ক্যাটেগরিঃ স্বাস্থ্য

 

কিছু কিছু পেশা থাকে, যেসব পেশায় প্রাপ্তির চেয়ে দানটাই মুখ্য। দান মুখ্য বলেই সেসব পেশাকে মহান পেশা বলা হয়। সমাজের সর্বোচ্চ সম্মানের আসনে আসীন করা হয়। চিকিৎসাসেবা- তেমন একটি পেশা।

দেশের অর্থনৈতিক, রাজনৈতিক ও অন্যান্য সীমাবদ্ধতার কথা মাথায় রেখেই এসব পেশায় নাম লেখাতে হয়। চিকিৎসাসেবা পেশায় যিনি আসবেন, তাঁকে ধরেই নিতে হবে, এ পেশায় শুধুই অসহায় অসুস্থ মানুষের সুখে-দুখে সব সময় পাশে থাকতে হবে। তাই বলে চিকিৎসাসেবা করতে গিয়ে আমরা কোন প্রকার সম্মান পাবো না তাতো হয়না।

ডাক্তারদের বেলায়ও এই কথাগুলো প্রযোজ্য। দেশের মেধাবী শিক্ষার্থীদের একাংশ যখন অনেক প্রতিযোগিতা পেরিয়ে মেডিকেলে পড়তে যান, তাঁদের নিশ্চয়ই জানা থাকে এ দেশে কয়েক হাজার রোগীর জন্যে একজন মাত্র ডাক্তার নিয়োজিত থাকেন। রোগীদের উপকার করাটা ডাক্তারের কাজ। ভুল চিকিৎসায় কিংবা বিনা চিকিৎসায় রোগী মারা গেলে সমস্ত দায়দায়িত্ব ডাক্তারদের ঘাড়েই বর্তাবে। পক্ষান্তরে একজন সুস্থ হয়ে ওঠা রোগী এবং তাঁর পরিবারের সমস্ত শুভকামনাও কিন্তু একজন ডাক্তারই পান।

অনেক কষ্ট করে এমবিবিএস পাস করে যখন রাস্তা ঘাটের লোকজন থেকে শুরু করে পেশেন্টের লোকেরাও আমাদেরকে সিস্টার বলে ডাকে তখন খুব কষ্ট হয়। তাছাড়া কিছু বলতে গেলে বলে আপা আমরা কি করে বুঝবো কে ডাক্তার কে সিস্টার। আমরা রাস্তা বা পেশেন্টের লোকেদের দোষ দিব না আমি দোষ দিব সরকারের।

আমাদের কিছু ন্যায্য দাবিদাওয়া আছে যেটার যথাযথ বিষয় গুলো সরকারের কাছে তুলে ধরতে চাই। তবে আমাদের এই দাবিদাওয়া তুলে ধরার পদ্ধতি কোনোভাবেই পরিবহন শ্রমিক কিংবা গার্মেন্টস কর্মীদের মত হবেনা। হবে চিকিৎসাসেবাসূলভ। এখানেই অশিক্ষিত কিংবা অল্পশিক্ষিত গার্মেন্টস কর্মী এবং একজন চিকিৎসাসেবার মধ্যে তফাৎ।

যাক, কথা বাড়িয়ে লাভ নেই। যে কথাটি বলতে চাইছি-

সরকারের কাছে আমাদের একটাই দাবি শুধু ডাক্তাররা ছাড়া কেউ White Aprone পরতে পারবে না। আমি বলছি না যে নার্স বা অন্য যারা আছে তারা Aprone পরতে পারবে না। হা তারা Aprone অবশ্যই পরবে সেটি হতে হবে অন্য কালারের যাতে করে বোঝা যায় কে ডাক্তার আর কে সিস্টার। অন্নন্য দেশে সিস্টারদের Aprone আলাদা,তাছাড়া বিশ্বের যে কোন দেশে বোঝা যায় কে ডাক্তার আর কে সিস্টার। তাই সরকারের দৃষ্টি আকর্ষন করে বলছি অন্নন্য দেশের মত আমাদের এই ডাক্তারদেরকে একটু সম্মান দেওয়া হোক। আমরা কি এতোটুকু সম্মান পেতে পারি না???

(এই দাবি নিয়ে কথা বলছেন North Bengal Medical College এর ৭ম ব্যাচের ছাএী ডাক্তার: আমাতুল্লাহ উম্মুল ওরায়া টুমপা,বর্তমানে Sher e Bangla Medical College এ চিকিৎসাসেবা দিচ্ছেন। আশা করছি সরকার এর একটা সমাধান করবেন।)