ক্যাটেগরিঃ অর্থনীতি-বাণিজ্য

 

Don't Come DSE New Investment.

পুরাতন বিনিয়োগকারীদের নি:স্ব করে নতুন বিনিয়োগকারীদের মার্কেটে আসার সুযোগ করে দেওয়ার উদ্দেশ্যটা আসে- আসে- আমাদের বোধগম্য হচ্ছে। লুটেরা-দুর্নীতিবাজেরা নতুন কৌশল অবলম্বন করছে যে, তাদের সাবেক ও বর্তমান বিনিয়োগকারীদের বাঁচা-কোচা যা অর্থ সম্বল মার্কেটে বিনিয়োগ করা রয়েছে, তাদের আর কোন পথ নেই এক লসে বিক্রয় করে যাওয়া ছাড়া। তাই আমাদের নিয়ে তাদের তেমন কোন মাথা ব্যথা নেই। সুতরাং, এখন দরকার নতুন বিনিয়োগকারীদের খোঁজে। নতুন বিনিয়োগকারীরা তাদের কাছে অবশ্যই ভাল অর্থ রয়েছে, তাদের কোন রকম শেয়ার মার্কেটকে সময়ের সবচেয়ে নিন্ম মূল্যের কথার জালে ফাঁসিয়ে তাদের বিনিয়োগ করতে আকৃষ্ট করা। একবার তারাও এ জ্বালে আটকে গেলে তাদেরকেও নি:স্ব বানিয়ে নতুন করে আবার সেই খেলা খেলবে।

২/১ দিন মার্কেট ঘুরে দাঁড়ালে অথবা সিকিউরিটি এক্সচেঞ্জ ইচ্ছে করে মার্কেটকে উঠিয়ে নিয়ে আসে এবং নতুন বিনিয়োগ কারীদের আগ্রহ বৃদ্ধি করতে সহায়তা করে। নতুন করে বিনিয়োগ কারীরা বিনিয়োগ করলে আবার এমন একটি অবান্ধব সিদ্ধান- নেয় যে, মার্কেট আবার নতুন করে লাগাতার দিনের পর দিন, মাসের পর মাস পতন ঘটতেই থাকে। মার্কেট যখন ২/১ দিন উর্দ্ধগতিতে থাকে তখন কি তারা চুপ করে বসে থাকতে পারে না, যেমনটি ছিল গত প্রায় ১০/১১ মাস তবে এখন নয় কেন। আমরা যা হারিয়েছি ১০/১১ মাসে তা তো ৬ মাস ধরে সমানে বাড়লেও পুরন হওয়ার মত নয়।

আমি একজন বিনিয়োগকারী হিসেবে সকল বিনিয়োগকৃত ভাই ও বোনদের একটি পরামর্শ দিই, আর তা হলো আপনাদের নিকট যদি নতুন কেহ শেয়ার মার্কেটে বিনিয়োগ করতে আগ্রহ প্রকাশ করে, তবে তাকে এখানে কখনই বিনিয়োগ করতে বলবেন না। আর আওয়ামী লীগ সরকারের আমলে তো প্রশ্নই আসে না।

আমাদের এখন চেয়ে থাকা ছাড়া আর কোন পথ উন্মুক্ত নাই এ বিপদ থেকে বের হয়ে আসার। আর কত কমবে এখন সেটাই প্রশ্ন। শেয়ার অভিহিম মূল্য নাকি তার চেয়েও কম নাকি ০.০০ টাকা?

বাংলাদেশের একজন সাধারন নাগরিক

সৈয়দ রায়হান আলী