ক্যাটেগরিঃ রাজনীতি

বেশ চমকপ্রদ একটা স্টাইল। মেয়াদের ১৫ মাস বাকি, আবার ৭ জন নতুন মন্ত্রীর নাম শুনতে পাচ্ছি।

ভালো, বেশ ভালো।

এইতো গত ডিসেম্বরে দেখলাম ২ জনকে নিতে, যারা কিনা সরকারি দলের হয়েও সংসদে-বাইরে সরকারের কাজ-কর্মের সমালোচনা করতেন ও উপদেশ দিতেন। সুরঞ্জিত বাবু তো বুঝলেন না চাল-টা, কেন একজন অসমমনা ব্যক্তি হয়েও তিনি মন্ত্রীত্ব পেলেন, কি বিপদেই না পরলেন! আর ওবায়দুল কাদের সাহেব তো তক্কে তক্কে আছেন, পিঠ বাঁচিয়ে চলছেন।

এইবার যাদের নাম শোনা যাচ্ছে তাদের মধ্যে কয়েকজন এই ধরনের কার্যক্রম চালাচ্ছেন সবসময়, যেমন তোফায়েল আহমেদ, মেনন, ইনু।

অনিয়ম-দুর্নীতি, স্বেচ্ছাচারিতা, স্বজনপ্রীতি, মানবাধিকার লঙ্ঘন, দূর্বল যুদ্ধাপরাধ বিচার ইত্যাদি নানা অভিযোগে অভিযুক্ত এই ডুবন্ত নৌকায় যারা উঠলেন, তারা কি ভেবে রাজী হলেন ভাবছি।

তবে ভুল যে করলেন সেটা বুঝতে পারছি।

দেখা যাক, কোথাকার পানি কোথায় গিয়ে গড়ায়।

মাননীয় প্রধানমন্ত্রী, দুর্নীতি-অপরাধের বিরুদ্ধে একটু শক্ত হোন

আস্থা হারাচ্ছেন, ভোট হারাচ্ছেন হাসিনা

নতুন মন্ত্রীরা কি ভোট বাড়াবে আ.লীগের?