ক্যাটেগরিঃ ভ্রমণ

image

সামুদ্রিক খাবার উরচিন (urchin)। দেখতে মনে হয় কোন মাছের সদ্য ফেটা ডিম। হাত দিয়ে ধরলে মনহবে বাংলাদেশের রুই মাছের পেট থেকে বের হওয়া অনেক গুলো ছোট ছোট ডিম্বক এক সাথে দল বেধে আছে। আমি প্রথমে এই উরচিন খেয়েছি জাপানি এক ট্রাডিশনাল রেস্তোরাতে।

14125776_1782791515331936_5574265740018652727_o
সে অনেক গল্প। জাপানে যাওয়ার পর অনেক অনেক ট্রাডিশনাল খাবার স্বাদ নিয়েছি। নতুন মানুষ। নতুন স্বাদ। নতুন পৃথিবীর নতুন সংস্কৃতি। প্রতিদিনই নতুন কিছু শেখা।উরচিন মাছের ডিমের মতো মনে হলেও সবাদ অনেক আলাদা। উরচিন কে অনেকে Hedgehog বলে। সামুদ্রিক এই খাবার ইউরোপিয়ান দেশ গুলোতেও পাওয়া যায়। তবে তাদের খাওয়ার প্রনালী আলাদা। কিন্তু জাপানে এই উরচিন পরিবেশন এবং খাওয়ার প্রনালী ইউরোপিয়ানদের চেয়ে আলাদা। জাপানিরা এই ধরনের খাবার গুলো নিজস স্টাইলে পরিস্কার করে সরাসরি খায় ফ্রেস উরচিন। আবার কখনও সস ব্যবহার করে খায়।
14207624_1782788751998879_4228756030451848371_o

সে সময় একদিন টোকিও থেকে আমার বান্ধবী ক্যাজি হোক্কাইডো এসেছে তার দাদা দাদি কে দেখতে। সেই সাথে পরিচিত বন্ধুদের সাথে দেখা করা। আমি যেহেতু নতুন জিনিসের ব্যাপারে আগ্রহ দেখাই ওরাও আমাকে নতুন জিনিস শেখাতে মজা পায়। ক্যাজি আর জাপানি হোস্ট দাদা দাদি গেলাম সাপ্পরো শহরের একদম পশ্চিমে যেখানে ট্রাডিশনাল রেস্তরাঁ গুলো পাওয়া যায়।
14188177_1782789415332146_7222501413828124705_o
তেমন একটি ট্রাডিশনাল রেস্তরাঁ ওদং। খুব সুন্দর সাজানো গুছানো। একদম পরিপাটি। তখন লাঞ্চটাইম। রেস্তরাঁ তে বাফেট চলছে। একটা করে প্লেট ঘুরে ঘুরে আসবে। আর সেখান থেকে তুলে খেতে হবে। প্লেট গুনে পয়সা দিতে হবে।

14115553_1782789451998809_7072083554323702539_o
সেদিনই প্রথম জানলাম উরচিন সম্পর্কে। সেই সাথে আরো অনেক ধরনের কাচা মাছের সাসেমি। শয়ার থেকে তৈরী তফু, ও চা, নিশেং মাছ,শালমন ফিস,ওনিগিরি আরো অনেক ধরনের সালাদ খাবার। আমি ক্যাজি প্লেট প্রতিযোগিতা করলাম। কে কতো প্লেট খেতে পারে। সেদিন আমরা দুজন আটত্রিশটা প্লেট নিয়ে ছিলাম।

14137997_1782789438665477_5195871739648218575_o
আমি এখনও জানি না কেমন করে সেদিন এতো গুলো নতুন খাবার তাও আবার নতুন ভিন্ন সবাদের নিজের উদর পূজাতে দিয়েছিলাম।ক্ষুদায় মানুষের ভিতরের বুবুক্ষা দানব টাকে যে জাগিয়ে তুলে তা সেদিন হাসতে হাসতে টের পেয়েছিলাম।
14241568_1782790035332084_4932617700881562448_o

জাপানিরা দীর্ঘদিন বেচেঁ থাকার আরো একটি কারন হলো খাবারে ভিটামিন এবং ক্যালোরি পরিমিতি বোধ। বয়স অনুযায়ী তারা সব ধরনের খাবার গুলো মেনে নিয়ে খায়। নিয়মানুযায়ী খাদ্যাভাস তাদের অন্য সবার চেয়ে আলাদা করে রাখে।
14232017_1782790038665417_135266231876372593_o

14232024_1782788655332222_1391273977229433194_o

14241687_1782788748665546_1813243804443698037_o
বাংলাদেশেও এখন অনেক বিদেশি রেস্তরা হয়েছে। সেখানে পাওয়া যায় নানা দেশের খাবার। যেতে পারেন সেখানে। একটি নতুন খাবারের সবাদ এনে দিতে পারে প্রাত্যহিক জীবনে নতুন কিছু। জীবন কে উপভোগ করুন প্রান ভরে। জীবনের নিয়মে।