ক্যাটেগরিঃ প্রকৃতি-পরিবেশ

অতিথি পাখিরা হাজার হাজার মাইল পথ পাড়ি দিয়ে চলে আসে আমাদের দেশে। এরা একটু উষ্ণতার জন্য আমাদের দেশে আসে আশ্রয়ের জন্য অতিথি হয়ে। আর বাঙ্গালী জাতি হল অতিথি প্রিয় জাতি। তাই আমরা যেন সেই অতিথি পাখিদের প্রতি সু-ব্যবহার করি। তারা যেন আমাদের কাছে ভক্ষণের শিকার না হয়।

gwntkaz3jrhaqbfyck1br8oow9_zl7sg39qwltximrfwvi-gragghkrlfdd9nez9l4k0obftixjzd_c3tlignb_5-clh9ss9yjwzw470-h313-nc
আর এই শীতে যখন অতিথি পাখিরা আমাদের দেশে আসে, তখন চারদিকের প্রকৃতি যেন অন্যভাবে জেগে উঠে। পাখির কলকাকলিতে ভরে উঠে পরিবেশ। নদীর ধারে, বিলের মাঝে, অথিতি পাখিরা যখন ঝাঁক বেধে উড়ে চলে তখন সত্যিই মন জুড়িয়ে যায়। হঠাৎ রাস্তায় চলার সময় অতিথি পাখিরা যখন মাথার উপর দিয়ে ঝাঁক বেধে চক্কর মারে তখন এ দৃশ্য উপভোগ করতে সত্যিই ভালো লাগে। প্রতি বছরের মতো এবারের শীতেও অথিতি পাখিগুলো আসতে শুরু করছে আমাদের দেশে। তাই আমি আমার পক্ষ থেকে অথিতি পাখিদের স্বাগত জানাই। কেননা এরা আমাদের প্রকৃতিক ভারসাম্য বজায় রাখতে বিশেষভাবে সাহায্য করে। সেই সাথে প্রকৃতিকে করে তোলে মনোমুগ্ধকর। তবে কিছু মানুষ এসব পাখিগুলিকে পাখি শিকারের নাম করে নির্মম ভাবে ধরে ফেলছে। প্রতিদিনই মারা পড়ছে শত শত অতিথি পাখি। আবার এ পাখি শিকারের ফলে অথিতি পাখিদের থেকে ছড়িয়ে পরছে বিভিন্ন রোগ ব্যাধির ভাইরাস। এতে মারাত্মক হুমকির মুখে পড়ছে জীববৈচিত্র্য। বন্য প্রাণী সংরক্ষণ আইন অনুসারে অতিথি পাখি শিকার ও বিক্রয় করা দণ্ডনীয় অপরাধ।


তাই আসুন, আমরা অতিথি পাখি শিকার বন্ধ করি। অথিতি পাখিদের সাঙ্গে অথিতিদের মতই ব্যবহার করি। পরিবেশকে সমুন্নত রাখার জন্য সামান্য হলেও যে যার পক্ষ থেকে সবাই অবদান রাখি।