ক্যাটেগরিঃ প্রশাসনিক

IMG_20160406_114836IMG_20160406_114836

অনলাইনে ভোটার আইডি সংশোধন  এবং হালনাগাদ  করা নিয়ে সোশ্যাল মিডিয়াতে অনেক লিংক অনেকেই  শেয়ার  করছেন। আমার ভোটার আইডিটি ২০০৮ সালে করা হয়।  আমার আইডিতে আমার এবং বাবার নামের বানানে ভুল থাকায় আমি সায়েন্স ল্যাব ভোটার আইডি সংশোধন ক্যাম্পে আর্মিদের কাছ থেকে সংশোধন করে নেই। তখন আমি ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্রী  ছিলাম। সেই সময় আমার ঠিকানা ছিল বিশ্ববিদ্যালয়ের।

এরপর আমার বিয়ে হয়। নিজের ব্যক্তিগত  তথ্য অনেক কিছুই পরিবর্তন হয়। এর মধ্যে অনেক বছর দেশের বাইরে ছিলাম। এখন আমার ভোটার আইডি হালনাগাদ করা খুব জরুরি। কিন্তু  চারপাশের ভোটার আইডি সংশোধন নিয়ে হয়রানি এবং প্রতারনার কথা শুনে আর ইচেছ হয় না সংশোধন করতে।

আজকে এক ভাই তার ফেসবুক পেজে দু:খের সাথে লিখেছে যে অনলাইনে  ভোটার আইডি সংশোধন করতে গিয়ে তাকে ফি দিতে হলেও, পিনকোড পাননি। তিনি টাকা নষ্ট  এবং সময় নষ্ট  করছেন। কিন্তু   তার আবেদন তুলে ফেলতে পারছেন না। আবার সংশোধিত আইডি কার্ডও ফিরে পাচ্ছেন না। এদিকে মোবাইল সিম রেজিস্ট্রি করতে গেলে কাস্টমার কেয়ার এর লোক বলল, আপু, নির্বাচন কমিশনের লোকদের টাকা ঘুষ দিলে তিন মাসের  মধ্যে আপনার আইডি ফিরে পাবেন।

দু:খজনক হলেও আমি  শুধু একবার ভোট দিয়েছি। ভোট আমার নাগরিক অধিকার। সঠিক তথ্য প্রদান আমার দায়িত্ব। তাই ভোটার আইডি সংশোধন  এবং হালনাগাদ নিয়ে যে সকল সমস্যা রয়েছে তা সমাধানে সরকারের সঠিক পদক্ষেপ কাম্য। সেই সাথে এই বিষয়টা নিয়ে জনগনের সচেতনতা ও জরুরি।