ক্যাটেগরিঃ রাজনীতি

আবারও ৪৮ ঘণ্টা হরতাল এর ঘোষণা বিএনপির । রাজনৈতিক রণক্ষেত্রের ইলিয়াস আলীর গুমের সুবাদে বেশ এগিয়ে ছিল বিএনপি গত সপ্তাহে । কিন্তু সপ্তাহ ঘুরতেই মনে হচ্ছে নিজেদের চালা চালেই পড়তে যাচ্ছে তারা ।

ব্যাপক গণসমর্থনে গত তিনদিন টানা হরতাল পালন করতে সক্ষম হয় বিএনপি । এবং সমাজের সর্ব স্তরের এর মানুষ দারুন ভাবে বিএনপি’র সমর্থন দিয়েছিল ইলিয়াস আলী কে খুজে বের করার জন্য কৃত গণ আন্দোলনে । কিন্তু সপ্তাহের শুরুতেই পূর্ব ঘোষিত আন্দোলনের অংশ হিসেবে টানা দুই দিন হরতাল আহবান করে বিএনপি গতকাল সন্ধায় ।

এবার আমার আপনার মত মানুষ হয়ত আর মানতে পারবে না এই হরতাল । কেননা এটি পরিষ্কার যে ইলিয়াস আলীকে যে বা যারাই খুন করেছে তারা এখন তাকে ফেরত দেবার জন্য সুযোগ খুঁজছে কিন্তু তা পাচ্ছে না । আমার এই কথার আভাস স্থানীয় সরকার মন্ত্রী এবং দলের সাধারণ সম্পাদক সৈয়দ আশরাফ এর কণ্ঠে কিছুটা পাই । সুতরাং এখন সময় লাগবে ।

একদিকে সরকারের ব্যর্থতায় বিরোধীদল কিছুটা হলেও জনগণের কাছে চলে আসছেন ,যার ফল আমার পাই হরতাল এ নিরঙ্কুশ সহযোগিতা ।

কিন্তু যখন এই সপ্তাহের শুরু হল হরতাল দিয়ে তখন অবশ্যই এই হরতালের পক্ষের লোক থাকবে কিনা সন্দেহ আছে । কারণ এখন এটি কিছুটা নৈমিত্তিক হয়ে গেল এবং জনদুর্ভোগের কথায় আর গেলাম না ।

তবে বি এন পি যে সম্পূর্ণ রূপে ভুল তাও বলা যায় না ,যদি এখন আন্দোলন থামিয়ে দেয় তাহলে দেখা যাবে অবস্থা কিছুটা শিথিল হয়ে যাবে তখন হয়ত অবস্থার সুযোগ নিতে পারে ওই চোরাগুপ্তা গ্রুপ । যেটা কিনা সব সময় এই দেশে হয় , প্রথম কয়েকদিন গরম থেকে তার পর সব নরম হয়ে যায় আবার । তো সেটা হতে দেয়া যাবে না এইবার কারণ এই বার গুম হলেন এমন একজন যে এই দলের একটি স্তম্ব ।

পাশাপাশি বিএনপি ভুলে গেলে চলবে না যে “যদি কোনও ভাবে আজকে ইলিয়াস আলী জীবিত আছেন তা শুধুমাত্র জনগণের অগাধ সমর্থনের কারণেই , নাহলে এতদিনে হয়ত তার রুহের মাগফিরাতের জন্য আমার দুআ করতাম ।

সুতরাং তাদের প্রতি আমাদের আহবান থাকবে জনগণ সংশ্লিষ্ট আন্দোলনের দিকে যাওয়ার জন্য । তাতে করে রাজনৈতিক উদ্দেশ্যের পাশাপাশি ইলিয়াস কে ফিরে পাওয়ার সম্ভাবনাও বাড়বে ।