ক্যাটেগরিঃ প্রযুক্তি কথা

একদিন আমি আমার দুই নাতিন নিয়ে ভাড়া বাসা থেকে বাহির হলাম পাশের দোকানে যাব। যাওয়ার সময় দেখি রাস্তার পাশে দাঁড়িয়ে দুইটি মেয়ে মোবাইল ফোন দিয়ে ছবি তুলছে।  আমিও তাদের সামনে দিয়ে যাচ্ছিলাম, তখন একটি মেয়ে আমার সামনে এসে বলে, কাকা ওদের ছবি উঠাই? আমি বললাম কেন, কী দরকার? বললো ওদের খুব সুন্দর লাগছে তো ছবি তুলে ফেসবুকে দিলে ভাল হবে!! আমি বললাম, কী ভাল হবে? টাকা পয়সা পাবো নাকি? মেয়েটি বললো, আরে না কাকা। আমরা ফেইসবুকে আইডি খুলছি তো তাই আমাগো আইডিতে অগো ছবি দিলে বেশি লাইক পামু বুজলেন!!

তখন আমি আর আমার নাতিনদের ছবি তুলিতে দিলাম না, সোজা চলে গেমাম দোকানে। দোকান থেকে ফিরতে ফিরতে ভাবছি যে, ফেসবুকের কিছু লাইকের জন্য এতো চেষ্টা!! লাইক দিয়ে কি করে ওরা? তার কিছুদিন পর আমি নিজেই একটা ফেসবুক আইডি খুলে ফেললাম। তারপর  আজ অবধি দেখিতেছি যে, কারো কারো জন্য ফেসবুকের একটা লাইক মানে একটা স্বন্দেশ। বর্তমানে ফেসবুকে দেখি কেউ কেউ একটা লাইকের জন্য ভিক্ষাও চায়! প্রিয় পাঠক ভাইও বোনেরা, আমরা যারা ফেসবুক ব্যবহার করছি দেখিতেছি কত রকমের পেইজ!! এমনও লেখা দেখি, ভাইয়া একটা লাইক দিবা? আবার দেখি লেখা আছে কেউ এড়িয়ে যাবেন না!! আরো লেখা দেখি, একটা লাইক কমেন্ট করুন আজ আপনার ভাল কিছু একটা হবে, আরো কত রকম লেখা সেটা আর লিখে শেষ করা যাবেনা!! আর পেইজ,পেইজের তো অভাব নেই!!

শুধু আমাদের বাংলাদেশ নয়,সারা বিশ্বের বেশির ভাগ রাষ্টপ্রধানদের পেইজেরও অভাব নেই বর্তমানে ফেসবুকে!! আমেরিকার প্রেসিডেন্ট সম্মানিত মি:বারাক ওবামার নামেও পেইজ আছে!!আসলে ব্যাপারটা বোঝা বড় মুশকিল,বুঝে উঠাও দায়!! আসলেও কি  মি:বারাক ওবামার পেইজ?? নাকি এই মানুষটির নামে অন্য কেহ পেইজ তৈরী করে লাইক কমেন্ট রোজগার করছে!! প্রিয় পাঠক ভাই ও বোনেরা লক্ষ্য করুন, যদি এই পেইজ বা আইডি একজন সন্মানীত ব্যাক্তির হয়ে থাকে,তবে পেইজের পোষ্টে ভাল মন্তব্য পরে খুবই কম, আর খারাপ মন্তব্যের অভাব থাকেনা!! তখন এই সব খারাপ খারাপ মন্তব্যগুলি কি এই সন্মানীত ব্যাক্তির চোখে পরে না?

আমরা তো বুঝে বা না বুঝে ফেসবুকে লাইক দেওয়া বা কমেন্ট করার জন্য ব্যকুল হয়ে পরি, আর লাইকের জন্য তো মোট কথায় সন্যাসী!! এতেই বোঝা যায় যে, বর্তমানে ফেসবুক হলো দিল্লি কা লাড্ডু।

পরিশেষে সকল পাঠক ভাই ও বোনদের দৃষ্টি আকর্ষন করে বলছি যে, আমি কোন লেখক নই, আমার লেখায় অনেক ভুল ত্রুটি থাকতে পারে স্বাভাবিক। ভুল ত্রুটি ক্ষমা প্রার্থী!