ক্যাটেগরিঃ ক্যাম্পাস

 

গত ৩রা মার্চ, ২০১৬ মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের বিল এন্ড মেলিন্ডা গেটস ফাউন্ডেশন এ্যাওয়ার্ড এর জন্য বাংলাদেশের বিজ্ঞানী ডঃ মোহাম্মাদ নজরুল ইসলাম ভূঁইয়া কে মনোনীত করা হয় । আগামি ১৬ জুন ,২০১৬ তিনি মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের বোস্টনে আয়োজিত কনফারেন্স এ যোগ দিবেন এবং সতের বার স্বীকৃত বিশ্বের সেরা ধনী বিল গেটস এবং মেলিন্ডা গেটস থেকে তার এ্যাওয়ার্ড গ্রহন করবেন । এই এ্যাওয়ার্ডটি তিনি জাপান এর হোক্কাইডো বিশ্ববিদ্যালয়ে তার পিএইচডি ডিগ্রীর দীর্ঘ গবেষণায় দুটো মৌলিক কেমিক্যাল আবিষ্কার করার জন্য প্রাপ্ত হন ।তিনিই পৃথিবীর প্রথম বিজ্ঞানী যে একই কেমিক্যাল এর Bidirectional Function আবিষ্কার করেন । তার আগে আরও কয়েকজন এই কেমিক্যাল আবিষ্কারে ব্যর্থ হন। তিনি একমাত্র সৌভাগ্যবান বাংলাদেশি দীর্ঘ গবেষণা কার্যকর্মে সফলতা এনে দিয়ে বাংলাদেশের মুখ উজ্জ্বল করেন ।এই সফলতার স্বীকৃতি স্বরূপ এর আগে তিনি গত ১৪ ডিসেম্বর , ২০১৫ সালে আমেরিকান কেমিক্যাল সোসাইটি, হনলুলু, হাউয়াই থেকে আরলি ক্যারিয়ার কেমিস্ট হিসেবে সেরা এ্যাওয়ার্ড অর্জন করেন ।

গুরুত্বপূর্ণ এই এ্যাওয়ার্ডটি কেবল যারা চল্লিশ বছর বয়সের নিচে তাদের সেরা আবিষ্কারের জন্য দেওয়া হয়।এই ক্ষেত্রে দুটো পুরষ্কার এর স্বীকৃতি পেতে অনেক গবেষককে অনেক বছর অপেক্ষা করতে হয় । তিনি অনেক অল্প বয়সে নিজের কর্ম দক্ষতায় বাংলাদেশের জন্য সুনাম বয়ে এনেছেন । তাঁর পঞ্চাশটির বেশি আন্তর্জাতিক জার্নাল প্রকাশিত হয়েছে । গত বছর সাইটেসন বিচারে তিনি গুগল স্কলারে নিজের জায়গা করে নেন ।উল্লেখ্য তরুন এই বিজ্ঞানী মুলত কেমিক্যাল বায়োলজিস্ট । তার এই আবিষ্কার কেমিক্যাল জগতে এক নতুন অধ্যায় ।যা কেমিস্ট্রি এবং বায়োলজি দুই ক্ষেত্রেই অবদান রেখেছে ।

