ক্যাটেগরিঃ নাগরিক সমস্যা

 

কিছু দিন আগেই লিখেছিলাম ঢাকা শহরে বাস চালক ও বাস মালিকদের দৌরাত্ম্য। যে সাধারন মানুষ তাদের কাছে জিম্মি প্রায়। আজকে এই ঘটনার আবার প্রমান মিলল। প্রান দিতে হল ঢাকা কমার্স কলেজের একজন মেধাবী শিক্ষার্থীকে। যার ফলে বিক্ষুব্ধ ছাত্ররা গাড়ি ভাংচুর ও অগ্নিসংযোগ করে।

খবর সূত্র: বিডিনিউজ

বরাবরের মতই পুলিশি বক্তব্য ও আসল ঘটনার মধ্যে মিল পাওয়া যাচ্ছেনা, পুলিশ বলেছে রাস্তা পার হতে গিয়ে দুর্ঘটনা ঘটেছে, প্রত্যক্ষদর্শীরা বলছে যে বাস থেকে নামানোর সময় ব্রেক না করেই নামাতে গিয়ে ঘটে এই দুর্ঘটনা।

মূল কথা হচ্ছে কেন?

প্রতি বছর ঢাকা শহরে সড়ক দুর্ঘটনার শিকার হচ্ছে বেশির ভাগ স্কুল, কলেজ কিংবা বিশ্ব-বিদ্যালয় গামী শিক্ষার্থীরাই। কদিন আগেও ফার্মগেটে এক দুর্ঘটনায় নটরডেম কলেজের এক শিক্ষার্থীর মৃত্যু হয়, আজ ঘটলো এই ঘটনা।

এর মূল কারন হচ্ছে ঢাকায় বাস চালকদের বেপরোয়া ভাবে বাস চালনা। এরা যাত্রী নামানোর সময় কোন দিনও ব্রেক করবে না, পারলে নামো নইলে মরো, এমন একটা ভাব। না নামতে চাইলে পারলে ধাক্কা দিয়ে নামিয়ে দেয়া হয়। ফলাফল এই দুর্ঘটনা।

আজকের ঘটনার সবচেয়ে দুঃখজনক ব্যাপার হল এই পর্যন্ত পুলিশ ঘাতক বাস চালককে গ্রেফতার করতে পারে নাই, বরং ভাংচুর করার অপরাধে কয়েকজন ছাত্রকে গ্রেফতার করেছে।
রাগে, দুঃখে, ঘৃণায় মন ভরে উঠছে।

আমরা সাধারণ ছাত্ররা এই সব সড়ক দুর্ঘটনার শিকার কি হয়েই যাব, সবসময়……??????