ক্যাটেগরিঃ প্রশাসনিক

 

সিলেট শহরের প্রাণকেন্দ্র কোর্ট পয়েন্টে সদ্য নির্মিত ফুটওভার ব্রিজটি নির্মাণে কোটি টাকার উপরে ব্যয় হয়েছে। তার একটু সামনে সুরমা মার্কেট পয়েন্টে চলছে কোটি টাকা উপরে ব্যয়ে আরেকটি ফুটওভার ব্রিজের নির্মাণ কাজ। বর্তমান সরকারের প্রায় তিন কোটি টাকা ব্যয়ের এই দুটি উন্নয়ন সত্যি চোখের পড়ার মতো কাজ। কিন্তু এক বিন্দুও নগরবাসীর জন্য উপকারের কাজ নয়। নিঃসন্ধেহে এই দুটি ফুটওভার ব্রিজ লোক দেখানো আর কমিশন কামানোর কাজ।

ovarbrige

কোর্ট পয়েন্টের ফুটওভার ব্রিজ দিয়ে সারা দিনে একজন পথচারীও রাস্তার এপার থেকে অপারে পারাপার হননা। রিক্সা সিএনজি প্রাইভেট কার চলাচলের এই রাস্থায় ফুটওভার ব্রিজ দিয়ে পথচারীর পারাপারের কোন প্রয়োজনই পরেনা। কারন এখানে রাস্থা পারাপার মোটেও ঝুঁকিপূর্ণ না। কারন এই রাস্থা দিয়ে কোন প্রকার ভাড়ি যানবাহন চলাচল করেনা।

কোর্ট পয়েন্টের নির্মিত ফুটওভার ব্রিজটি নগরবাসীর কোন সুবিদা বা উপকারে আসেনি। বরঞ্চ নতুন ক্ষতির ও অসুবিদার কারন হয়ে দাড়িয়েছে। ফুটওভার ব্রিজের নিচে বিভিন্ন জিনিসের পসরা সাজিয়ে দখল হয়ে আছে ফুটপাথ। যাতে পথচারীর চলাচলের বিগ্ন গঠছে। ফুটওভার ব্রিজের চারপাশে শোভা পাচ্ছে রাজনৈতিক দলের ছোট বড় বিভিন্ন ব্যানার ফেস্টুন। মাঝে মাঝে ব্যানারের এক মাথার বাধ খুলে ঝুলে থাকে রাস্তার উপর। এতে সিলেট শহরের সুন্দর্য বিনষ্ট হচ্ছে।

সিলেট শহরের কোথাও কোন ফুটওভার ব্রিজ নির্মাণের প্রয়োজন এখনো পরেনি। এমনকি নগরবাসীর পক্ষ থেকে এ ধরনের কোন দাবীও উঠেনি। তবে কেন এই অহেতুক ফুটওভার ব্রিজ গুলি নির্মাণ করা হয়েছে এবং হচ্ছে? কার স্বার্থে এই ফুটওভার ব্রিজ নির্মাণ করা হয়েছে? কেন সরকারের টাকা এভাবে অহেতুক জেনতেন ভাবে অপব্যায় করা হচ্ছে। নিশ্চয়ই এর কোন প্রকাশ্য উত্তর কারো কাছে নেই, যদিও গুপন উত্তর থাকতে পারে অনেকের কাছেই।