ক্যাটেগরিঃ প্রকৃতি-পরিবেশ, ফিচার পোস্ট আর্কাইভ


দে-ছুট ভ্রমণ সংগঠনের উদ্যোগে রাজধানীর ধামরাই উপজেলার প্রত্যন্ত অঞ্চলের গ্রাম খড়ারচরে প্রতিষ্ঠিত খড়ারচর দারুল উলুম মাদ্রাসায় বিভিন্ন ফলজ গাছের চারা রোপন করা হয়।

‘সবুজে হোক সয়লাব-আমাদের প্রিয় বাংলাদেশ’ প্রতিপাদ্যে বৃক্ষরোপণ কর্মসূচির উদ্বোধন করেন দে-ছুট ভ্রমণ সংঘের প্রধান প্রতিষ্ঠাতা ও সমন্বয়ক মো.জাভেদ হাকিম।

শুক্রবার এই কর্মসূচিতে উপস্থিত ছিলেন মো. মোস্তাক, জসিম উদ্দিন, আরাফাত, আনন্দ টিভির সাংবাদিক সৈয়দ লিংকন, ইফতেখার, মাওলানা আব্দুর রশিদ, বায়তুল ফালাহ মসজিদের  মাওলানা মতিউর রহমানসহ ছাত্র-শিক্ষক এবং স্থানীয় গ্রামবাসী।

অন্যান্য ভ্রমণ সংগঠনগুলোকেও বৃক্ষরোপণে এগিয়ে আসার আহ্বান জানিয়ে মো.জাভেদ হাকিম বলেন,  “আজকে দেশে গাছ লাগানোর চাইতে কাটার আয়োজন বেশি। সর্বত্র নগরায়নের ছোঁয়া। অথচ আমরা ভাবি না, প্রাকৃতিক সবুজ যদি দিন দিন বিলীন হয়ে যায় তাহলে টিকবে না আমাদের পশুপাখি। হুমকিতে পড়বে মানুষ ও বন্যপ্রাণী। আজকে জলবায়ু পরিবর্তনের অন্যতম প্রধান কারণই হল বৃক্ষরোপণের চাইতে অবাধ নিধন।”

বেশি বেশি গাছ লাগাতে হবে জানিয়ে তিনি বলেন, “দেশের দুর্গম এলাকাগুলোতে ঘুরে বেড়িয়েছি আমি। যে হারে গাছ কাটা হচ্ছে … এটি  আমাদের দেশের পরিবেশকে সংকটের মুখে ফেলবে।”

প্রতিটি ভ্রমণ সংগঠনসহ অন্যান্য সংগঠনগুলো যদি প্রতি মৌসুমে অন্তত ৫০টি করে গাছের চারা রোপণ করে তাহলে ‘শ্যামল বাংলা’ ফিরে আসবে বলে মনে করেন জাভেদ হাকিম।