ক্যাটেগরিঃ স্বাস্থ্য

 

হতে পারে আম পাতা বা লিচু পাতা, তবে অবশ্যই পুরু এবং শিরা উপশিরা বোঝা যায় এমন পাতা হতে হবে এবং অবশ্যই মরা কিংবা শুকনো পাতা হলে চলবে না, সবুজ সতেজ পাতা হতে হবে। দেয়ালে ঝুলিয়ে রাখুন (কমপক্ষে আপনার চোখের অবস্থান থেকে ২ মিটার দূরে)। এবার যেটা করবেন সেটা হল আপনার অবস্থান থেকে পাতার শিরা উপশিরা গুলো দেখার চেষ্টা করুন। খুব মনোযোগ সহকারে দেখার চেষ্টা করুন। ঘরের আলো যেন পর্যাপ্ত থাকে সেদিকে লক্ষ রাখতে হবে। কমপক্ষে ১৫ মিনিট ধরে এমনটি করে যান।

উপরে আমি এতক্ষন যা বললাম। সেটা আসলে একটি মস্তিস্ক অনুরণন। আমরা আমাদের দৈনন্দিন জীবনে প্রায়শই এমন কিছু সময় বা পরিস্থিতির মধ্যে পরে যাই যখন আমাদের একাগ্রতার প্রয়োজনীয়তা দেখা দেয় কোন কাজে কিন্তু আমরা কিছুতেই মনঃসংযোগ করে কাজটি করতে পারিনা। যার জন্য বাড়ে দুশ্চিন্তা আর কাজের চাপ। এরকম হতে পারে ছাত্র, কর্মজীবী কিংবা যেকোনো শ্রেণী পেশার মানুষের।

কার্যকরণঃ আসলে কি করে এই প্রক্রিয়াটি, যাতে আমাদের মস্তিস্ক পুনরায় আগের কাজের ধারায় ফিরে আসে? এটি যা করে তাহলো আমাদের মস্তিস্ককে বিভ্রান্ত করে তার স্তবির অবস্থা থেকে মুক্তি দেয়। আমাদের চোখ যখন ঐ শিরা উপশিরা গুলো খোঁজার চেষ্টা করে তখন আমাদের মগজে নতুন কিছু কাজের জন্য সংকেত যায়। এর পরক্ষনেই সেই সংকেত গুলো বাস্তবায়নে মগজের নিউরন গুলো ব্যাস্ত হয়ে পরে। যার ফলে ও ভুলে যায় কিসে স্তবির হয়ে ছিল এতক্ষণ। আর এভাবেই আমরা আবার চিন্তা করার অবস্থায় ফিরে যাই।

অন্য অনেক প্রক্রিয়া আছে মগজকে বিভ্রান্ত করার তবে আমি বেশি সহজবোধ্য এবং তড়িৎ উপকারী হিসাবে এই প্রক্রিয়াটির উল্লেখ করলাম।