ক্যাটেগরিঃ প্রশাসনিক

IMG_20160221_103439~2-2 নারায়ণগঞ্জ সিটি কর্পোরেশন ‘নগর ভবন’

একটা কাজে গিয়েছিলাম নারায়ণগঞ্জ শহরের নিতাইগঞ্জে, কাজটা ছিলো একটা কুরিয়ার সার্ভিসের। নারায়ণুগঞ্জে এই একটা কুরিয়ার সার্ভিস-ই আছে আর সেটা নিতাইগঞ্জে, নারায়ণগঞ্জ সিটি কর্পোরেশনের ‘নগর ভবন’ হতে একটু সামনে। এই কুরিয়ার সার্ভিসটিতে ভোরবেলা থেকেই শুরু হয় লোকজনের আনাগোনা, চলে পুরোদস্তুর লেনদেন। আমি বাসা থেকে বের হয়ে একটা পরচিত রিকশা নিয়ে রওনা দিয়েছিলাম সকাল ১০টায়, সেখানে যেতে-যেতে বেজে গেলো ১১:৩০ মিনিট। যাওয়ার সময় ভেবেছিলাম চাষাঢ়া আর দুই নং রেল গেইটের যানজট থেকে যদি শর্টকাটে মুক্ত হতে পারি, তহলে তাড়াতাড়ি করে নিতাইগঞ্জ যেতে পারবো। কাজ শেষে তড়িঘড়ি করে আবার ফিরবো নিজের গন্তব্যে। কিন্তু না, চাষাঢ়া আর দুই নং রেল গেইট পাড় হয়েছি ঠিকই, কিন্তু নগর ভবনের সামনে গিয়েই পরলাম যানজটের কবলে, সেই যানজটে বসে থাকলাম প্রায় ৩০ মিনিট। কুরিয়ার সার্ভিসটিতে যেতে হয় আমাদের নারায়ণগঞ্জের নগর মাতার নগর ভবনের সামনে দিয়েই, ‘নগর ভবন’ থেকে পঞ্চাশ গজ দূরেই কুরিয়ার সার্ভিস।

IMG_20160221_103425~2-1 নগর ভবনের সামনে দোয়েল চত্বর

নগর ভবনের সামনে গিয়েই তাজ্জব বনে গেলাম, এলোপাথাড়ি পড়ে থাকা ট্রাক-পিকাপ আর ঠেলাগাড়ি দেখে। শুনেছিলাম নগর ভবনের সামনে কোন ট্রাকস্ট্যান্ড নেই, তাহলে রাস্তার এপারে-ওপারে এগুলি কী? শুধুই দেখছি সারিবদ্ধভাবে থাকা ট্রাক আর ঠেলাগাড়ি। আমাদের নারায়ণগঞ্জের নগর ভবনটি ঢাকা সিটি কর্পোরেশনের নগর ভবনের মত এতো সুন্দর না হলেও সেই প্রাচীন আমলের তৈরি করা মোটামুটি শহর আন্দাজ মানান-সই আছে। নাগর ভবনের যতটুকু সুন্দর আছে, ত্তার পুরোটাই গ্রাস করে ফেলেছে নিতাইগঞ্জের ব্যবসায়ীদের মালামাল বহনকারী ছোট-বড় ট্রাকগুলোতে। এসব খালি-ভরা ট্রাকের জন্য নারায়ণগঞ্জের ঐতিহ্যবাহী নগর ভবনটি যেন অদৃশ্য হয়ে গেছে।

