ক্যাটেগরিঃ রাজনীতি

মাইনাস টু’র ষড়যন্ত্র এখনো হচ্ছে বলে আশঙ্কা প্রকাশ করেছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। ২৩ মে বুধবার প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ে পেশাজীবী সমন্বয় পরিষদের নেতারা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সঙ্গে সাক্ষাত্ করতে গেলে তিনি এ আশঙ্কা প্রকাশ করেন। প্রথম আলো অনলাইন সংস্করণে এই খবর প্রকাশিত হয়েছে।

পত্রিকাটি তাদের নির্ভরযোগ্য সূত্রের বরাত দিয়ে জানায়, “ বৈঠকে প্রধানমন্ত্রী বলেছেন, বিএনপি বুঝতে পারছে না, মাইনাস টু এখনো শেষ হয়নি। তখন তারা ব্যর্থ হয়েছে বলে যে ষড়যন্ত্র শেষ হয়েছে, তা নয়। যারা এটা করতে চেয়েছিল, তারা এখনো সক্রিয় আছে। তাদের খায়েশ শেষ হয়নি। তিনি বলেন, যারা জনগণের রাজনীতিতে আসতে পারবে না, ক্ষমতায় বসতে পারবে না, তারাই অসাংবিধানিকভাবে ষড়যন্ত্রকারীদের নিয়ে ক্ষমতায় আসতে চায়। কারণ তারা জানে, জনগণ তাদের চায় না। দেশে গণতান্ত্রিক বা স্বাভাবিক পরিস্থিতি থাকলে যাদের মূল্যায়ন হয় না, তারাও তত্ত্বাবধায়কের কথা বলছে।”

আমার কথা হলো দেশের প্রধান বিরোধী দল বরাবরই তত্ত্বাবধায়ক ইস্যু নিয়ে আন্দোলন-সংগ্রামের হুমকি দিয়ে আসছে। কিন্তু বর্তমান সরকারী দল আওয়ামী লীগ তথা মহাজোট তাদের দাবি মানছে না। সরকার তাদের দাবি না মানলে বিএনপি তথা ১৮ দল কি আন্দোলনে যাবে? আর আন্দোলনে গেলে এর ফলাল কি হবে? তাহলে কি প্রধানমন্ত্রী যা আশঙ্কা করছেন তাই সত্য?

আমাদের দেশের গ্রাম-অঞ্চলে একটা প্রবাদ আছে, “চোরকে বলে চুরি করতে আর গৃহস্থ্যকে বলে সজাগ থাকতে”

এই “মাইনাস-২” ষড়যন্ত্রকারী এরা কারা?

আরেকটি বিষয় হলো মাইনাস-২ ষড়যন্ত্রকারী বা তৃতীয় পক্ষ যদি কখনো ক্ষমতায় আসে তাদের গ্রহণযোগ্য কতটুকু হবে বাংলাদেশের জনসাধারণের কাছে?