ক্যাটেগরিঃ অর্থনীতি-বাণিজ্য

 

আমরা বিনিয়োগকারীরা শেয়ার মার্কেটে কি বিনিয়োগ হারাতে আসি নাকি বিনিয়োগ করে মার্কেটে লাভ-লোকসান বন্টন করতে আসি? আসলে আমাদের এখন কি করা উচিত হবে নতুন করে ভাবতে হবে। আমাদের এখন উচিত হবে শেয়ার মার্কেট থেকে বেরিয়ে খাদ্য-দ্রব্য, শাক-সবজি, মাছ-মুরগী, চাল-আটা এ সকল দ্রব্য সামগ্রীতে বিনিয়োগ করা। কারন এতে এখন সবচেয়ে বেশি মুনাফা আসে, এখানে কোন ক্ষতির সম্মুখীন হতে হয় না। প্রতিদিনই লাভ। আর শেয়ার মার্কেটে প্রতিদিনই লোকসান। এসইসি একটি পজিটিভ পদক্ষেপ নিয়ে হয়তো তারা ইচ্ছে করে মার্কেট উপরের দিকে সূচক একদিনের জন্য তুলে নিয়ে আসে কিন’ তা আর ধরে রাখতে পারে না। আর একটি কথা হচ্ছে এসইসি বা ডিএসই পজিটিভ একটি সিদ্ধান- নেয়ার ২/৩ দিন পরই আবার নেগেটিভ কিছু সিদ্ধান- নিয়ে মার্কেটটি লোকসানের দিকে নিয়ে যেতে সহায়তা করে থাকে।

আর ক’টা দিন যেতে দেরি, দেখা যাবে আইপিও প্রিমিয়াম সহ অভিহিত মূল্য আর সেকেন্ডারি শেয়ারের মূল্যের সাথে তেমন ফারাক দেখা যাবে না। এখনই অনেক শেয়ারের দাম আইপিও শেয়ারের মুল্যের চেয়েও কম মূল্যে শেয়ার এর দাম মার্কেটে দেখা যাচ্ছে। এখন রিকশাওয়ালা, কুলি, ভিক্ষুক, ঠেলা-ভ্যান চালক এজাতীয় লোকরা এই ভিক্ষাবৃত্তি ব্যবসার সাথে সমপৃক্ত হবে। আমরা আসে- আসে- কেটে পড়ি, এতেই আমাদের মঙ্গল।

আমার মনে হয়, শেয়ার মার্কেটে বিনিয়োগকারীদের নতুন করে ভেবে দেখতে হবে যে, এখন এখানে কারা আসে? শুধুমাত্র যারা যাকাত-ফিতরার টাকা পড়ে আছে তারাই কিছু হাতে গোনা লোক। আর এসইসি ও ডিএসই তাদেরকে নিয়ে থাকতে পছন্দ করে। আর আমাদের অর্থমন্ত্রী তার কথা না বললেই ভাল। বললে হয়তো মানহানির মামলায় জড়িয়ে পড়তে হবে।