ক্যাটেগরিঃ নাগরিক সমস্যা

বাংলাদেশসহ পাঁচটি দেশে বার্ড ফ্লু আবারও ছড়িয়ে যেতে পারে বলে সতর্ক করেছেন জাতিসংঘের খাদ্য ও কৃষি বিষয়ক সংস্থা (এফএও)। এ জন্য সতর্কতা অবলম্বনের পাশাপাশি ভাইরাসের প্রাদুর্ভাব মোকাবেলায় বিশেষ ভাবে প্রস্তুতি নেওয়ার আহ্বান জানিয়েছে এফএও। (তথ্য বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকমক ২৯ আগষ্ট ২০১১) গত বছরও বাংলাদেশে ব্যাপকভাবে বার্ড ফ্লুর সংক্রমণ দেখা দিয়েছিল ,।
রোগতত্ত্ব, রোগ নিয়ন্ত্রণ ও গবেষণা ইনস্টিটিউটের (আইইডিসিআর) পরিচালক অধ্যাপক মাহমুদুর রহমান এই আগষ্টেই বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকমকে বলেছেন , জাতিসংঘের এরূপ সতর্কতার যৌক্তিকতা রয়েছে। তিনি মন্তব্য করেন আমাদের দেশে ‘পোল্ট্রি খামারে জীবাণু নিয়ন্ত্রণ ব্যবস্থা দুর্বল’ । বাংলাদেশের পোল্ট্রি খামারে এ ভাইরাস ব্যাপকভাবে ছড়িয়ে পড়তে পারে বলে তিনি বলেন, “আমাদের পোল্ট্রি খামারে জীবাণু সংক্রমণ নিয়ন্ত্রণ ব্যবস্থা দুর্বল হওয়ায় আমরা এ ভাইরাস থেকে মুক্ত হতে পারিনি। তিনি আরও বলেন, এ ভাইরাসের প্রাদুর্ভাব ঠেকাতে প্রাণি সম্পদ বিভাগকে ‘সক্রিয়’ হতে হবে। ২০১১ এর আগষ্টে চুয়াডাঙ্গায় এই ভাইরাস সনাক্তের উদাহরণ দিয়ে তিনি বলেন, “এখনো আমরা অসময়ে এই ভাইরাসের প্রাদুর্ভাব লক্ষ্য করছি।”

উল্লেখ্য যে , এ বছর বার্ড ফ্লুর কারণে চুয়াডাঙ্গায় ২১ হাজার মুরগী নিধন করা হয়েছে ।

জাতিসংঘের খাদ্য ও কৃষি বিষয়ক সংস্থা ‘এফএও’ বলেছে, সম্প্রতি বুলগেরিয়া, রোমানিয়া, ইসরায়েল, ফিলিস্তিন,নেপাল ও মঙ্গোলিয়ায় এ ভাইরাসের সংক্রমণ দেখা গেছে। তাছাড়া এফএও’র প্রধান পশুরোগ বিশেষজ্ঞ হুয়ান লুব্রোথ বলেছেন, “২০০৪ থেকে ২০০৮ সালে এ ভাইরাস কমে আসার যে ক্রম হ্রাস মান সুচক ছিলো তার ব্যত্যয় ঘটায় ইহাই প্রমাণ হয় যে, এবার বর্ষা ও শীতে এইচ৫এন১ ভাইরাসের প্রাদুর্ভাব বেড়ে যেবে।”

যদিও এইচ -৫ এন-১ ভাইরাস ক্ল্যাড দুই দশমিক দুই ক্যাটাগরি ভাইরাস মানব দেহে সংক্রমনের ঝুঁকি কম । এবং বেশী করে সিদ্ধ করে পরিষ্কার পরিচ্ছন্ন পরিবেশে পাখি বা হাঁস মুরগীর মাংস খাওয়া হলে তা নিরাপদ, তদুপরি এফএও এর তথ্য অনুযায়ী এই অসময়ে এই উপমহাদেশে বাংলাদেশ সহ কেম্বোডিয়া , থাইল্যান্ড , মালয়েশিয়ায় বার্ড-ফ্লু ভাইরাস ছড়িয়ে পড়ার সম্ভাবনা প্রবল । চীন ও ভিয়েতনামে এ রোগের প্রতিষেধক কার্যকরি না হওয়ায় আমাদের চিন্তা বেড়েছে অনেক গুন । আশা করি সরকার এখনই গন-সচেতনতামূলক ব্যবস্থা নিবেন এবং প্রচারণা সেল খুলবেন । তাই এই মূহুর্তে আমাদেরকে আতঙ্কিত না হয়ে সতর্কতার সাথে খেয়াল রাখতে হবে যেন কারো নেপথ্য ষড়যন্ত্রে আমাদের পোলট্রি শিল্প ক্ষতিগ্রস্ত না হয়।