ক্যাটেগরিঃ চারপাশে

বাংলাদেশের সকল নাগরিকের নিজস্ব মতপ্রকাশের সাধীনতা আছে বলে আমি মনে করি। মাহি বি চৌধুরীর ও আছে, ফেসবুক এ মাহি বি চৌধুরীর নিজস্ব একটি গ্রুপ আছে যা blue band call নামে। যারা ফেসবুক এ নিয়মিত যাওয়া আসা করে তারা ইতিমধ্যে সবাই জেনে গেছে এই গ্রুপের নাম। blue band call এর প্রথম দিকে স্লোগান ছিল “নিরপেক্ষ একটি অরাজনৈতিক সংগঠন” হবে এই গ্রুপ। তাই রাতরাতি এই গ্রুপের সদস্য সংখ বাড়তে থাকে। কিন্তু সাম্প্রতিক কালে এই মাহি বি চৌধুরীর গ্রুপটা বাংলাদেশ বসন্ত টার্গেট নিয়ে অগ্রসর হতে থাকলো। প্রথম দিকে এই গ্রুপ এ অনেক ভাল ভাল ছেলে মেয়ে ছিল যারা ভিবিন্ন ইউনিভারসিটি,কলেজ এর ছাত্র-ছাত্রী, যারা রাজনীতিকে মোটেই ভালোবাসে না। কিন্তু এখন সেইসব ছেলে মেয়েদের মগজ দলাই করে শিবিরের কর্মী বাহিনী সাথে নিয়ে জামাতের আর্থিক সহযোগিতায়, দেশের বারোটা বাজাতে শুরু করেছে। মূলত মানবতা বিরোধী অপরাধের বিচার বাধা গ্রস্ত করতে এখন এই গ্রুপ তাদের কাজ করে যাচ্ছে। আমি স্তম্বিত মাহি বি চৌধুরীর মতো একটা মানুষ কী করে এই ভুল পথে পা বাড়ালো! এখন অনেকে বলতে পারেন এইখানে জামাত শিবিরের কোনও ছেলে মেয়ে ছিল না, আমি তাদের কে বলতে চাই আমি এই গ্রুপ এ নিয়মিত চ্যাট করতাম, আমি দেখেছি এইখানে কী ধরনের পোস্ট হতো। হা প্রথম দিকে এইখানে অনেক ভাল ভাল ছেলে-মেয়ে ছিল। কিন্তু রাতা রাতি শিবিরের উগ্গ্রপন্থী একটা টীম যারা আগে ফেসবুক কে বাংলাদেশ নামের গ্রুপ এ চ্যাট করতো তার সবাই এসে এই গ্রুপ এ চলে আসে এবং দেশ বিরুধি অপ প্রচার শুরু করে। আশ্চর্য হতাম মাহি বি চৌধুরীর মত মানুষ কী করে তাদের কে পসরয় দিত। যা হোক মাহি বি চৌধুরীর উদ্দেশ্য যে ভাল ছিল না এটা পরিস্কার, না হলে হটাত্‍ করে blue band call নামের একটি সংগঠন দিয়ে কেন রাজপথে নামতে হবে ?? সমঝোতার বাংলাদেশ চেয়ে। কিসের সমঝোতা কার সাথে সমঝোতা?? মাহি বি চৌধুরীর সাথে ? উনার কোনও চরিত্র আছে নাকি ? বিএনপির সময় মহাখালীতে পুলিশের লাঠি খেয়েছিল, তারপর মহাজোটে এল সুবিদা করতে পারেনি, এখন আবার খালেদা জিয়ার কাছে ফেরত যাওয়ার সুযোগ খুজতেছে, তার মত মানুষ কী করে নিজেকে নিরপেক্ষ বলে দাবি করে ??
উনি যা চাচ্ছেন তা কী উনার বাপের বিকল্প ধারা দিয়ে করতে পারতেন না? আর পারবেন কী করে উনাদের পার্টিতে মানুষের সংখা তো ৫০/৬০ জন হবে। আর একটা কথা মনে রাখা দরকার আওয়ামি লীগ কে এই দেশের মানুষ ভোট দিয়েছে ৫ বছরের জন্য(সবাই ভোট দেয়নি) এই সময় তাদেরকে ডিসট্রাব্ না করে ক্ষমতার শেষ দিন পর্যন্ত সবাই কে অপেক্ষা করতে হবে। পরের নির্বাচনে যদি মানুষ তাদেরকে ভোট না দেয় তাহলে তারা ক্ষমতায় আসবে না এটাই একটা সাভাবিক নিয়ম।
যা হোক বিএনপি জামাতের টাকা দিয়ে মাহি বি চৌধুরীর blue band কল্ল এর আজকের রবীন্দ্র সরোবরের প্রোগ্রামটি পুলিশ করতে দেয়নি, এটা তে দুক্খ পাওয়ার কিছু নেই। আপাতত মাহি বি চৌধুরীর ইসলামী জঙ্গি রাষ্ট্র প্রতিষ্ঠার নয়া ফর্মূলা! ভেঙে গেল ।