ক্যাটেগরিঃ ধর্ম বিষয়ক

ধর্ম শব্দের মানে কি? হয়ত ভিন্ন ভিন্ন ধরনের উত্তর হতে পারে। কিন্তু প্রকৃত উত্তর হল ধর্ম শব্দের অর্থ ধারন করা। তাহলে আমরা ধর্মকে ধারক বলতে পারি। মানব সভ্যতার সূচনালগ্ন থেকে মানুষের সাথে সাথে চলে আসছে মানুষের ধর্মীও মূল্যবোধ আর চেতনা। লক্ষ করলে দেখা যাবে পৃথিবীর সকল ধর্মের মূল বা সারকথা এক নিরাকার শক্তিতে নিহিত। যাকে দেখা যায় না, কিন্তু তার শক্তির প্রকাশ সর্ব পৃথিবীময়।

কেন ধর্মীয় চেতনা মানব জীবনে প্রয়োজন? সব কিছুর মতো কেন ধর্মকে সংস্কার করা প্রয়োজন নয় এমন কিছু বিষয় আমাদের আধুনিক মানুষের সামনে প্রায়ই চলে আসে। আমরা হয়ত কিছুটা দ্বিধা বা দ্বন্দে পরে যাই নিজের অস্তিত্ব নিয়ে।
পৃথিবীতে প্রধান চারটি ধর্ম বাদেও অসংখ্য ধর্ম রয়েছে। কেবলমাত্র হিন্দু ধর্ম বাদে সকল ধর্মেরই এক বা একাধিক prophet আছেন। হিন্দু ধর্মে কেন নেই সেই ব্যাখ্যাতে অন্য কোনদিন যাব। যা বলছিলাম, প্রায় সকল ধর্মে পৃথিবীর অন্ত বা শেষ হবার কথা বলা আছে যা বিজ্ঞান বর্তমানে প্রমান করে দিচ্ছে। এছাড়াও মানব জীবন যাপন প্রণালী বা এককথায় বলতে গেলে কিভাবে মানুষ জন্ম থেকে মৃত্যু পর্যন্ত নির্বাহ করবে, তাও উল্লেখ থাকে ধর্মতে। তবে কেন মানুষের উচিৎ নয় ধর্মীও মূল্যবোধ মেনে না চলা?

ধর্ম যেমন সংস্কারের উর্ধে তেমনি আবার নয়ও। যার কারনেই আজ পৃথিবীতে এত ধর্মীয় মতবাদ। যার একতাই প্রধান কারন, ধর্মীয় সংস্কারের চেষ্টা।
ধারক ছাড়া যেমন এই বিশ্ব লোকে কিছু কল্পনা করা যায় না ঠিক ধর্মহীন মানুষ, যাযাবর স্বরূপ। তার কোন পরিচয় নেই বলব না, কিন্তু তাকে মূল্যবোধ হীন অবশ্যই বলা যেতে পারে। এর কারন সে নিজেকে ধারকহীন ভাবছে যা এই পৃথিবীতে সম্ভব নয়।

আসুন, ধর্মের জন্য নয় নিজের জন্য ধার্মিক হই।