাকা দিতে রাজিও হয়েছিল। কিন্তু টাকা দেওয়াই কী সব? যাদের কে বন্ধু ভাবতাম, তারা আজকে আমার কাছে চরম স্বার্থপর। শুধু টাকা দিয়েই যদি দুনিয়ার সব সম্ভব হতো তাহলে বন্ধুত্ব, ভালোবাসা এইগুলা থাকতো না। প্রাইভেট বিশ্ববিদ্যালয়ের স্টুডেন্টরা শুধু নিজেদেরকে নিয়ে ব্যস্ত। আশেপাশের অসহায়দের খোজ তারা নায় না। দরকার পড়ে না। সবাই উচু তলার মানুষ। তাদের কোনও দরকার নাই বস্তির মানুষের কাছে যাওয়ার। তারা উচু থেকে দেখে হইত মজা পায়। এর জন্য যখন বলা হল যে আমরা বস্তিতে কাপড় দিতে যাব তখন কাউকে খুজে পাওয়া গেল না। কিছু “বন্ধু” বলেছিল “আজকে না টাকা দেওয়ার কথা? টাকা তর কাছে দিয়ে ? ” এমন ভাব যেন আমি একা একা জমা কাপড় দিব। তাইলে বন্ধুত্ব কই থাকলো? টাকা দিয়ে বন্ধুত্ব টিকান যায় না। এক হতো তারা প্রথমেই নিষেধ করে দিয়েছে যে তারা পর্বে না। কিন্তু তারা শেষে এসে পিছুটান দিল 🙁

এমন বন্ধু অন্তত আমার দরকার নাই। কিন্তু emon কেও কী নাই যে শুধু মুখে অথবা টাকা দিয়ে না………নিজে সময় দিয়ে তাদের সাহায্য করতে পারে??? সামনে কোরবানি ঈদে কী আমরা তাদের মুখে ঈদের হাসি ফুটতে পারব না???????

থাকলে ইমেইল করতে পারেন 🙁 ভাই, অনেক কষ্টে আসি…….