ক্যাটেগরিঃ পাঠাগার

 

শিক্ষা শুধু বই পুস্তকের মধ্যে সীমাবদ্ধ নয়। শিক্ষার উপকরনের সাথে ওতপ্রতভাবে জড়িত বিনোদন, শিল্পচর্চা, চিত্রশিল্প, খেলাধুলা। যান্ত্রিক এ যুগে খেলাধুলা দিন দিন হারিয়ে যেতে থাকলে ও সৃজনশীল মেধা বিকাশে শিশুরা চিত্রাংকনের দিকে ঝুঁকছে। কেনো না বইয়ের ভারে এমনিতেই নূইয়ে পড়ছে মাথা! এর উপর পরিবারের চাপ ভাল রেজাল্ট করতে ই হবে। তাইতো ছোট্ট সোনামনিদের অবিরাম ছুটে চলা। গ্রামীণ জনপদে বেড়ে উঠা ঐ সব শিশুরা মনের মাধুরী মিশিয়ে তাদের চিত্রাংকনের মধ্যে দিয়ে ফুটিয়ে তুলছে বিভিন্ন মনমুগ্ধকর দৃশ্য।

দূর্ভাগ্য প্রাতিষ্ঠানিক অংকন শিক্ষা বলতে চারু-কারুকলা বইয়ে আঁকা ছবি গুলো সীমাবদ্ধ। এছাড়া ছবি আঁকার জন্য এসমস্ত শিশুর নেই কোন বিধি ব্যাবস্থা। প্রাতিষ্ঠানিক নেই কোন চিত্রাংকনের শিক্ষকও। চিত্রংকনের প্রতি তেমন কোন জ্ঞান না থাকায় বর্তমান যুগের শহরের শিশুদের তুলনায় অনেক পিছিয়ে পড়ছে তারা। খুব ভাল দৃশ্য ফুটিয়ে তোলার চেষ্টা করলে ও যথাযত সরঞ্জাম আর উপকরনের অভাবে তারা দিন দিনই পিছিয়ে পরছে।

2016-05-10-09-55-48-340

গ্রামের শিশুদের ছবি আঁকার জন্য নেই কোন ক্যানভাস,নেই কোন রং তুলি ,নেই অংকনের কোন শিক্ষক,নেই অংকন করার মত কোন হল ঘর! নেই উৎসাহ দেয়ার মত কোন ব্যক্তিবর্গও। তবু তারা নিজের প্রচেষ্টায় বিভিন্ন দৃশ্য এঁকে সেগুলো নিজের ক্লাস রুমে সাঁটিয়ে দিচ্ছে।

ফরিদগঞ্জের গ্রামীণ জনপদের বেশীরভাগ শিক্ষা প্রতিষ্ঠানেই চিত্রাংকনের নেই ভাল ব্যাবস্থা! অধীর আগ্রহ আর চিত্রাংকনের প্রতি আখাংকা থাকা সত্তেও পৃষ্টপোষকতার অভাবে প্রতিভা বিকশিত হচ্ছে না!

কড়ৈতলী উচ্চ বিদ্যালয়ের সপ্তম শ্রেনীর শিক্ষার্থীদের চিত্রাংকনের প্রতি প্রচুর ঝোঁক। ছবির দৃশ্যগুলো তাদের হাতেই আঁকা। বহু চেষ্টার ফসল তাদের। তারা নিজেদের প্রচেষ্ঠায় সুন্দর, সুন্দর দৃশ্য এঁকে তা তাদের ক্লাস রুমে টাঙ্গিয়ে রাখছে। তারা আবদারের বসে বলেন তারা যদি চিত্রাংকনে প্রাতিষ্ঠানিক শিক্ষা পেতো তবে তারা আরো ভাল কিছু উপহার দিতে পারতো।

1470674849927

গ্রামীণ জনপদে নেই যেমন কোন আর্ট শেখার স্কুল, তেমনি মাধ্যমিক বিদ্যালয় গুলোতে নেই আর্ট করানোর মত তেমন কোন শিক্ষকও। তাদের দাবী তাদের এই প্রতিভাকে বিকশিত করতে সপ্তাহে একদিন হলে ও চিত্রাংকন প্রতিযোগিতা করা প্রয়োজন। তাদের চিত্রাংকন শেখার জন্য যেমন শিক্ষক প্রয়োজন তেমনি ক্লাস রুম ও প্রয়োজন। সাথে কারো পৃষ্টপোষকতা পেলে এরা ই একদিন সম্ভাবনার উচ্চ শিখড়ে পৌছাতে হবে সক্ষম।