ক্যাটেগরিঃ অর্থনীতি-বাণিজ্য

 
2017-06-23-10-00-54-754

গত কয়েক বছর ধরে ঈদের কেনাকাটায় ভারতীয় টিভি সিরিয়ালের পোশাকগুলো আধিপত্য বিস্তার করে আসছে। তারই ধারাবাহিকতায় ভারতীয় চ্যানেল স্টার জলসা ও জি বাংলা স্টার প্লাসসহ আরো কয়েকটি ভারতীয় টিভি চ্যানেলের সিরিয়ালগুলোর অভিনেতা-অভিনেত্রীদের নামানুসারে পোশাকগুলো বাজারে ক্রেতাদের নিকট প্রথম পছন্দ হিসেবে বিবেচিত। কিন্তু আসলেই যারা এসব পোশাক ক্রয় করে তারা পোশাকগুলো না চিনেই ক্রয় করছেন আন্দাজের উপর।

সারা দেশের ন্যায় চাঁদপুরেও এর ব্যতিক্রম কিছু নয়। পছন্দের তালিকায় বাহুবলী টু, সেলফি, সহ আরো অনেক বিদেশি নামধারী পোশাকের সমারোহ লক্ষ্য করা যায়। তবে আসলেই পোশাকগুলো ভারতীয় কিনা, কিংবা ঐ নামের কি না তা নিয়ে রয়েছে সংশয়।

নাম গোপন করে একজন ব্যবসায়ী বলেন, ‘চায়না, দেশি, ভারতীয় সব ধরনের পোশাকই বাজারে আছে তবে নাম নিয়ে সংশয় প্রকাশ করেন তিনি।’

বলেন ক্রেতারা চায়, আমি চিনি না। আন্দাজে বলি এটা ঐ নামের পোশাক। ক্রেতারা ভাবে এটাই তাদের পছন্দের পোশাক।

কয়েকজন নারী ক্রেতার সাথে কথা হয় আমাদের।এর মাঝে একজন পছন্দের তালিকায় বাহুবলী-টু। জানালেন, বন্ধুর কাছ থেকে শুনেছেন কিন্তু এখনো পোশাকটি দেখেনি।

দোকানগুলোতে বাহারি রঙের পোশাক ডিসপ্লে করানো আছে। চাকচিক্যময় সেসব পোশাকের দামও আগের চেয়ে একটু বেশি। মেয়েদের পোশাকের মধ্য রয়েছে থ্রি পিছ, লেহেঙ্গা,স্কার্টসহ আরো অনেক ধরনের পোশাক। এছাড়া শাড়ির মধ্যে তাঁতের শাড়ি, সিল্ক, জর্জেটসহ জামদানি আর বিদেশি কিছু নামধারি শাড়িই বাজারের ক্রেতাদের মূল আকর্ষণ। ছেলেদের পোশাকের মধ্যে, পায়জামা-পাঞ্জাবি, শার্ট, টি-শার্ট, জিন্স, ফতুয়াসহ কটি বেশ প্রাধান্য পেয়েছে।

বাদ যায়নি জুয়েলারি, মনিহারী বিতানগুলোও। সেখানেও উপচে পড়া মানুষের ভিড় লক্ষ্য করা যায়। আর ক’দিন পরই ঈদ, তাই ঈদকে সামনে রেখে বিপণীবিতানগুলো সেজেছে নতুন সাজে। রয়েছে পুলিশি নিরাপত্তা। চাঁদপুরের শপিং মলগুলোর সামনে সার্বিক নিরাপত্তায় রয়েছে চাঁদপুর পুলিশের সদস্যরা।