ক্যাটেগরিঃ রাজনীতি

মাননীয় ১৮ দলীয় ঐক্যজোটের প্রধান এবং প্রধান বিরোধী দলের প্রধান ব্যাক্তি হিসেবে আপনাকে অপ্রিয় হলেও কিছু সত্য ঘটনা বা মুহূর্তগুলোর কথা স্মরণ করিয়ে দিতে চাই আমি এক অল্প শিক্ষিত প্রকৃতির অধম। ব্যাপক জনসমর্থন নিয়ে সেই ২০০১ এ ক্ষমতায় এসেছিলেন আপনারা চার দলীয় জোট এবং তারপরে ক্ষমতার মসনদে বসার মতো সুযোগ করে দিলেন গুটি কয়েক বিতর্কিত কিছু লোককে যাদের কোনদিনই এদেশের মন্ত্রী হবার মতো সামান্যতম যোগ্যতাও ছিল না কিন্তু আপনার আশীর্বাদে তারা রীতিমত হয়ে গিয়েছিলেন আপনার চেয়েও প্রভাবশালী। যাই হোক ইতিহাস নিয়ে যত ঘাটাঘাটি করতে যাব ততই ভুল বের হবে কিন্তু আজ যখন বিভিন্ন ইস্যুতে আপনার দল বা জোট আন্দোলনের রব তুলে জন ভোগান্তি তৈরি করেই চলেছে কিন্তু অর্জনের খাতা প্রায় শূন্য তখন কিছু কথা আপনাকে মনে না করিয়ে দিলেই নয়।

প্রথমত, আজ আপনারা যে কোন কর্মসূচীতে দলীয় কার্যালয়ে অবরুদ্ধ হয়ে থাকেন প্রশাসনের দ্বারা তখন কি আপনাদের মনে পড়ে না যে একটি রাজনৈতিক দলকে একটি নির্দিষ্ট সীমানার মধ্যে কাঁটাতারের বেষ্টনী দিয়ে আটকে রাখার প্রথা যে আপনারাই চালু করেছিলেন।

দ্বিতীয়ত, রাজপথে মিছিল মিটিং করার মতো গণতান্ত্রিক অধিকারকে কিভাবে প্রশাসনকে নগ্নভাবে জড়িয়ে বন্ধ করা যায় সে প্রথাও আপনারাই প্রথম চালু করেছিলেন প্রকাশ্যে।

তৃতীয়ত, রাজনৈতিক কর্মসূচীর আগে দেশজুড়ে গন গ্রেফতারের প্রথা নিশ্চয়ই ১৪ দলীয় জোটের সৃষ্টি নয়?

চতুর্থত, প্রতিপক্ষ রাজনৈতিক দলের নেতা কর্মীদের কিভাবে প্রশাসন দিয়ে এলাকা ছাড়া করেছিল আপনার তৃণমূলের ক্ষমতাধর ব্যাক্তিরা সে বিষয়ে আপনি কতদূর জানেন আমি নিজেও জানি না। কিন্তু ইহা দিনের আলোর মতো সত্য তাদের নিকট যারা ভুগেছেন ও স্বচক্ষে দেখেছেন।

এভাবে আরো অনেক কিছুই হয়েছে আপনাদের আমলে শুধু ক্ষমতার শক্তিবলে যা খুলে বলতে গেলে দীর্ঘ সময়েও শেষ হবার নয়।

এবং শেষে আর একটি বিষয় যা হল আপনাদের ক্ষমতার আমলে দেশে জঙ্গি তৎপরতার ভয়াবহ বিস্তার,যখন তখন বোমা-গ্রেনেড হামলা,প্রধান বিরোধী দলের প্রধানের উপর প্রকাশ্যে নৃশংস গ্রেনেড হামলা,তৎকালীন প্রধান বিরোধী দলের প্রথম সারির জনপ্রিয় নেতাদের নির্বিচারে হত্যা, চট্টগ্রামের বাশখালী’র একটি গ্রামে এক রাতে গান পাউডার দিয়ে পুড়িয়ে ১১ জন কে হত্যা,সংখ্যালঘু সম্প্রদায়ের উপর নির্বিচারে নির্যাতন-ধর্ষণ,প্রশাসন কে নগ্নভাবে দলীয়করণ সহ আরও অনেক চাঞ্চল্যকর ঘটনা ঘটেছে কিন্তু দুঃখজনক হলেও সত্যি যে আপনার ক্ষমতাসীন দল/জোট এসব কোন কিছুকেই গুরুত্বের সাথে আমলে নেয় নি এবং কর্ণপাতও করে নি সামান্যতম।

পারবেন কি সৎ সাহস নিয়ে উপরে উল্লিখিত একটি অভিযোগকেও মিথ্যা বলতে? জানি মুখে অস্বীকার করলেও অন্তরের দিক দিয়ে অস্বীকার করতে পারবেন না। কোনদিনই নিজে নিজেকে ক্ষমা করতে পারবেন না। আর প্রকৃতির কি নির্মম বিচার এখন আপনারাই যখন বিরোধী দলে তখন পর্যাপ্ত কারন থাকা সত্যেও আন্দোলন করতে বারবার ব্যার্থ। এই ব্যর্থতা আপনাদের কারন বিরোধী দলকে কিভাবে গৃহবন্দী করে রাখা যায় সে পথ আপনারাই অতীতে দেখিয়ে গেছেন তবে আজ কেন এত শূন্যতা আর হাহাকার?