ক্যাটেগরিঃ সুরের ভুবন

ধরা হয় গ্রামি এওয়ার্ডসের সমপর্যায়ের গানের পুরস্কার এটা – দ্যা ব্রিটস বা ব্রিটস এওয়ার্ড। ১৯৭৭ সাল থেকে তারা পুরস্কার দেয়া শুরু করে। আবার মাঝখানে ১৯৭৮ থেকে ১৯৮১ সাল পর্যন্ত তাদের ঝামেলার জন্য এওয়ার্ড দেয়া বন্ধ রাখে। ব্রিট নামটি ব্রিটিস, ব্রিটেন বা ব্রিটানিয়া থেকে আগত ধরা হয় যদিও ব্রিটানিয়া মিউজিক ক্লাব এই পুরস্কারটি দেয়া শুরু করে (পরে এরা ব্রিটিস রেকর্ড ইন্ডাস্ট্রি ট্রাস্ট নামে কাজ শুরু করে)। এই ক্লাবটি এখন নেই তবে এটা পরে ব্রিটিশ ফোনোগ্রাফিক ইন্ডাস্ট্রি বাৎসরিক পুরস্কার দিয়ে থাকে।

ব্রিটস এওয়ার্ড বিভিন্নধারাকে পুরস্কৃত করার চাইতে পপ মিউজিককেই বেছে নিয়েছে পুরস্কার দেবার জন্য। ব্রিটস তারকাদের মধ্যে উল্লেখযোগ্য হলেন – বিটলস (১৯৭৭), জন লেনন (১৯৮২), পল ম্যাককার্টনি (১৯৮৩), মাইকেল জ্যাকসন (১৯৮৪), দা পুলিশ (১৯৮৫), ফিল কলিন্স (১৯৮৬), এলটন জন (১৯৮৬), ডায়ার স্ট্রেইটস (১৯৮৭), এরিক ক্ল্যাপ্টন (১৯৮৭), দা হু (১৯৮৮), স্টিং (১৯৮৮), ক্লিফ রিচার্ড (১৯৮৯), কুইন (১৯৯০), জর্জ মাইকেল (১৯৯১), রড স্টুওয়ার্ট (১৯৯৩), ব্লার (১৯৯৫), বি জিস (১৯৯৭), স্পাইস গার্লস (১৯৯৭), অল সেইন্টস (১৯৯৮), রবি উইলিয়ামস (২০০০), ইউ টু (২০০১) , ডুরান ডুরান (২০০৪), কোল্ড প্লে (২০০৬), পেট শপ বয়েস (২০০৯), মামফোর্ড এন্ড সন্স (২০১১), এডেলে (২০১২) প্রমুখ।

১৯৮৮ সাল থেকে বিবিসি সরাসরি সম্প্রচারের মাধ্যমে ব্রিটস এওয়ার্ডের জনপ্রিয়তা এনেছে। ব্রিটস এওয়ার্ড দেয়া হত লন্ডনের আর্লস কোর্ট এক্সিবিশন সেন্টারে – এখন তা দেয়া হয় দা ও২ এরেনা তে। বলা হয় ও২ এরেনা হল বিশ্বের সেরা ভেন্যু। ২০০৭ সালে ২৪শে জুন বন জোভি এখানে প্রথম কনসার্ট শুরু করেন; এরপর কিন, রোলিং স্টোন, লেড জেপলিন, স্যার এলটন জন, স্পাইস গার্লস, মিউজ, ব্রিটনী স্পেয়ারস, লেডি গাগা, ডেভিড গিলমোর, রাস, আইরন মেইডেন, কেটি প্যারী, রিয়ানা, গানস এন্ড রোজেস প্রমুখেরা কনসার্ট করেন। দুঃখজনক ইতিহাস হল – এখানেই মাইকেল জ্যাকসনের শেষ কনসার্টটি হবার কথা ছিল ১৩ই জুলাই ২০০৯ সালে।

২০শে ফেব্রুয়ারী ২০১৩ সালে রোজ বুধবার হতে যাচ্ছে ৩৩তম ব্রিটস এওয়ার্ড। উপস্থাপনা করবেন জেমস করডেন। গ্র্যামি থেকে যেহেতু এটার ক্ষেত্রটা কম তাই নোমিনিদের নাম বাংলায় দিচ্ছি।

