ক্যাটেগরিঃ আইন-শৃংখলা

আমাদের ব্লগ সাইট থেকে শুরু করে সর্বত্র আজ একটি প্রতিবাদ চলছে তা হল নারী নির্যাতনের নিকৃষ্টরূপ ধর্ষণ নামক মহাপাপী নাম।

আমরা চলতে ফিরতে অথবা চায়ের আড্ডায় প্রতিবাদ করে চলছি। এ ছাড়া আমাদের আর কিইবা করার আছে। আমরাত আর হরতাল দিতে পারনিা। লগি বৈঠা দিয়ে মানুষ মারতে পারিনা।

আমাদের আন্দোলন মাঠে, স্কুলে, কলেজে, কাগজে, ব্লগে। কিন্তু হতবাক হই যখন রাষ্ট্রযন্ত্র একেবারে নীরব থাকল। কেন আমরা তাদের ভোট দেই? এই প্রশ্ন আজ শুধু মনে নয়, আমাদের বিবেকের মাঝে এই প্রশ্নের মিছিল বয়ে যাচ্ছে উত্তাল যমুনার ঢেউয়ের মত।

যাদের হাতে আমরা আমাদের সংবিধান তুলে দিলাম, তারা কি আমাদের সংবিধান রক্ষা করতে পারছে? নাকি তারা আমাদের মহান পবিত্র সংবিধানকে টয়লেট টিস্যুও মনে করেনা?(স্যরি শব্দটা ব্যবহার করার জন্য)

যদি তারা আমাদের সংবিধানকে পবিত্র মনে করত তাহলে কেন আমাদের মেয়েরা ধর্ষনের শিকার হয় আর উনারা বসে বসে এসির বাতাস পোষেন।

তাও আমাদের মনে ক্ষেদ নেই। আমার আমাদের দেশের জন্মদাতাকে হারিয়েছি। হারিয়েছি অনেক বীর সেনানী। যারা আমাদের দেশকে স্বাধীন করেছিল মান সম্মান নিয়ে বেচে থাকার জন্য।

আজ যারা ক্ষমতায় আছে তারা আমাদের দেশের সংবিধান রক্ষা নয় বরং যেন তাদের ব্যাক্তি স্বার্থ রক্ষা করতে মরিয়া। হোক বিরোধী দল বা সরকারী সবার চরিত্র টান বাজারের পতিতার মত।

যেখানেই তাদরে স্বার্থ সেখানেই তারা শুয়ে পড়ে। অথচ আজ জাতি হতভাগার মত দিক বিদিক ছুটছে একটু শান্তির আশায়। বোন খুজছে তার ইজ্জত রক্ষার খাতিরে, মা ছুটছে তার মেয়ের সম্ভ্রম হারানোর বিচার চেয়ে, ভাই ছুটছে তার বোনের সম্ভ্রম রক্ষার জন্য।

অথচ আমাদের স্বরাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী ছুটছেন ধর্ষকের মামলা প্রত্যাহার করার জন্য। লিংকটা দিয়ে দিলাম Click This Link

তাহলে কি আমরা কোন দেশ নয় জঙ্গলে বাস করছি? আজ যদি মন্ত্রীর মেয়ে ধর্ষিত হত? তবে কি সে পারত এই ক্ষোভ বুকে পেতে রাখতে? সৃষ্টি কর্তার মহান ক্ষমতার কথা হয়তা ক্ষমতার মোহে ভুলে গেছ মনে রেখ একদিন এই সৃষ্টি কর্তা তোমার মেয়েকে ধর্ষিতের সারিতে যেখে তোমাকে এর চাইতে কঠিন সাজা দেবেন এই ভেবে আমরা আতঙ্কিত।

তার মেয়েও আমাদের বোন। তার ইজ্জত রক্ষা করা সাধারণ মানুষ হিসেবে আমাদের কর্তব্য। আমরা আমাদের কর্তব্য অবশ্যই পালন করব।

কিন্তু জাতির কাছে আজ একটি বিচার দিয়ে শেষ করব। আসুন আমরা এদের প্রতিরোধ করি। আমাদের বোনদের হেফাজত করি।