ক্যাটেগরিঃ চারপাশে

চট্টগ্রামের বহদ্দারহাটে ফ্লাইওভারের গার্ডার ধসে নিহত প্রায় ১২। নিহতের সংখ্যা বাড়তে পারে বলে আশংকা করা হচ্ছে। হতাহতের স্বজনদের আর্তনাদে চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের বাতাস ভারি হয়ে উঠেছে। তাদের অনেকে জানে না, তার স্বজন আহত নাকি নিহত।

তাজরীন ফ্যাশনে ভয়াবহ অগ্নিকাণ্ডের ঘটনায় গতকাল রাত দেড়টা পর্যন্ত আগুনে পুড়ে নয়জন পোশাকশ্রমিকের মৃত্যুর খবর ছিল। কিন্তু আজ এ পর্যন্ত ১২৪ জনের লাশ উদ্ধার করা হয়েছে। মৃতের সংখ্যা আরও বাড়তে পারে বলে আশঙ্কা করা হচ্ছে।


সন্তান হারানো মা।


স্বজনদের আর্তনাদ।

ফেসবুকে চট্টগ্রামের Khasrul Alam Tutul নামে এক ভাই লিখেছেন।

আজকের এই খুনের ঘটনায় সরাসরি দায়ি সিডিএ, ঠিকাদারে অংশ নেওয়া প্রতিষ্ঠান আর পরোক্ষভাবে দায়ী সরকার। আমরা কি বিচার পাব? নাকি গার্ডার দিয়ে চাপা দেওয়া হবে এসব খুনের ঘটনা! খুব খারাপ লাগছে আজকের ঘটনায় নিহত/আহতদের জন্য।হে ভাই/বোন আমাদের ক্ষমা কর।আমরা এমন এক জাতি যারা টাকার গন্ধ পেলে মানুষ মারতে দ্বিধা বোধ করিনা।আমরা তোমাদের খুন করেছি। আমাদের কিছুই করার নেই. . . . আমাদের রাজনৈতিক শীর্ষ পর্যায় থেকে দূর্নীতি হয়ে আসছে,আমাদের শিরায় শিরায় দূর্নীতি। তোমরা আমাদের ক্ষমা কর

একই দিনে এত বড় দুটি দুর্ঘটনা। প্রায় নিহতের সংখ্যা ১৩৫, আশা করি নিহতের সংখ্যা আর বাড়বে না। আমরা হয়তো অনেক শোক প্রকাশ করবো, কিন্তু যারা স্বজন হারিয়েছে তাদের কষ্ট কেউ অনুভব করতে পারবো না। দুর্ঘটনায় নিহতদের আত্মার মাগফেরাত কামনা করছি। নিহত ব্যক্তিদের পরিবারকে বড় পরিমাণের আর্থিক সাহায্য , ১ দিনের জন্য রাষ্ট্রীয় শোক প্রস্তাব ও ঘটনার গাফিলতির জন্য সংশ্লিষ্ট সকলের শাস্ত দাবি জানাই।