১. ব্রিটিশ একক পুরুষ শিল্পী
(ক) বেন হোয়ার্ড (খ) ক্যালভিন হ্যারিস (গ) ওলি মুরস (ঘ) প্ল্যান বি (ঙ) রিচার্ড হাউলে

২. ব্রিটিশ একক নারী শিল্পী
(ক) এমি ওয়াইনহাউজ (খ) ব্যাট ফর ল্যাশেস (গ) এমিলি স্যান্ডি (ঘ) জেসি ওয়ার (ঙ) পালোমা ফেইথ

৩. ব্রিটিশ ব্রেকথ্রু অ্যাক্ট বা সেরা পরিবেশনা
(ক) অল্ট জে (খ) বেন হোয়ার্ড (গ) জেইক বাগ (ঘ) জেসি ওয়্যার (ঙ) রিটা ওরা

৪. ব্রিটিশ গ্রুপ
(ক) অল্ট জে (খ) মামফোর্ড এন্ড সন্স (গ) মিউজ (ঘ) ওয়ান ডাইরেকশন (ঙ) দা এক্সএক্স

৫. ব্রিটিশ বর্ষ একক
(ক) এডেলে ‘স্কাইফল’ (খ) এলেক্স ক্লেয়ার ‘টু ক্লোজ’ (গ) কোল্ড প্লে এন্ড রিয়ানা ‘প্রিন্সেস অফ চায়না’(ঘ) ডি জে ফ্রেশ ফিচারিং রিটা ওরা ‘হট রাইট নাও’ (ঙ) এমিলি স্যান্ডি ‘নেক্সট টু মি’ (চ) ফ্লোরেন্স এন্ড দা মেশিন ‘স্পেকট্রাম সে মাই নেম’ (ছ) জেমস আর্থার ‘ইম্পোসিবল’ (জ) জেসি জে ‘ডোমিনো’ (ঝ) ল্যাব্রিন্থ ফিচারিং এমিলি স্যান্ডি ‘বিনিথ ইউর বিউটিফুল’ (ঞ) ওলি মুরস ফিচারিং ফ্লো রিডা ‘ট্রাবলমেকার’ (ট) রিটা ওরা ফিচারিং টিনি টেম্পা ‘আর আই পি’ (ঠ) রিযল কিকস ‘মামা ডু দা হাম্প’ (ড) রবি উইলিয়ামস ‘ক্যান্ডি’ (ঢ) রুডিমেন্টাল ফিচারিং জন নিউম্যান ‘ফিল দা লাভ’ (ণ) স্টুস ‘ব্ল্যাক হার্ট’।

৬. বছরের মাস্টারকার্ড ব্রিটিশ এলবাম
(ক) অল্ট জে ‘এন অসাম ওয়েভ’ (খ) এমিলি স্যান্ডি আওয়ার ভার্সন অফ ইভেন্টস (গ) মামফোর্ড এন্ড সন্স ‘বাবেল’ (ঘ) পালোমা ফেইথ ‘ফল টু গ্রেস’ (ঙ) প্ল্যান বি ‘৩ ম্যানরস’

৭. আন্তর্জাতিক একক পুরুষ শিল্পী
(ক) ব্রুস স্প্রিংস্টীন (খ) ফ্রাঙ্ক ওশেন (গ) গোটি (ঘ)জ্যাক ওয়াইট (ঙ) মাইকেল বাবোল

৮. আন্তর্জাতিক একক নারী শিল্পী
(ক) এলিসিয়া কিস (খ) ক্যাট পাওয়ার (গ) লানা ডেল রে (ঘ) রিয়ানা (ঙ) টেলর সুইফট

৯. আন্তর্জাতিক গ্রুপ
(ক) আলাবামা সেইকস (খ) দা ব্ল্যাক কিস (গ) ফান (ঘ) দা কিলারস (ঙ) দা স্ক্রিপ্ট

১০. সমালোচকের দৃষ্টিতে
(ক) টম ওডেল (খ) এলুনা জর্জ (গ) লরা এমভুলা

১১. ব্রিটিশ প্রযোজক
(ক) ড্যামন আলবার্ন (খ) জেইক গোসলিং (গ) পল এপওয়ার্থ

১২. সেরা লাইভ পরিবেশনা
(ক) কোল্ড প্লে (খ) মামফোর্ড এন্ড সন্স (গ) মিউজ (ঘ) দা রোলিং স্টোন্স (ঙ) দা ভ্যাক্সিনস

