ক্যাটেগরিঃ জনজীবন

 

images-1
ভিক্ষা বৃত্তির মতো জনপ্রিয় পেশা বাংলাদেশে একটিও নেই। বিনা পরিশ্রমে আরামে রাস্তাঘাটে বসে ভিক্ষা করার মতো সুখ পৃথিবীতে আর কি আছে। তাই তো যে দিকে তাকাই শুধুই ভিক্ষুক দেখি। আমি বুঝিনা এতো ভিক্ষুক বাংলাদেশে কোথা থেকে আসে। ট্রেন ষ্টেশন, বাস ষ্টেশন, এয়ারপোর্ট, হাসপাতাল,স্কুল কলেজের সামনে, মাজার, বাসা বাড়ি,রাস্তা ঘাট কোথায় ভিক্ষুক নেই। কতো রকমের ভিক্ষুক যে ঢাকা শহর সহ পুরো বাংলাদেশে আছে সঠিক পরিসংখ্যান কারো জানা নেই। তবে এটাও কিন্তু সত্য বাংলাদেশে ভিক্ষুকদের যে আয় রোজগার তার এক তৃতীয়াংস হয়তো দৈনিক খেটে খাওয়া কুলি মজুরদের নেই। কোন মধ্যবিত্ত শ্রেণীর মানুষের নেই। যে কিনা সামান্য নির্দিষ্ট আয়ের জন্য সারাদিন কাজ করে। কেনো জানি মানুষ কাজ করতে চায় না।

আজকাল ভিক্ষাবৃত্তি মতো সহজ আনন্দদায়ক পেশা হয়তো একটিও নেই। এই যে অন্যের আয় রোজগারের অংশ চেয়ে নেয়ার অভ্যাস থেকে বাংলাদেশীরা মুক্ত হতে পারে না। তাই হয়তো সহকর্মীর প্রমোশন হলে তাকে অভিবাদন জানানোর আগেই তার কাছে খাওয়ার আবদার থেকে টাকা ধার নেওয়ার আবদার থাকে। প্রতিবেশী নতুন জমি কিনেছে এখন তার কাছ থেকে কিছু আদায় করে নিতে হবে। প্রিয় বন্ধুর চাকরিতে বেতন বেড়েছে। কোন ভাবেই তাকে এগিয়ে যেতে দেওয়া যাবে না। এমন করে প্রতিটা জায়গায় আমরা যে নিজে কিছু করার চেয়ে অন্যের কাছ থেকে ভিক্ষা চাওয়ার অভ্যাস থেকে বেড়িয়ে আসতে পারিনা।ভিক্ষুক মানসিকতার কাছে আমরা মনের অজান্তেই বন্দি। আমাদের এই বন্দিদশা থেকে মুক্ত হতেই হবে। কবে আর কবে আমরা ভিক্ষাবৃত্তি ছাড়তে পারবো। কবে কাজ কে সম্মান করতে শিখবো।
images