ক্যাটেগরিঃ মুক্তমঞ্চ

 

আমাদের সমাজে আমাদের প্রতিবেশী দেশ থেকে পরকীয়া নামের এক ভাইরাস এর আগমন ঘটেছে। যা আমাদের জন্য সুখময় নয়। অহরহ বিকল হচ্ছে সুখের সংসার এই পরকীয়া নামক ভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে। আর এই পরকীয়ার কারণে সবচেয়ে ক্ষতিগ্রস্ত হচ্ছে আমাদের আগামীর ভবিষ্যৎ, আমাদের স্বপ্ন, আমাদের কোমলমতি শিশুরা। এই পরকীয়ার কারণেই আপন গর্ভধারিণী মা খুন করছেন তার প্রাণের চেয়ে প্রিয় বাচ্চাটিকে। যা বর্তমান সময়ে গণমাধ্যমের সবচেয়ে আলোচিত সংবাদ।

জাতীয় সংবাদের কাগজে প্রতিদিন একটা না একটা পরকীয়া সংবাদ এখন খুব স্বাভাবিক হয়ে উঠছে। এই পরকীয়া নামক ভাইরাস দিন দিন প্রতিবেশী দেশের মতো আমাদের সমাজেও মহামারী আকার ধারণ করছে। এর থেকে পরিত্রাণের উপায় আমাদের খুব তারাতারি খুঁজে বের করতে হবে। পরিত্রাণের উপায় খুঁজে বেড় করতে আমাদের যতো বেশী দেরি হবে আমরা ততো বেশী ক্ষতিগ্রস্ত হবো পরকীয়া নামক ভাইরাসের আক্রমনে।

দিন দিন যে হারে এই পরকীয়া নামক ভাইরাস আমাদের সমাজে বিস্তার ঘটছে, এভাবে চলতে থাকলে খুব বেশী দিন না, মাত্র কয়েক বৎসরে ধ্বংস করে দেবে আমাদের হাজার বছরের পুরনো আমাদের অহংকারের সামাজিক ব্যবস্থাকে। পরিবর্তন করে দেবে আমাদের ইতিহাস, ঐতিহ্য ও কৃষ্টিকে। একটা জাতিকে ধ্বংস করতে হলে আগে তার ইতিহাস, ঐতিহ্য ও কৃষ্টিকে ধ্বংস করে দিতে হয়। যে জাতীর ইতিহাস, ঐতিহ্য ও কৃষ্টি ধ্বংস সে জাতিই ধ্বংস।

poro

এই ধ্বংসের হাত থেকে বাঁচার উপায় আমাদের এখনই খুঁজে বের করা জরুরী হয়ে পড়েছে। আর অপেক্ষার সময় নেই যে, এই বলে দেখি আর কয় দিন, কি হয়? এই পরকীয়া নামক ভাইরাসের বিরুদ্ধে এখুনি আমাদের যুদ্ধ ঘোষণা করা উচিত।

যারা সর্বদা সামজিক দায়বদ্ধতা নিয়ে সমাজে, বিভিন্ন গণমাধ্যমে, এনজিও এবং কি রাষ্টের উচ্চতর আসনে বসে কাজ করে যাচ্ছেন আমি ব্যক্তিগতভাবে মনে করি উনাদের উপর এই পরকীয়া নামক ভাইরাসের দায়ভার বেশি। উনারাই এই পরকীয়া নামক ভাইরাস থেকে মুক্তির সহজ উপায় খুঁজে বের করতে পারবেন। কারণ উনারা সমাজের হয়েই সর্বদা সমাজ বদলের জন্য কাজ করে যাচ্ছেন বিরামহীন ভাবে। উনারাই সমাজকে খুব ভালোভাবে জানেন ও বুঝেন। তাই উনাদের কাছে পরকীয়া নামক ভাইরাসের প্রতিষেধক বের করা সহজ বলে আমার মনে হয়।

শুধু যে উনারা এর দায় নিয়ে কাজ করবেন তা কিন্তু নয়। আমাদেরকেও সচেতন হতে হবে। আমাদেরও পরকীয়া থেকে দূরে থাকতে হবে। আপন সংসারের মাঝে সুখ খুঁজে নিতে হবে। আমাদেরও আমাদের সন্তানের ভবিষ্যৎ গড়া নিয়ে কাজ করতে হবে। আমাদের সর্বদা মনে রাখতে হবে পরকীয়া সুখ দেয়না বরং কেরে নেয়।