ক্যাটেগরিঃ জনজীবন

 

বেদে সম্প্রদায়, নৌকাতে যাদের জীবনযাপন, আর জীবিকা উপার্জন। এই বঙ্গদেশে বেদে সম্প্রদায়ের লোকেরা একসময় ঘুরে ঘুরে তাবিজ কবজ বিক্রি করে বেড়াতো। ওরা বাতের ব্যথা নিরাময় করার জন্য মানুষের হাত পা কেটে, সিঙ্গা লাগিয়ে রক্ত চুষে আনতো। মানুষ ওদের ওই পদ্ধতিতে বিশ্বাসী ছিল। কিছুকিছু মানুষ এখনো আছে, বেদেদের চিকিৎসায় বিশ্বাসী। কিন্তু বেদেদের চিকিৎসায় বিশ্বাসী আগের মতন এতো লোক আর নেই। তাই বেদেরাও বসে নেই। বেদে সম্প্রদায়ের লোকেরা অনুসরণ করছে অন্য পন্থা। তাঁরা এখন বেছে নিয়েছে অন্যরকমভাবে কামাই রোজগারে পথ।

তাদের মধ্যে কেউ কেউ ওইসব চিকিৎসা বাদ দিয়ে বহুরকম কাজ করেও দিনাতিপাত করছে। কেউ আবার বাপদাদার ঐতিহ্য ধরে রাখার চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছে। ওই বেদে সম্প্রদায়েরই দুইজন লোক গোদনাইল সিদ্ধিরগঞ্জ থানাধীন লক্ষ্মীনারায়ণ বাজার সংলগ্ন রসূলবাগ মহল্লায়, এই বাতের ব্যথা নিরাময়ে চুড়ি বিক্রি করতে এসেছে। তাদের একহাতে আছে হ্যান্ডমাইক। এরেক হাতে আছে তৈলের ড্রামের প্লাস্টিকের কালো চুড়ি আর ঝুনঝুনি। নেচে গেয়ে ঝুনঝুনি বাজিয়ে মাতিয়ে তুলছে পাড়া মহল্লা। বিক্রি করে বেড়াচ্ছে বাতের ব্যথা নিরাময়ের মহৌষধ চুড়ি। প্রতিটি ছোট চুড়ির মূল্য ১০ টাকা। বড় চুড়ির মূল্য ২০ টাকা।

ভিডিও ধারণ করা হয়েছে, নারায়ণগঞ্জ সিদ্ধিরগঞ্জ থানাধীন গোদনাইল লক্ষ্মীনারায়ণ বাজার সংলগ্ন রসূলবাগ মহল্লা থেকে।