ক্যাটেগরিঃ প্রবাস কথন

গত ২৫ সে ফেব্রুয়ারি রিয়াদে হঠাৎ করে ধূলি ঝড় শুরু হয়। অনেকেই হয়তো বলবেন প্রায় একমাস পর এটা বলার কারণ কি; না তেমন কোনও কারণ নেই। তবে অভিজ্ঞতাটা একটু শেয়ার করব এই আর কি।
তার উপর গত কাল থেকে আবারও সেই একই অবস্থা। ধূলি ঝড়ের কারণে আজ রিয়াদে সকল স্কুল কলেজ বন্ধ ছিল। আজকের ধূলি ঝড়টা সেদিনের মত না হলেও সমগ্র রিয়াদ ধূলির মধ্যে আচ্ছন্ন হয়ে আছে।
২৫ সে ফেব্রুয়ারি বিকেলে ৪:৩০ টায় অফিস হতে বেরিয়ে দেখি সমগ্র আকাশ কেমন যেন হলদেটে হয়ে আসছে। গাড়ি স্টার্ট করে রাস্তায় বেরুতেই ঘন অন্ধকারের মাঝে ডুবে গেলাম। গাড়ি খুই সাবধানে ড্রাইভ করছি। গাড়িটা চলছে খুবই সাবধানে, সতর্কতার সাথে। ডানে, বামে, সামনে পেছনের সবাই ইমারজেন্সি লাইট জ্বেলে এগুচ্ছি। হটাৎ এমন অবস্থায় এর আগে পরিনি। অনেককেই দেখলাম রাস্তার পাশে গাড়ি থামিয়ে বসে আছে। আমার মধ্যে একটা উত্তেজনা সবসময়ই কাজ করে এমন পরিস্থিতিতে ড্রাইভ করতে। আকা-বাকা, উচু-নিচু রাস্তায় ড্রাইভ করতে মজাই আলাদা!! কিন্তু এমন অন্ধকারে! দিনের বেলাতেই রাতের আমেজে ড্রাইভ করা ভয়ংকর ব্যাপার!

অনেক কষ্টে আস্তে আস্তে বাসায় পৌছে হাফ ছেড়ে বাঁচলাম। পরদিন মেইলে বেশ কিছু ছবি পেলাম আগের দিনের সেই ধূলি ঝড়ের আর তাতে ঘটে যাওয়া কয়েকটা দুর্ঘটনার। এদেশে হটাৎ করেই আবহাওয়া পরিবর্তন হয়ে যায়। বলা নেই কাওয়া নেই গরম শেষ, হঠাত্‍ই ঠান্ডা! তেমনি ঠান্ডা হতে হঠাৎ করেই গরম চলে আসে। আমাদের দেশের অনেকটা কাল বৈশাখীর মত। এদেশে ঝড় বলতেই ধূলি ঝড়। তাই যারা ড্রাইভ করেন বা গাড়িতে চলাচল করেন তারা এমন পরিস্থিতিতে সাবধানে চলাফেরা করবেন সেফটি বজায় রেখে।