গবেষণায় নিবেদিত এই বিজ্ঞানী বর্তমানে ডায়বেটিকস , Natural Products , Flavour , Fragrance, Aromatheraphy , Aromamedicine এর উপর নতুন গবেষণা করছেন । তার লেখা বই “AROMATIC PLANTS OF BANGLADESH AND THEIR ESSENTIAL OIL CONSTITUENTS”  গবেষক , শিক্ষক এবং ছাত্র ছাত্রীদের কাছে ব্যাপক জনপ্রিয়তা অর্জন করেছে । বর্তমানে এই বইটি বাংলাদেশ বিজ্ঞান ও শিল্প গবেষণাগার ,চট্টগ্রাম এর লাইব্রেরীতে পাওয়া যাচ্ছে । শুধু তাই নয় কঠিন পরিশ্রম এবং সাধনায় তিনি সমৃদ্ধশালী বাংলাদেশের অনেক গুরুত্বপূর্ণ ওষুধী গাছ , ওষুধ এবং নানা রকম গুনাগুণ কে তুলে ধরেছেন । যা পরবর্তী প্রজন্মের গবেষণায় অগ্রণী ভূমিকা পালন করবে । তিনি ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় থেকে উদ্ভিদ বিজ্ঞানে মাস্টার্স করেন । তারপর জাপান সরকারের মনগাকুবুসো বৃত্তি নিয়ে হোক্কাইডো বিশ্ববিদ্যালয় থেকে কেমিক্যাল বায়োলজির উপর পুনরায় মাস্টার্স এবং পি এইচ ডি ডিগ্রী অর্জন করেন । গবেষনা চলাকালীন সময়ে তিনি Sustainable Science এর উপর আরও পাঁচটি বিষয়ে ডিপ্লোমা অর্জন করেন । তিনি আমেরিকা ,কানাডা ,জার্মানী ,সুইজারল্যান্ড , মালয়েশিয়া্‌ , ইন্ডিয়া সহ এবং জাপানের অনেক গুরুত্বপূর্ণ জায়গায় কনফারেন্স এ যোগদান করেন এবং তার গবেষণা কার্যকর্ম কে তুলে ধরেন । তিনি আমেরিকা ,জাপান ,কানাডার মাইক্রোবায়োলজি্‌ কেমিক্যাল সোসাইটির সদস্য সহ বিশ্বের অনেক গুরুত্বপূর্ণ সোসাইটির সদস্য । তিনি শিক্ষক এবং মুক্তিযোদ্ধা মোহাম্মাদ তাফাজ্জাল হোসেন ভূঁইয়ার এবং মিসেস মমতাজ বেগম এর বড় ছেলে । তিনি ভবিষ্যতে গবেষণার ক্ষেত্রে বাংলাদেশের জন্য আরও সমৃদ্ধি ও সাফল্য বয়ে আনুক । তাঁর জন্য অনেক শুভ কামনা রইলো ।

ছবি ক্যাপশন বাম থেকে ডানে ………

১. ( ছবি ; কানাডার মাইক্রোবায়োলোজি সোসাইটির ওয়েব পেজ থেকে )

২. (ছবি;  পি এইচ ডি ডিগ্রীর সার্টিফিকেট গ্রহনের মুহূর্ত )

৩.ছবি ; আর্লি ক্যারিয়ার কেমিস্ট পুরষ্কার গ্রহণ ,২০১৫)

৪.( ছবি ; জাপানের পত্রিকার সৌজেন্য সাথে সহকর্মী জাপানি প্রফেসর মিটচা হাশী )

৫  (.ছবি; পি এইচ ডি ডিগ্রীর গবেষণার উপস্থাপনার মুহূর্ত )

৬..(ছবি ; পি এইচ ডি ডিগ্রী অর্জনের পর বন্ধুদের সাথে আনন্দঘন মুহূর্ত )

৭..( ছবি ; তার লেখা বই )

৮. (ছবি গবেষণার কাজে প্রকৃতি পর্যবেক্ষণ )

৯.(ছবি ; মালয়েশিয়ায় গবেষণাকর্ম উপস্থাপনের মুহূর্ত ,২০০৮)

 

p712011358_10204805232665831_1474244867325352144_n12376578_10208496965767589_2154043185282423625_n1900076_10203464254832961_1846855145_n11139346_10207656458435431_4830863745216233448_n11826051_10207594642890081_6950299553820993146_n11846558_10207594641210039_1700952699577826404_n316765_2457305997942_825685923_n1380845_10202167570896673_614869680_n224006_1048632941996_7134_n