ক্যাটেগরিঃ প্রশাসনিক, ফিচার পোস্ট আর্কাইভ

বেশিরভাগ ট্রান্সফরমার থাকে রাস্তার ধারে, বিদ্যুৎ খাম্বার সঙ্গে। এই ট্রান্সফরমারগুলো দুটি খাম্বার মাঝখানে দুটি লোহার পাতের উপর বসানো থাকে। ঝড়ে বা কোনকিছুর ধাক্কায় যাতে ট্রান্সফরমার না পড়ে যায়, সেজন্য লোহার পাতে নাট-বল্টুর সাহায্যে ট্রান্সফরমারগুলো খুব শক্তভাবে আটকানো থাকে।

সিদ্ধিরগঞ্জের ট্রান্সফর্মারটি রাস্তার মোড়ে ঠিক মাঝখানে দুটি খাম্বার উপর বসানো।

ট্রান্সফরমারটির নিচেই দুটি হোটেল, একটা হার্ডওয়ার দোকান, খেলনা এবং শরবতের দোকান। এর পাশেই ঐতিহ্যবাহী লক্ষ্মীনারায়ণ কটন মিলস উচ্চ বিদ্যালয়। বিদ্যালয়ের অপর পাশে আছে একটি হোটেল এবং একটি ঔষধের দোকান। একারণে এই মোড়টি খুবই ব্যস্ততম।

এই রাস্তা দিয়ে গার্মেন্টসের মালবাহী কন্টেইনারসহ পাটবাহী ট্রাক সবসময়ই যাতায়াত করে থাকে। মালবাহী ট্রাকগুলো আসাযাওয়ার সময় এই মোড়ের মধ্যে পড়ে যায় বিপাকে।

যেহেতু রাস্তাটি সরু, তাই  সাবধানতার পরও দেখা যায় দোকানের বৈদ্যুতিক সংযোগ তার ছিঁড়ে গেছে, নয়তো খাম্বায় ধাক্কা লেগে যায়।

এমন ঘটনা নিয়মিতই হচ্ছে এই রাস্তার মোড়ে।

এই মাসেরই ঘটনা; পাটের গোডাউন থেকে পাট বোঝাই একটা ট্রাক রাস্তার মোড় অতিক্রম করার সময় এই ট্রান্সফরমারটির খাম্বার সাথে ধাক্কা লাগে। এর ফলে ট্রান্সফরমার বসানো দুটি খাম্বার মধ্যে একটি খাম্বা অনেকখানি হেলে যায়।

ট্রাকের প্রচণ্ড আঘাতে খাম্বাটির সঙ্গে ট্রান্সফরমার আটকানোর  নাট-বল্টু সঙ্গে সঙ্গেই খুলে নিচে পড়ে যায়। এরপর থেকে এতো বড় ট্রান্সফরমারটি হেলে পড়া খাম্বার সাথেই কোনরকমভাবে লেগে আছে।

এলাকাবাসীর আশংকা যে কোনও সময় খাম্বা থেকে এই বিশালাকার বৈদ্যুতিক ট্রান্সফরমারটি ছিটকে নিচে পড়ে ঘটতে পারে অনাকাঙ্খিত দুর্ঘটনা।

ট্রান্সফরমাটি হেলে পড়ার পর একবার বিদ্যুৎ অফিসের লোক এসে দেখে গেলেও এখন পর্যন্ত তা মেরামত করা হয়নি।

দুর্ঘটনা এড়াতে দোকানদাররা  ট্রান্সফরমাটির নিচে বিপদসংকেত প্রদর্শন করে লাল নিশান গেড়ে রেখেছে।

এ বিষয়ে নারায়ণগঞ্জ সিটির ১০ নং ওয়ার্ডের দুইজন সন্মানিত কমিশনারকেও অবহিত করা হয়েছে।


বৈদ্যুতিক খাম্বার নিচে বিপদসংকেত প্রদর্শিত লাল নিশান লাগিয়েছে দোকানিরা যেন চলন্ত মালবাহী ট্রাক লাল নিশান দেখে সাবধানতার সঙ্গে মোড়টি অতিক্রম করে। 

এখন ট্রান্সফরমার নিচে থাকা দোকান মালিকদের সঙ্গে এলাকার সাধারণ মানুষের দাবি, অনতিবিলম্বে হেলে পড়া খাম্বাটি সোজা করে বৈদ্যুতিক ট্রান্সফরমাটি পুনঃস্থাপন করা হোক।