ক্যাটেগরিঃ ক্যাম্পাস

আর কিছু দিনের মধ্যে শুরু হয়ে যাবে সরকারী বিশ্ববিদ্যালয়গুলোতে ভর্তিযুদ্ধ।এ মুহূর্তে অবসরের সময় নেই ভর্তি যুদ্ধের ছাত্রছাত্রীদরে জন্য ব্যাঙে ছাতার মত গজিয়ে ওঠা বিভিন্ন কোচিং ও ভর্তি গাইড বানিজ্য।শিক্ষার সর্বোচ্চ বিদ্যাপীঠ বিশ্ববিদ্যালয় ভর্তি স্বপ্ন থাকে সবার। কিন্তু স্বপ্নের বাস্তব রূপ অচিরেই ঝরে যায় ব্যয় বহুল এই কোচিং ও ভর্তি গাইড বানিজ্যিক বিজ্ঞাপনের কাছে।আমাদের দেশের অধিকাংশ ছাত্রছাত্রীগণ দরিদ্র পরিবারের।ফলে তাদের পক্ষে ব্যয় এই বহুল কোচিং ও ভর্তি গাইড বানিজ্যিক বিজ্ঞাপনের কাছে নিজ মেধাকে হীনমন্যতায় রূপ নেয়। যা তাদের মনে বদ্ধ ধারনা জন্ম দেয় যে কোচিং ও ভর্তি গাইড ছাড়া বিশ্ববিদ্যালয় ভর্তি নামক সোনার হরিণটি ধরা যাবে না। আর এই সুযোগে কিছু অসাধু ব্যাক্তি সুকৌশলে তাদের কোচিং ও ভর্তি গাইড বানিজ্য চালিয়ে যাচ্ছে।এইচ.এস.সি পরীক্ষার সময় তারা বিভিন্ন এজেন্ট দিয়ে ছাত্র-ছাত্রী মগজ ধোলাই করে। এতে দরিদ্র পরিবারের অনেক মেধাবী ছাত্রছাত্রীগণ নিজের উচ্চ শিক্ষার সোনালী স্বপ্ন অমাবশ্যার আধারে হারিয়ে দেয়। এ জন্য কোচিং ও ভর্তি গাইডের বানিজ্যিক বিজ্ঞাপনসহ এগুলো বন্ধ করা উচিত। এছাড়া এইচ.এস.সি পর পর কলেজ কর্তৃপক্ষের মাধ্যমে বিনামূল্যে সরকারী বিশ্ববিদ্যালয়গুলোতে ভর্তির বিভিন্ন প্রস্তুতিমূলক ধারনা দেওয়া প্রয়োজন। এতে কোচিং ও ভর্তি গাইড বানিজ্য আসল রূপ ছাত্র-ছাত্রীদরে কাছে বেরিয়ে আসবে। রড় রড় শহরগুলিতে কোচিং করতে আসা ছাত্র-ছাত্রীদের চাপও কমে যাবে।তাই এই কোচিং ও ভর্তি গাইড বাণিজ্যের কারনে কোন দরিদ্র মেধাবী ছাত্র-ছাত্রীর উচ্চ শিক্ষার সোনালী স্বপ্ন যেন থেমে না যায়,সেদিকে সরকারী বিশ্ববিদ্যালয়গুলোর ও সরকারের সুনজর দেওয়া প্রয়োজন। তা না আমাদের দেশের অনেক দরিদ্র মেধাবী ছাত্র-ছাত্রীর উচ্চ শিক্ষার স্বপ্ন অমাবশ্যার অন্ধকারে হারিয়ে যাবে এই কোচিং ও ভর্তি গাইড বাণিজ্যের কাছে।