ক্যাটেগরিঃ ক্যাম্পাস

 

বর্তমান সরকার কোচিং বন্ধ করার জন্য বেশ কিছু নীতিমালা নির্ধারন করেছেন….। কোচিং বন্ধ করার এই উদ্যোগ প্রশংসনীয়….কিন্তু কোচিং বন্ধ করার আগে কেন সবাই কোচিংয়ে যায় সেই কারণ বের করে তা ঠিক করতে হবে …….শুধু মাত্র কোচিং বন্ধ করার ঘোষণা দিলেই হবে না…..।

প্রথমত, স্টুডেন্টরা কোচিংয়ে যেসব সুযোগ সুবিধা পায় তা ক্লাসে নিশ্চিত করতে হবে…. বেশিরভাগ স্কুল-কলেজে ক্লাস এ অনেক বেশি স্টুডেন্ট থাকে…স্কুলে ৯০ এবং কলেজে ১৪০ জনের মত…..অথচ কোচিং গুলোতে 30-40 জনের মত স্টুডেন্ট থাকে……স্কুল-কলেজ এ ক্লাস হয় ৩৫-৪০ মিনিট আর কোচিং এ হয় 1-1.5 ঘণ্টা ..স্বাভাবিকভাবেই কোচিং এ স্টুডেন্টদের বেশি যত্ন নিয়ে পড়ানো হয়….সময় বেশি দেওয়া হয়….এই সুবিধাগুলো যদি ক্লাস রুমে নিশ্চিত করা যেত তাহলে স্টুডেন্টদের কোচিং প্রবণতা এমনিতেই অনেক কমে যেত……কিন্তু সরকার ক্লাস এ পড়ার মান বাড়ানোর জন্য এ ধরনের কোনও পদক্ষেপই নেইনি…..আর যদি নিয়েও থাকে তাহলে তার কোনও প্রয়োগ দেখা যাচ্ছে না…..কোনও সমস্যা সমাধানের জন্য তো আগে তার মূল উদঘাটন করতে হবে তা না করে শুধু সমাধানের কথা বলে তো কোনও লাভ নেই….তাই কোচিং বন্ধ করার আগে সরকারকে ক্লাস রুমে যেন সর্বোচ্চ যত্ন নিয়ে পড়ানো হয় সেই বেবস্থা করতে হবে…….তাহলে স্টুডেন্টদের কোচিং এ যাওয়ার যাওয়ার প্রবণতা এমনিতেই কমে যাবে…