ক্যাটেগরিঃ আইন-শৃংখলা

আমাদের দেশের ট্রাজেডি হচ্ছে যার কাজ সে করেনা, করে আরেক জন। আবার যোগ্যতার বিচারে যার যেখানে যাবার কথা ছিল সে ও সোজা পথে সেখানে পৌছাতে পারেনা। যায় এক আমলে গোপালগঞ্জ আর এক আমলে বগুড়া, নোয়াখালির লোকজন। কেন দেশে কী যোগ্য লোকের এত অভাব পড়েছে নাকি?

পুলিশ দলীয় হতে হতে আজ চরম স্বেচ্ছা চারি হয়ে উঠছে । কেন এরকমটা হবে? আজ পুলিশের চেইন অফ কমান্ড বলতে কিছু আর অবশিষ্ট নেই। কারণ পুলিশের পোস্টিং এখন আর পুলিশ করেনা। কোনও থানায় পোস্টিং নিয়ে যেতে হলে কোনও অফিসারকে ওই এলাকার এমপি বা মন্ত্রী কে ম্যানেজ করে যেতে হয়। আর এখন তো কোনও কথাই নেই। ঢাকার সকল থানার ওসি মেড ইন গোপালগঞ্জ। কোনও কোনও ক্ষেত্রে ফরিদপুর। ওরা জানে কোন বাবাকে ধরে কোথায় আসা যায়। এবং পুলিশের সিনিয়র অফিসার রাও এই একই পদ্ধতি অবলম্বন করে ভাল ভাল পোস্টিং নিয়ে থাকেন। সুতরাং চোরে চোরে মাসতুতো ভাই হলে তো কোনও কোনও সমস্যা নেই। ভাগযোগ করে খাওয়া হবে, আর না মিললে যার বাবার জোর বেশি সে থাকবে, অন্যজনকে চলে যেতে হবে।

অবস্থা যখন এই তখন এই পুলিশের কাছে ভাল আচরণ আপনি কিভাবে আশা করতে পারেন?

আর আমাদের সাংবাদিক ভাইয়েরা জাতির বিবেক, পুলিশের কাছ থেকে টাকা খাবে, মাদক ব্যবসায়ীদের থেকে টাকা খাবে, সাধারণ মানুষকে ব্ল্যাকমেল করে টাকা খাবে, থানায় দালালী করে টাকা খাবে। ভাগাভাগিতে কম পড়লে সংবাদ ছেপে দেবে পত্রিকায়। জাতির বিবেক হিসেবে দায়িত্ত পালন করবে। তো এই যখন অবস্থা তখন টুকটাক মার তো খেটেই হবে। অতদিন পেটে সইলে একটু তো পিঠে সইতে হবেই।

যা বলছিলাম, এক সাথে থাকতে গেলে একটু আধটু তো সমসসা হতেই পারে। দেশ যখন মাদকে চেয়ে যাচ্ছে, শহরের রাস্তায়, অলিতে গলিতে গড়ে উঠছে আবাসিক হোটেল যাদের মূল ব্যবসা হচ্ছে মেয়ে সাপ্লাই, চোখের সামনে ঘুরে বেড়াচ্ছে দাগী সন্ত্রাসী। পুলিশ সাংবাদিক সবাই জানে তার পরিচয়। অথচ দিনের পর দিন তারা নির্বিকার থেকেছে। সমানে টাকা খেয়েছে সবার কাছ থেকে।কেউ যদি বলে মাদক ব্যবসা পুলিশ সাংবাদিকের অগোচরে হয় বিশ্বাস করেন আমি বিশ্বাস করব না। কারণ দিনের পর দিন এই ব্যবসা চালাতে হলে আপনাকে অবশ্যই প্রকাশ্যে আসতে হবে।

আমাদের শেষ আশা ভরসার জায়গা আদালত। আপনি সাধারণ মানুষ এর মানে আপনি কোনও মানুষের মধ্যেই পড়েন না। কোর্টে হাজার ও দালাল। সেরেস্তাদার, পেশকার, নাজির, উকিল আর ক্ষেত্র বিশেষ মাননীয়দেরকেও খুশি করতে আপনার বাপ দাদার ভিটে মাটি বিক্রি করার অবস্থায় উপনীত হতে হবে।

সুতরাং আমরা যারা আম জনতা, আমাদের পরিণতি এটাই যে আমরা সবখানেই লাঠির গুতা খাব। তাই ওদের নিয়ে ভাবিনা। যা শালা!!!!!!!!!!!!!