ক্যাটেগরিঃ ব্লগ

 

সৃষ্ঠির সেরা জীব মানুষ, আর সেই মানুষের জন্য বিধাতা নিখুতভাবে সম্পদের আধার দিয়ে তৈরী করেছেন আমাদের প্রকৃতিকে । মানুষের চাহিদা ও জীবনের ভারসাম্যকে ঠিক রাখার জন্য রয়েছে আরো নানা ধরনের জীব, এই সব জীব প্রকৃতির ভারসাম্য রক্ষা করছে অবিরাম ভাবে , সাগর, নদী, পাহাড়ে রয়েছে আমাদের প্রযোজনীয় সকল সম্পদ , আমরা সেই সম্পদ সংগ্রহ করে আমাদের চাহিদা মিঠাচ্ছি । অনার্স এ পড়ার সময় কোন এক বিষয়ে পড়েছিলাম যে , প্রকৃতিতে যখন মানুষের চাপ বেড়ে যায় তখন নাকি প্রকৃতি নিজেই সেই মানুষ কমায় নানা রকম বিপর্যয় দিয়ে , যাক সে বিষয়ে অন্য দিন বিশদ আলোচনা করব , তবে এইটা ঠিক যে প্রকৃতির উপর বেশী চাপ পড়লে প্রকৃতি নানা ভাবে তার বিরূপ আচরণ দেখায় ।

দিন দিন পৃথিবীতে মানুষ বাড়ছে সেই সাথে বাড়ছে মানুষের চাহিদা, আবার মানুষ হয়ে উঠছে হিঙস্র ও লোভী । কিছু কিছু মানুষ প্রকৃতির সাথে নিজের চাহিদা মেঠানোর জন্য হিংস্র আচরণ করছে । যার ফল ভোগ করতে হয় সমাজের সকল মানুষকে , সেই রকম একটি ঘটনা হচ্ছে সম্প্রতি চট্টগ্রামের চন্দনাইশ উপজেলার দিয়াকুল গ্রামে এক দল বন্য হাতির আক্রমণ । ত্রিমাত্রিক ভাবে সেই গ্রাম আবার আমার জন্মস্হান , আমার প্রাণের গ্রাম । ২০-১০ -২০১২ তারিখ রাতে ১০ টি হাতি গ্রমের পাশের পাহাড় থেকে লোকালয়ে চলে আসে এবং সারা রাতভর গ্রামের প্রায় সব ধান ক্ষেত নষ্ঠ করে এবং পরের দিন প্রায় কয়েকজনকে মারাত্মকভাবে আহত করে , এভাবে হাতি গুলো ২২তারিখ পর্যন্ত গ্রামে অবস্হান করে এবং প্রচুর ঘরবাড়ি ভাঙচুর করে , যাতে করে গ্রামের প্রচুর ক্ষতি সাধন হয় , আপনারা হয়তো সংবাদপত্রের মাধ্যমে তা সম্বন্ধে অবগত হয়েছেন । সবচেয়ে মজার ব্যাপার হচ্ছে হাতিগুলোকে তাড়ানোর কোন উপায় কারো জানা নেই।প্রসাসন থেকে শুরু করে ফয়ার ব্রিগ্রেড এর সবাই ছিলো অসহায় । কারণ তাদেরকে রাগালে বা তাড়াতে চাইলে তারা আরো বেশী হিংস্র হয়ে উঠবে । তারা তাদের কাজ সম্পাদন করে বিজয়ীর বেশে তিনদিন পর ফিরে যায় ।এই তিন দিন সবাই ছিলো মারাত্মক আতংকে আর করেছেন বিনিদ্র রাতযাপন ।

এখন কথা হচ্ছে এইসব হাতিগুলোতো নিতান্ত সহজ সরল প্রাণী।তারা কেন লোকালয়ে এসে পড়ল? কেন তারা এইরকম করল ? তারা আমাদের কি বার্তা দিয়ে গেলো ? আমরা কি একবার ভেবেছি তারা কেন গ্রামে ঢুকে পড়লো ? করণ পাহাড়ে আমরা এমন ভাবে গাছপালা কেঠেছি যে আমরা তাদের জন্য আরকিছু অবশিষ্ঠ রাখিনি , আমাদের লোভ এতো বেড়েছে যে আমরা বন্য প্রাণীদের খাদ্য নিয়ে আসছি যার ফলে পহাড়ে প্রাণীদের খাদ্য সংকঠ দেখা যাচ্ছে,আর প্রাণীরা খাদ্যের খোজে নেমে আসছে লোকালয়ে ।যার ফল ভোগ করতে হচ্ছে সবাইকে ।
আমরা কি এব্যপারে একটু সচেতন হতে পারিনা ? আমরা কি আইনের একটু তোয়াক্কা করতে পারিনা? আমরা কি আমাদের লোভকে একটু সামলাতে পারিনা? আমাদের সকলের এব্যাপারে আরো বেশী সচেতন হওয়া জরূরী এবং এ ব্যাপারে আইনের প্রতি শ্রদ্ধাশীল হওয়া উচিত . আমাদের উচিত শুধূ নিজেদের চিন্তা না করে সেই সকল নিরীহ প্রাণীর কথা একটু চিন্তা করা । এবং এ ব্যাপারে সচেতনতা বাড়ানো সকলের উচিত । আসুন আমাদের প্রকৃতিকে আমাদের স্বার্থ রক্ষার জন্য হলেও রক্ষা করি , প্রকৃতিকে ভালোবাসি ।
তা নাহলে কিন্তু প্রকৃতি এভাবেই প্রতিশোধ নিবে ।