১৩. গ্লোবাল সাফল্য
(ক) মামফোর্ড এন্ড সন্স (খ) এডেলে (গ) ওয়ান ডিরেকশন

১৪. স্পেশাল পুরস্কার
(ক) ওয়ার চাইল্ড

এবার পাছে লোকের কথা বলি। এডেলের মধ্য আঙ্গুল দেখানোর কথা থেকে শুরু হোক। বলা নেই কওয়া নেই স্টেজের মাঝখানে সবার সামনে সব্বাইকে মধ্যমা আঙ্গুল দেখিয়ে দিলেন এডেলে। এডেলে বলেন, “ কোন কিছুই আমাকে এত গর্বিত করবে না ৬টি গ্র্যামি নিয়ে বাড়ি ফেরা আর ফিরেই ব্রিটসের বছরের সেরা এলবাম পুরস্কার জেতা আমি একজন ব্রিটিস হয়ে আর দেশের পতাকা উড়িয়ে গর্বিত এবং আপনাদের এই কক্ষে একসাথে হয়ে আরো গর্বিত”। এরপরই তিনি দেখিয়ে দিলেন মধ্য আঙ্গুল যা সেখানের উপস্থিত সবাইকে বিভ্রান্ত করে। পরে তাকে জিজ্ঞাসা করা হলে বলেন যে তিনি এটা উপস্থাপক জেমস করডেনকে দেখিয়েছেন, কারণ সময়ের স্বল্পতার জন্য তাকে জোরাজোরি করার কারণে, এটা তার ভক্তদের জন্য ছিল না, যদি কেউ মনক্ষুণ্ন হয়ে থাকে তাহলে তিনি ক্ষমাপ্রার্থী। এদিকে জেমস করডেন ও আয়োজকেরা এডেলের কাছে ক্ষমা চেয়েছে।

এদিকে বুড়ো মেম্বারদের বুড়ো ব্যান্ড রোলিংস্টোনকে আবার স্টেজে দেখে অনেকেই কথা তুলল যে ব্রিটিস পপ মিউজিক কি বুড়ো থেকে গেল নাকি? তাদেরকে যেন মামফোর্ড এন্ড সন্স বা মিউজ এর পাশে মানাচ্ছে না।

আবার এমি ওয়াইন হাউজকে মৃত্যুপূর্ব পুরস্কার দেয়া হচ্ছে এই আয়োজনে। তার ১৮ মাস হল ড্রাগ এর কারণে মৃত্যু হয়েছে।

ব্রুস স্প্রীংস্টিনের কপালে জুটছে আন্তর্জাতিক পুরুষ ভোকালের পুরস্কার। এমিলি স্যান্ডি তিনটি নোমিনেশন পেয়ে স্কটল্যান্ডের জন্য পতাকা উড়িয়ে টোস্ট করলেন আর সেভয় হোটেলে রিটা ওরা ও পালোমা ফেইথ পড়লেন শঁ পাইন রঙা গাউন (ওল্ড ওয়াইন বা ভিন্টেজ ড্রেস হতে) যেটা তাদেরকে বেশ আকর্ষনীয় করে রেখেছে পুরো সন্ধ্যা জুড়ে। তবে পালোমা ফেইথের পিঠে আঁকা পাখীর উল্কিগুলো ছিল খুবই চমৎকার।

ব্রিটসের এই আয়োজন উৎসব আরো দীর্ঘ সময় ধরে চলবে। আরো মজার খবরও আসবে ইলেক্ট্রিনিক মিডিয়ায়।

তবে পালোমার একটা কথার সাথে একমত হয়ে শেষ করছি –
“আমি দেখতে চাই লেড জেপলিন আজীবন সম্মাননা পুরস্কার জিতেছে।” আমার আর পালোমার মত নিশ্চয়ই আপনিও চান, তাই না?

তথ্যঃ উইকিপেডিয়া, ডেইলী মেইল, টেলিগ্রাফ, ব্রিটস, নয়েস১১, ইয়াহু নিউজ, স্পিন, মিউজিক উইক।
http://www.facebook.com/pages/wOwi/133782376650198?ref=hl