ক্যাটেগরিঃ ক্যাম্পাস

 
২৬শে মার্চ  মহান বিজয় দিবস উপলক্ষ্যে চাঁদপুর জেলার ফরিদগঞ্জ উপজেলার কড়ৈতলী উচ্চ বিদ্যালয়ের ৫১ তম বার্ষিক ক্রীড়ার উদ্বোধন হয়। ২৮ তারিখ বর্ণাঢ্য সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের মধ্যে দিয়ে সমাপ্তি ঘটে বার্ষিক ক্রীড়ার।
অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন উপজেলা নির্বাহী অফিসার জনাব জয়নাল আবেদিন। বিশেষ অতিথী হিসেবে উপস্থিত ছিলেন- আবদুল্লাহ আল মামুন (উপজেলা একাডেমিক অফিসার) আওরঙ্গজেব (পিআইও, ফরিদগঞ্জ উপজেলা)। এছাড়া হুমায়ুন কবির বিশেষ অতিথির আসন গ্রহণ করেন। অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন সেলিম খাঁন।
প্রধান শিক্ষকের বক্তৃতায় সমেরেন্দ্র মিত্র স্কুলের নানা সমস্যার কথা তুলে ধরেন। এসময় তিনি ভবন, স্বল্প চেয়ার-টেবিলের স্বল্পতা তুলে ধরেন ইউএনও মহোদয়ের কাছে।

প্রধান অতিথির বক্তৃতায় জনাব জয়নাল আবেদিন বলেন, স্কুলের সমস্যা সমাধানে তিনি নিরলস প্রচেষ্টা করবেন। তিনি শিক্ষার্থীদের উদ্দ্যেশে বলেন, মানুষের মত মানুষ হতে হবে। অর্থের পিছে ছুটো না,একদিন অর্থই তোমাদের পেছনে ছুটবে। সার্টিফিকেট এর জন্য শুধু শিক্ষা অর্জন নয়, শিক্ষা মানুষকে সামাজিক মূল্যবোধ সৃষ্টিতে সহায়তা করে।

জাতীয় সংগীত বাজার সময় দাড়িয়ে শ্রদ্ধা জানান সবাই

এক পর্যায়ে তিনি তার ম্যাজিস্ট্রেট থাকাকালীন এক স্মরণীয় ঘটনা শিক্ষার্থীদের উদ্দেশ্যে বলেন। তিনি যখন খাগড়াছড়িতে কর্মরত ছিলেন তখন এক হিল অঁজো পাড়াগায়ের মানুষদের কাছ থেকে তিনি একটা দিনের জন্যও একটি নালিশ পাননি। তখন তিনি ছুটে যান সেই গাঁয়ে, গিয়ে দেখেন তাদের কারোই কোন চাহিদা নেই! তারা পাহাড়, বন, জঙ্গল থেকে খাবার সংগ্রহ করে। আর তা খেয়ে জীবন -যাপন করে তারা। আর তাই তাদের মাঝে কোন বিভেদ নেই।

তিনি বলেন, ওরা ক্ষুদ্র নৃ-গোষ্ঠী জাতিসত্তার হলেও তাদের মধ্যে চাহিদা না থাকার কারণেই এমনটা ঘটেছে।
এরপর তিনি উক্ত ‍বিদ্যালয়ের মেধাবী শিক্ষার্থীদের মাঝে মেধা পুরস্কার বিতরণ করেন। এসময় সেখানে উক্ত বিদ্যালয়ের শিক্ষকবৃন্দ, আমাদের ফরিদগঞ্জের অনার সুদিপ্ত, চাঁদপুরের বিশেষ প্রতিনিধি রিফাত কান্তি সেনসহ এলাকার গন্যমান্য ব্যক্তিবর্গ অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন।