ক্যাটেগরিঃ রাজনীতি

 

প্রথম কোনও বাংলাদেশী হিসেবে ডঃ ইউনূস এর নোবেল অর্জন নিঃসন্দেহে একজন বাঙালি হিসেবে আমি গর্ববোধ করি। নোবেল কিভাবে পেল আর কিভাবে পেল না সেটা নিয়ে আমার কোনও মাথা ব্যাথা নেই। কিন্তু এই লোকটা এখন এমন এক পর্যায়ে চলে গিয়েছে যা ক্রমেই উনার এই নোবেল অর্জন প্রশ্নবিদ্ধ বলে মনে হচ্ছে। ব্যক্তিগত ভাবে আমি ইউনুস এর এই সুদের ব্যবসা প্রতিষ্ঠান গ্রামীণ ব্যাংক কে কোনও দিনই সাপোর্ট করিনি। পাশাপাশি আমি এটাও জানি আমার সাপোর্টে কিছু যাবেও না আসবেও না।

যাই হোক গ্রামীণব্যাংক বা নোবেল প্রাইস নিয়ে আমি ব্লগ লিখব না। আমি যেই কথাটা বলতে চাচ্ছি, আর সেটা হলো,সারা জীবন ডঃ ইউনুস রাজনীতিবিদদের গালাগালি করেছেন। ডঃ ইউনুস নোবেল পুরস্কার পাওয়ার পর রাজনীতির প্রতি অতি উৎসাহী হয়ে গেলেন আমি অস্বীকার করব না উনার সেই রাইটস নেই। ঠিক আছে উনার যখন এতই ইচ্ছা রাজনীতি করার, তবে করুক। কিন্তু ডঃ ইউনুস সময়ে সময়ে স্বাধীনতা বিরোধী জামায়াত ও তাদের দোসর বিএনপির দালালি করে, একনায়কতান্ত্রিক ভাবে সারা জীবন একটি পদ ধরে রাখার মানসিকতা এবং সর্বোচ্চ আদালত কর্তৃক একটি বিষয় সমাধান হয়ে যাওয়ার পর ও বিদেশি প্রভুদের দিয়ে সরকারকে প্রভাবিত করার নোংরা চিন্তা ভাবনার কারনেই উনি নিজের সম্মান নিজেই নষ্ট করেছেন।

ডঃ ইউনুস এর মনে রাখা প্রয়োজন এই দেশে এখন সবাই বিএনপি আর জামায়াত এর সমর্থক হয়ে যায়নি । আর সাধারণ মানুষ যে কত উনাকে ভালোবাসে সেটা একটু পরখ করে নিলেই বুঝতে পারবে আসলে জনগণ কী নোবেল খায় না মাথায় দেয়।