ক্যাটেগরিঃ নাগরিক সমস্যা

ব্লগার ফয়সাল আহমেদ চট্টগ্রাম কে নিয়ে মিথ্যে অপপ্রচারের জন্য যে ব্লগ লিখেছেন তাতে মন্তব্য করেও আমার মনটা শান্ত হয়নি। তাই এই প্রতিক্রিয়া জানালাম। যৌতুক আমাদের সমাজের সবচেয়ে বড় সমস্যা । সমাজে যে সব সমস্যা মারাত্মক আকার ধারণ করেছে তার মধ্যে এই সমস্যাটা অন্যতম। যা নিয়ে আমাদের দেশের সরকার থেকে শুরু করে সচেতন সমাজ সবাই চিন্তিত । এ নিয়ে সরকার বেশ কিছু জন সচেতনতা মূলক কাজ সহ , তা প্রতিকারে নানা প্রকল্প হাতে নিয়েছে । এই সমস্যা এতা বেশী বড় আকার ধারণ করেছে যে এই সমস্যা নিরসনে অনেক এনজিও কাজ করছে । এটি সারা দেশের সমস্যা । সারাদেশের যে সকল নারী নির্যাতন হয় তার সিংহ ভাগই হয় এই যৌতুকের কারণে । বাংলাদেশে অধিকার সামের একটি সংস্হা এ বিষয়ে বিশদ কাজ করছে । এসিড নিক্ষেপ , গায়ে আগুন ধরিয়ে দেওয়া সহ নানা অত্যাচার হয় নারীদের উপর , এই যৌতুকের জন্য । এখন লেখককে প্রশ্ন এই সব অত্যাচার কি শুধূ চট্টগ্রামে হয়? আমার জানা মতে বিগত দশ বছরে যৌতুকের জন্য এই ভাবে আক্রান্ত হয়ে চট্টগ্রাম মেডিকেলে বা কোন হাসপাতালে কেউ যায়নি। কিন্তু এই রকম সংবাদ কিন্তু আমরা প্রায় প্রতিদিনই পাচ্ছি , তাহলে এসব হচ্ছে কোথায় ? কোথায় হচ্ছে আমি তা বলতে চাইনা , তবে দেশেই হচ্ছে কারণ এটা দেশের সমস্যা । শুধু চট্টগ্রামের নয়। আপনার বন্ধু আপনাকে কি বিয়ে করতে বললো আর আপনি যাচাই বাচাই না করে সমগ্র চট্টগ্রামকে দায়ী করে ব্লগ লিখে ফেললেন। আপনি বলেছেন আপনি এইভাবে চট্টগ্রামের মানুষের ইগোতে তা লাগাতে চেয়েছেন , কেন আপনি কি তা অন্য ভাবে বলতে পারতেন না ? আর চট্টগ্রামে কি এই সমস্যা এতো মারাত্মক হয়ে গেছে ? আপনার মতো মানসিক বিকারগ্রস্ত লোকের কাছ থেকে এর চেয়ে অবশ্যই এর চেয়ে বেশী আশা করা যায়না । জনাব ফয়সাল নিজের যে পরিচয় দিয়েছেন তাতে করে তার কাছ থেকে এই ধরনের পোষ্ঠ কিছুতেই আশা করা যায়না ।এভাবে স্বনাম ধন্য একটি জেলার সমগ্র লোককে অপমান করে আপনি কোন সমস্যার সমাধান বা সচেতনতা বাড়াতে পারবেন না তাতে বরং আরো সমস্যা প্রকট হয় ।লেখকের বিষয়বস্তু ছিলো চমৎকার তবে তিনি কি উদ্দেশ্যে চট্টগ্রামকে হাইলাইটস করেছেন তা বুঝতেই পারলাম না । যৌতুক আমাদের সমাজে আইনত দন্ডনীয় অপরাধ , আসুন সবাই মিলে যৌতুক মুক্ত সমাজ গড়ে তুলি ।