IMG_20170201_114616~2 নগর ভবনের সামনে রাস্তায় ট্রাক থেকে মালামাল নামানো হচ্ছে

দেশের বিভিন্ন জেলা থেকে বিভিন্ন রকম পণ্য নিয়ে ট্রাকগুলো আসে এই নারায়ণগঞ্জের নিতাইগঞ্জ। নিয়ে আসা সেই মালামাল রাস্তার মাঝখানে নগর ভবনের সামনেই, গাড়ি থামিয়ে লোড-আনলোড করতে শুরু করে সেখানকার লোড-আনলোড শ্রমিকরা। ওইসব ট্রাকের মালগুলো লোড-আনলোডের জন্য সৃষ্টি হয় যানজট, আবার ওইসব ট্রাক থেকে মালামাল ব্যবসায়ীদের প্রতিষ্ঠানে পৌঁছে দেওয়ার জন্য নিয়োজিত থাকে শত-শত ঠেলাগাড়ি। যদি দেশের অন্য কোনো জায়গা থেকে কেউ যদি এই নিতাইগঞ্জ আসে, তবে ওই লোককে মনে করতে হবে এটা এক ঠেলাগাড়ির রাজত্ব। এভাবে নগর ভবনের সামনেই, রাস্তার মাঝখানে সকাল থেকে সারারাত চলতে থাকে ট্রাক থেকে মালামাল ওঠা-নামার কাজ। দেখার কেউ নেই, বলারও কেউ নেই।

IMG_20170201_114549~2 যানজটের দৃশ্য

নগর ভবনের একটু সামনে আছে নারায়ণগঞ্জের প্রাচীনতম একটা হাসপাতাল, যার নাম ভিক্টোরিয়া হাসপাতাল। এই হাসপাতালে প্রসূতি মায়েদের জন্য খুবই ভালো চিকিৎসা করা হয়, তাই শহরে বসবাসকারী মা-বোনদের প্রসব ব্যথা ওঠার সাথে সাথে অনেকে নারায়ণগঞ্জ খাঁনপুর হাসপাতালে না নিয়ে ভালো চিকিৎসার জন্য এই ভিক্টোরিয়া হাসপাতালে নিয়ে আসে। কিন্তু সময়-সময় ওইসব মালামাল বহনকারী ট্রাকগুলোর জন্য সৃষ্টি হওয়া যানজটের কবলে পরে, রোগীকে কোলে-কাঁখে নিয়ে হাসপাতালে যেতে দেখা যায়।

এছাড়া নগর ভবনের সামনে আছে একটি ফায়ার সার্ভিস; কোথাও আগুন লাগার খবর পেয়ে যে সময় মতো ঘটনাস্থলে পৌঁছাবে, তা আর সম্ভব হয়ে ওঠেনা, শুধু পড়ে থাকা খালি ট্রাক আর ঠেলাগাড়ির জন্য।

IMG_20170201_112312~2 খালি ট্রাকে মালামাল ওঠানোর প্রস্তুতি

বহু আগে এই নগর ভবনের সামনেই অবৈধভাবে গড়ে উঠেছিল ট্রাকস্ট্যান্ড, আমাদের নগর মাতা সম্মানিতা ডা. সেলিনা হায়াৎ আইভী ২০০৩ সালে পৌরসভা চেয়ারম্যান নির্বাচিত হওয়ার পর, সেই ট্রাকস্ট্যান্ড ফতুল্লার পঞ্চবটিতে হস্তান্তর করে দেয়। বিশাল এলাকা জুড়ে সেই ট্রাকস্ট্যান্ড এখনো সেখানে আছে। কিন্তু সেখানেও ওইসব ট্রাক মালিকদের রাজত্ব, আবার দেশের স্বনামধন্য সিটি কর্পোরেশন নগর ভবনের সামনেও তাদের রাজত্ব। নগর ভবনের সামনে যত্রতত্র এলোপাথারিভাবে রাখা ট্রাকের জন্য আমাদের নারায়ণগঞ্জ সিটি কর্পোরেশনের নগর ভবনটি দেখাই যায় না, দেখা যায় শুধু ট্রাক আর ট্রাক।

খালি আর ভরা ট্রাকগুলো যেন সুন্দর নগর ভবনটাকে সৌন্দর্যহীন করে তুলেছে দিনের দিন। এসব কিছু নগর ভবনের কর্মকর্তা-কর্মচারীদের যেন চোখেই পড়ে না, তারা থাকে সবসময় নিশ্চুপ, আর দেখেও না দেখার ভান করে।