ক্যাটেগরিঃ চিন্তা-দর্শন

 

বাংলাদেশিরা বিদেশ পাগল । আমরা বাংলাদেশিরা বিদেশের নাম শুনলেই পাগল হয়ে যাই । সেই দেশ সম্পর্কে শুনতে ,জানতে আর যাওয়ার সুযোগ হলে তো কথাই নেই । এই রকম মনবৃত্তি কম বেশি সব দেশের মানুষেরই আছে । কিন্তু বাংলাদেশিদের বিষয়টা একটু আলাদা । আমাদের অর্থনীতির বিরাট অংশ বিদেশ থেকে আসা  রেমিটেন্স এর উপর নির্ভরশীল । নিজ দেশে একজন বাংলাদেশি চাকুরি কিংবা ব্যবসা করতে গিয়ে অনেকই নান রকম বাধা বিপত্তির সম্মুখীন হওয়ায় বিদেশে যেতে বাধ্য হয় । এটা তো অস্বীকার করার কোন পথ নেই যে আমাদের দেশে কাজের প্রতি মানুষের সম্মানবোধ এবং পরিবেশ নেই । তাই জীবনের ঝুঁকি নিয়ে মানুষ বিদেশে পাড়ি জমায় । একটু শান্তির প্রত্যাশা সব মানুষের মনের মধ্যে থাকে । বাংলাদেশে রাজনীতি এবং ধর্মনীতি নিয়ে বিস্তর প্রাধান্য  মানুষের জীবনে বেঁচে থাকার লড়াইয়ে কিছুটা হলেও প্রতিবন্ধকতা তৈরি করে । পৃথিবীর অনেক দেশ শুধু লোকবলের অভাবে তাদের অর্থনীতি সচল রাখতে পারেনা । আমাদের দেশে যে পরিমান লোকসংখ্যা আছে । যদি এই লোকবল কে মানব সম্পদে পরিনত করা যেত বাংলাদেশ বিশ্ব মানচিত্রে একটি সুন্দর জায়গা দখল করে নিত । বছরের বেশির ভাগ সময় রাজনৈতিক অস্থিরতা এবং ধর্ম নিয়ে দ্বন্দ্ব নানা রকম সামাজিক সমস্যা আমাদের অর্থনীতিকে স্থবির করে রাখে । পৃথিবীর সকল দেশেই কিছু না কিছু সমস্যা আছে । পৃথিবীর অনেক উন্নত জাতির অসভ্যতা এবং অমানবিকতা থেকে বাংলাদেশিদের মানবিকতা ,সৌন্দর্যবোধ এবং সভ্যতাবোধ উন্নত  । কিন্তু আমাদের দেশের জনসংখ্যার একটা বিশেষ অংশ অত্যন্ত দরিদ্র ,নিরক্ষর এবং অসচেতন ।

তথ্য প্রযুক্তির এই যুগেও সেই অংশটা অসচেতন । আমাদের দেশের আনন্দ বিনোদনের জায়গাগুলো জ্ঞানহীন । যেখানে মানুষের জীবন নিয়ে সচেতনতামূলক বিষয় গুলো এড়িয়ে যাওয়া হয় ।  ধর্মীয়মূল্যবোধ এবং জীবনবোধ এর সুন্দর দিক গুলো তুলে ধরা হয়না । দেশে কাজের পরিবেশ এবং কাজের প্রতি সম্মানবোধ তৈরি করতে পারলে কোন একটা বাংলাদেশিও বিদেশে জীবিকার জন্য যেতেন না ।নিম্ন বিত্ত এবং মধ্যবিত্ত শ্রেণী কে টার্গেট করে যদি বিশাল কাজের ক্ষেত্র তৈরি করা হতো তাহলে অর্থনীতি অনেক এগিয়ে যেত । এখনও আমাদের দেশের প্রাকৃতিক সম্পদ গুলো গবেষণার অভাবে কাজে লাগানো যাচ্ছে না । বাজারজাত করনের ও অনেক অভাব । এখন ও আমাদের দেশে অনেক কর্মক্ষম অনুৎপাদনশীল লোক । এই অনুৎপাদনশীল জনসংখ্যা কে কর্মক্ষম করতে পারলে বাংলাদেশের পরিস্থিতি অনেক উন্নত হতো । আমাদের দেশে একটি সাধারন কাজ কে সম্মানের সাথে দেখা হয়না । কিন্তু বিদেশে সেই সাধারন কাজটা করে বেশি আয় করতে পারে । কখনও কখনও সে আয় দ্বিগুণ কিংবা তিনগুন । যে কারনে মানুষ বিদেশে যেতে বাধ্য হয় । প্রচুর  পরিমান প্রাকৃতিক সম্পদ এবং লোকবল আমাদের দেশে আছে । শুধু নেই উপজুক্ত কর্মপরিকল্পনা এবং পরিবেশ । বিভিন্ন প্রতিবন্ধকতা মানুষের উৎপাদনশীলতা কে বিনষ্ট করে । মিশ্র একটি সমাজ ব্যবস্থা শাসন যে কোন সরকারের পক্ষেই কঠিন । বাংলাদেশ অনেক গুলো ধর্মীয় বিশ্বাস এবং শাসন চিন্তার মানুষ বসবাস করে । সেখানে শান্তিপূর্ণ ভাবে সহবস্থান করতে হলে আইনের কঠিন প্রয়োগ এবং সামাজিক মূল্যবোধ গুলোর চর্চা অত্যাবশ্যক ।অর্থনীতিক উন্নয়নে মানুষের সচেতনতা এবং দেশপ্রেম কে জাগ্রত করতে হবে । এমন একটা দেশ তৈরি হবে যেদিন বাংলাদেশে একটি মানুষ ও অর্থনৈতিক দিক দিয়ে অন্য মানুষের উপর নির্ভর করবে না । যখন প্রতিটা নাগরিক নিজের জীবিকা নিয়ে সচেতন এবং নিজের শিক্ষা সম্পর্কে সম্মানবোধ রাখতে পারবে তখন দেশ স্বাভাবিক নিয়মে এগিয়ে যাবে ।আসুন আমরা সবাই নিজ দেশের সম্পদ কে ভালবাসি । কাজ কে সম্মান করি । নিজেদের উন্নত করি । বিশ্ব মানচিত্রে সুন্দর বাংলাদেশ নির্মাণ করি ।