ক্যাটেগরিঃ পাঠাগার

বাংলাদেশে প্রতি বছর অনেক মেলা হয়, বানিজ্য মেলা, পৌষ মেলা , ফ্লাট ও প্লট মেলা , বৈশাখী মেলা , বই মেলা , আরও অনেক মেলা , তার মধ্যে বই মেলা একটু আলাদা স্বাদের , ভিন্ন প্রকৃতির । আমিও প্রতি বছর দু;একটা কবিতার ও উপন্যাসের বই প্রকাশ করি । বই কিনিও প্রচূর । তাই বংলা একাডেমির চত্বরে বাহিরে- ভিতরে ঠাসা ঠাসি বই এর স্টল আমাকে অভিভূত করে , সত্যিই মানুষের বই প্রেম , জ্ঞান পিপাষু পঞ্চম ইন্দ্রিয়কে নাড়া দেয় , যা বই মেলার ভীড় দেখে অনেকটা অনুমান করা যায় , প্রথম হতে শেষ অব্দি দল বেঁধে মানুষ আসে , কেউ প্রিয়জনকে নিয়ে ঘুরতে আসে , ফুচকা খায় , চুরি কেনে , ফিতা কেনে , অবশেষে বই কেনে । কখনো ভালোবাসার উপন্যাস, কখনো বিরহ , আবার মিষ্টি প্রেমের কবিতা কিংবা সায়েন্স ফ্রিকশন ,রাজনীতির বই, রান্নার বই, আরব্য উপন্যাসের বই ,ইত্যাদি । নানা রকম বই ক্ষেত্র বিশেষ নানা রকমের মানুষের পছন্দের তালিকায় উঠে আসে ক্রমানুসারে , এই যে মানুষের বই প্রেম তা কিন্তু এক দিনে গড়ে ওঠেনি , নগরতান্ত্রিক জটিলতায় মানুষ যখন একদম হাঁফিয়ে উঠেছিল , একশ্রেণীর তাবেদারির আমলাতন্ত্র মানুষের রন্ধ্রে রন্ধ্রে ঢুকে তার গনতান্ত্রিক সত্তা আর বেঁচে থাকবার স্বাধীনতা হরণ করে নিচ্ছিল ঠিক সেই মুহূর্তে বাংলা একাডেমী হাতছানী দিয়ে ডেকেছিল জ্ঞান অন্বেষন করতে , বাংগালীকে বাংলা ভাষায় তার মনের অনুভূতি প্রকাশ করতে , দুঃখ , রাগ , আবেগ , ক্ষোভ , যন্ত্রনা , অভিজ্ঞতা , বেদনা আর গবেষনা তার কবিতায় গল্পে উপন্যাসে এবং প্রবন্ধে হুবহু তুলে ধরতে ।

এ’দেশ কোন নির্দিষ্ট সরকারের নয় , এ জাতি কোন একক ধর্মের নয় , বহু জাতিক , বহু মাত্রিক , বহু মতের মানুষের এই বাংলাদেশ । যেখানে ফুল ফুটুক আর নাই ফুটুক বসন্ত এসেছে , মানুষের তাজা রক্ত এনে দিয়েছে একটি স্বাধীনতার স্বপ্ন , যে যুদ্ধ আমরা করেছি ৭১’ এ তা এখনো থামেনি , এ যুদ্ধ দুর্নীতির বিরুদ্ধে , এ যুদ্ধ সাইবার হামলার বিরুদ্ধে , অশিক্ষার বিরুদ্ধে , আর সেই অশিক্ষা দূর করতে বই রেখেছে যুগান্তকারী স্বাক্ষর যার কোন বিকল্প নেই । তাই বাংলা একাডেমী বই মেলার আয়োজন করায় সাধুবাদ পাবার দাবিদার , আর এজন্য বাংলা একাডেমীকে অনুরোধ বইমেলা কোন নির্দ্দিষ্ট দিনের জন্য সীমাবদ্ধ রেখে সারা বছর সাধারণ মানুষের বিনোদন কেন্দ্র হিসেবে উম্মুক্ত করে দিন , শুধু বছরের একটি দিন বা একটি মাস নয় সারা বছর আনন্দ মুখর পরিবেশে যাতে পাঠক তার বইমেলা খুঁজে পায় আর লেখক সবার মন যুগিয়ে লিখতে পারে সেই ব্যবস্থা করুন , তবে আমি কথা দিচ্ছি তাতে মানুষের বই পড়ার অভ্যেস দিন দিন আরও বাড়বে, আরও লেখক বাড়বে , বাড়বে প্রকাশক সেই সাথে দেশী-বিদেশী কোটি কোটি পাঠক সহ বাংলা ভাষা ভাষি পাঠক বৃন্দ খুঁজে পাবেন তাদের সত্যিকারের জ্ঞানের খোরাক ।