ক্যাটেগরিঃ স্বাধিকার চেতনা

ইনি সেই গোলাম আজম যিনি ১৯৭১ সালে পাকিস্তানী হানাদার বাহিনীর প্রতিটি অন্যায়, বেআইনি, অমানবিক ও নিষ্ঠুর কাজ প্রকাশ্য সমর্থন দিয়েছিলেন। যিনি মুক্তি যোদ্ধাদের দেশদ্রোহী বলে আখ্যা দিয়ে তাদের কে সমূলে ধংস করার আহব্বান জানিয়েছিলেন। যিনি আল-বদর বাহিনী গড়ে তুলে দেশের শ্রেষ্ট সন্তানদের হত্যা করার প্ররোচনা দিয়েছিলেন। বাংলাদেশ স্বাধীন হওয়ার তার অনুভূতি জানাতে গিয়ে মাসিক উর্দু ডাইজেষ্ট এর সম্পাদক আলতাফ হোসাইন কুরাইসি কে সে সময় গোলাম আজম বলেছিলেন “উপমহাদেশের ইতিহাসে এই প্রথম হিন্দু ও শিখ বাহিনীর নিকট প্রায় এক লাখ সদস্যের সশস্ত্র বাহিনী আত্মসমর্পণ করলো”। ইংরেজ আমলে ও মুজাহিদ বাহিনী হিন্দুদের নিকট আত্মসমর্পণ করেনি। তার শহীদ হয়েছে । গোলাম আযমের আর একটা দাবি ছিল মুক্তিযোদ্ধারাই পাকিস্তান সেনাবাহিনীকে হিংস্র হতে বাধ্য করেছিল। পাকিস্তানীদের পক্ষে তার সাফাই ছিল মুক্তিযোদ্ধারাই নির্বিচারে অবাঙ্গালীদের হত্যা করেছিল। তার আক্ষেপ মুক্তিযোদ্ধারা শান্তি কমিটির সাথে শত্রুতা না করলে জনগণের পর্যায়ে শান্তি কমিটি ও মুক্তিযোদ্ধাদের মধ্যে বিরোধ সৃষ্টি হতো না।

পুরো ১৯৭১ জুড়ে এই ধরনের সংবাদ প্রতিদিন ছাপা হতো জামায়াত এর মুখপত্র সংগ্রামে। এমনকি আত্মজীবনীতে গোলাম আজম লুকাননি নিজের মনোভব।