ক্যাটেগরিঃ আইন-শৃংখলা

dddddd
তনুর ধর্ষণ ও হত্যা আমাকে যে শুধু ব্যতিত করেছে তা কিন্তু নয় । করেছে আমাকে প্রতিবাদীও । এই প্রতিবাদের পিছনে আমারো স্বার্থ আছে । কারন আমারো একটা লক্ষি আদরের ছোট বোন আছে । আমি আমার বোনের নিরাপত্তা নিয়ে চিন্তিত । আমার মা বাবাও আমার বোনটির নিরাপত্তা নিয়ে চিন্তিত । আমার সদ্য এসএসসি পরিক্ষা দেওয়া বোনটি কম্পিউটার ট্রেনিং-এ ভর্তি হয়েছে । আমার পরিবারের সবাই জীবনের তাগিদে ব্যস্ত । তাই আমার বোনকে একা একা যেতে হবে কম্পিউটার ক্লাসে । আমার পাড়ার বা মহল্লার কেউ তার সাথে কম্পিউটার ট্রেনিং-এ ভর্তি হয়নি । আমার এই বোনটির নিরাপত্বা এখন কে দেবে ? আইন শৃঙ্খলা বাহীনি, সরকার নাকী আমাদের সমাজ ? জানী কেউ এই নিরাপত্তার দায় নেবেনা ।
তবে কি এই নিরাপত্তার ভয়ে আমার বোনকে উচ্চ শিক্ষায় শিক্ষিত করার স্বপ্নের বিসর্জন দিতে হবে আমাদেরকে । তবে কি এই নিরাপত্তার ভয়ে আমার বোনটিকে বাল্য বিবাহ দিয়ে দিতে আমাদেরকে বাধ্য হতে হবে ।

ঠিক এই রকম নিরাপত্তাহীনতায় ভুগছেন হাজার হাজার মা বাবা তার মেয়েকে নিয়ে । হাজার হাজার ভাই ভুগছেন তার প্রিয় বোনের নিরাপত্তা নিয়ে ।
কে দেবে আমাদের এই বোনদের নিরাপত্তা ?
যে দেশের সবচেয়ে নিরাপত্তা বেষ্টনীতে ডাকা ক্যান্টনমেন্ট এ তনুর নিরাপত্তা কেউ দেয়নি বা দিতে পারেনি সে দেশে কি ভাবে পথে ঘাটে, পাড়া মহল্লায়, অলিগলি মেইন রোড, স্কুল কলেজ, বিশ্ববিদ্যালয়ে আমাদের বোনরা নিরাপত্তা পাবে ?

এই তনুর ধর্ষণ ও হত্যা আমাদের সমাজে বিরাট একটা প্রভাব ফেলবে । এই তনুর ধর্ষণ ও হত্যার ভয়ে আমাদের বাবা মা আমাদের বোনদের হয়তো আর সুশিক্ষায় শিক্ষিত করার স্বপ্ন দেখবেন না । আর স্বপ্ন দেখবেন না আদরের মেয়েটি একদিন ডাক্তার ইঞ্জিনিয়ার উকিল ব্যারিস্টার হবে । কারন স্বপ্নের মাঝেই দুঃস্বপ্নের বসবাস । স্বপ্নের চেয়ে মেয়ের ইজ্জত সম্মান এবং জীবন সব বাবা মায়ের কাছেই দামী । তাই হয়তো আমাদের বাবা মারা আমাদের বোনদেরকে শিক্ষা থেকে বঞ্চিত করে বাল্য বিবাহ দিতে বাধ্য হবেন । কারন বিবাহিত মেয়েরা যতোটা ঝুঁকিপূর্ণ অবিবাহিতা মেয়েরা ততটা ঝুঁকিপূর্ণ নয় ।

কিন্তু আমি চাইনা আমার বোনরা মূর্খ থেকে যাক । আমি চাইনা আমার বোনরা শিক্ষা থেকে বঞ্চিত হোক । আমি চাইনা আমার বোনরা শিক্ষার আলোয় প্রবেশ না করে আলেয়ার মাঝে থেকে যাক । আমি চাইনা আমার বোনদের বাল্য বিবাহ হয়ে অকালেই প্রাণ হারাক ।

শুধু পুরুষের দ্বারা যদি এদেশ স্বাধীন না হতে পারে তবে শুধু পুরুষ কি ভাবে এই স্বাধীনতা ধরে রাখবে ?
শুধু পুরুষ যদি এদেশ স্বাধীন না করতে পারে তবে কেন একাই পুরুষেরা স্বাধীনতার স্বাদ ভুগ করবে ?
আমাদের এই স্বাধীনতা অর্জনে পুরুষের চেয়ে নারীর অবধান কোন অংশেই কম নয় ।
তবে কেন স্বাধীনতা ভুগের অংশে নারীরা কম ? কেন নারীরা স্বাধীনতা ভুগে পিছিয়ে ?
তবে কেন শুধু পুরুষের এদেশে পথে ঘাটে, পাড়া মহল্লায়, অলিগলি মেইন রোড, স্কুল কলেজ, বিশ্ববিদ্যালয়ে, কর্মস্থানে নিরাপদ, কেন নারীদের নয় ?

যে দেশে নারী প্রধানমন্ত্রী , নারী স্পীকার , প্রধান বিরোধী দলিয় নেত্রী ও নারী সে দেশে কেন নারীরা নিরাপত্তাহীনতায় ভুগছেন ?
বিষয়টা আমার মতো নগণ্যের কাছেই হাস্যকর মনে হচ্ছে।

আমি চাইনা আমার আর কোন বোন তনুর মতো ধর্ষিতা হোক । আমি চাইনা আমার আর কোন বোন তনুকে ধর্ষণের পরে নির্মম ভাবে হত্যা করা হোক ।
তাই চিৎকার করে তনু হত্যার বিচার চাইছি । তাই অশ্রু সিক্ত নয়নে তনু হত্যার বিচার চাইছি।

তনুর সঠিক ধর্ষণ ও হত্যাকারীদের খুজে বের করে এমন কোন শাস্তি দেওয়া হোক যেন আর কোন কুপুরুষ তনুদের দিকে কু নজরে তাকালে হৃদপিণ্ড কেপে উঠে । এমন শাস্তি দেওয়া হোক যেন শাস্তির ভয়ে আর কোন মায়ের পেটে কু-সন্তান এর জন্ম না হয় । এমন কোন শাস্তি দেওয়া হোক যেন আর কোন তনুকে ধর্ষিতা না হতে হয় । এমন শাস্তি দেওয়া হোক যেন আর কোন তনুকে ধর্ষণের পর হত্যা করার দুঃসাহস কারো না হয় । এমন কোন শাস্তি দেওয়া হোক যেন আমার আদরের বোনটি পূর্ণ নিরাপত্তা পায় । এমন কোন শাস্তি দেওয়া হোক যাতে আর কোন বাবা মা মেয়ের নিরাপত্তার ভয়ে পড়া লেখা থেকে বঞ্চিত করে বাল্য বিবাহ দিয়ে দিতে বাধ্য না হোন । এমন কোন শাস্তি দেওয়া হোক যেন নারী জাতীও পুরুষের মতো স্বাধীনতার স্বাদ ভুগ করতে পারে ।
জানী সবার প্রশ্ন একটাই কি এমন শাস্তি দেওয়া যায় ।
আমাকে কেউ এমন প্রশ্ন করলে আমার উত্তর একটাই ধর্ষণ এর শাস্তি ধর্ষণকারীর যৌনাঙ্গ কেটে ফেলা হোক ।