ক্যাটেগরিঃ রাজনীতি

মনে পড়ে যায় অন্নদা শংকর রায় এর কবিতার দু’লাইন , “ তেলের শিশি ভাংলো বলে তোমরা খোকার রাগ করো, তোমরা যারা বুড়ো খোকা ভারত ভেঙ্গে ভাগ করো” । সম্প্রতি ঢাকা বিভক্তি ইস্যূতে নানান রকম মুখরোচক গল্প শোনা যাচ্ছে , ঢাকা সিটি কর্পোরেশনের নির্বাচন সুষ্ঠুভাবে পরিচালনার নিমিত্তে এবং নির্বাচিত প্রতিনিধিরা যাতে ক্রমবর্ধমান জনসংখ্যার ভারে ন্যুব্জ জনবহুল ঢাকা শহরের যথোপোযুক্ত সেবা প্রদান করতে সক্ষমতা না হারান সে জন্য তার নির্বাচনী এলাকা বাড়ানো বা আসন সংখ্যা বৃদ্ধিকে যদি আমি ঢাকা ভাগ হয়ে যাওয়া বুঝি , তাহলে আমি বোকার স্বর্গে বাস করছি বলে দাবি করা সহজ হবে ।আসলে এ একটা রাজনৈতিক সদিচ্ছার বিষয় । এক দল ভাবতে পারেন যে ঢাকা সিটি কর্পোরেশনের একছত্র অধিপতি সাদেক হোসেন খোকা বা তার দল তাদের শক্ত ঘাঁটি আর ব্যাপক জনপ্রিয়তার কারনে বারংবার ঢাকা সিটি কর্পোরেশনের নির্বাচনের ফলাফল তাদের ঝুলিতে ভরে ফেলছে তাই এ নির্বাচনী অঞ্চলকে দুই ভাগ করে দিই , যাতে করে অন্ততঃ একজন নিজ দলীয় প্রার্থী জয়লাভ করেন , আর অন্যদল ভাবতে পারেন সরকারের রাজনৈতিক উদ্দেশ্য চরিতার্থ করতে ঢাকা সিটি কর্পোরেশনের নির্বাচনী আসন বৃদ্ধির সিদ্ধান্ত অমুলক তথা ষড়যন্ত্র মুলক । আমি সরকারের ভাবনার সাথে যেমন একমত তেমন বিরোধী দলের ধারনার সাথে একেবারে দ্বিমত পোষণ করছিনা, সরকারের ভাবনায় সংসদীয় আসনের মত যদি অধিক সংখ্যক প্রতিনীধির অংশগ্রহনের সুবিধার্থে বৃহত্তর পরিসরে জনবহুল ঢাকা শহরের সঠিক বর্জ্য ব্যবস্থাপনা ও সুষ্ঠু সড়ক অবকাঠামো এবং প্রয়োজনীয় আধুনিক নাগরিক সুবিধা নিশ্চিত করতে যদি একাধিক মেয়র দরকার হয় তাহলে তা নয় কেন ? আর বিরোধী দলের ভাবনার সাথে তাল মিলিয়ে বলি “সিটি কর্পোরেশন যত বড়ই হোক তার ‘নগর পিতা’ কিন্তু একজন থাকাই বাঞ্ছনীয় , নতুবা তাদেরকে ‘নগর চাচা’ ডাকবার মানসিকতা কারও আছে বলে আমার মনে হয় না” । আর তাছাড়া পদ্ধতিগত ভাবে উন্নত কৌশল, পর্যাপ্ত লোকবল ও তথ্যপ্রযুক্তির বদৌলতে এর চেয়ে আরও বেশী জনসংখ্যার জন্য হলেও একজনই মেয়র যথেষ্ট বলে আমার মত অনেকেরই বিশ্বাস । যাহোক ঝগড়া-ঝাটি আর ভালো লাগেনা , এতে উন্নয়ন কাজ বাধাগ্রস্ত হয় , তাই উদাত্ত কন্ঠে সরকার ও বিরোধীদল উভয়কে বলতে চাই, সংসদে বিতর্ক করুন , সেই সাথে সরকারকেও জানাতে ইচ্ছে করে , প্রয়োজনে জনমত যাচাই করুন তারপর জন-গুরুত্বপূর্ণ কিছু বিষয়ে সিদ্ধান্ত নিন , এবং বিরোধীদলকেও বলতে চাই, মাথার চুল কাটা আর মাথা কাটা কিন্তু এক নয়, অতএব এটাকে ‘ঢাকা ভাগ’ বলে অভিহিত না করে “নির্বাচনী আসন বিন্যাস” বলে সরকারেরর ইতিবাচক ধারনাকে সমালোচনা করুন কিংবা সমর্থন করে হরতাল প্রত্যাহার করুন ।